নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » বিশৃংখল ঘটনার মধ্য দিয়ে শেষ ভোটগ্রহন

বিশৃংখল ঘটনার মধ্য দিয়ে শেষ ভোটগ্রহন

dighinala-(khagrachari)-picখাগড়াছড়ির দীঘিনালার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কয়েকটি কেন্দ্রে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া আর জাল ভোট দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে সেসব কেন্দ্রে ভোট গ্রহন সাময়িক বন্ধ থাকলেও আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের পর পুনরায় ভোট গ্রহন শুরু করা হয়।
একই ঘটনায় হাচিনসনপুর এলাকায় উত্তেজিত লোকজন একটি বসত ঘর ও একটি মোটরসাইলে অগ্নিসংযোগ করার খবর পাওয়া গেছে। এসব কেন্দ্রগুলোর ঘটনা নিয়ে প্রার্থীরা পরষ্পরকে দোষারোপ করেছেন। একটি সংগঠনের হুমকির কারণে তিনটি কেন্দ্রে কোন এজেন্ট দিতে পারেননি বলে দাবী করেছেন মেরুং ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হেমব্রত চাকমা।তবে কেন্দ্রের বাহিরে সামান্য বিশৃংখলা ঘটলেও ভোটগ্রহনের পরিবেশ সার্বিক সুষ্ঠু ছিল বলে প্রশাসনের পক্ষ্য থেকে দাবী করা হয়েছে।
কবাখালি ইউনিয়নের হাচিনসনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে জাল ভোট দেওয়া অভিযোগে নৌকা প্রতীক ও ঘোড়া প্রতীকের সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। এতে প্রায় ৪৫ মিনিট ভোটগ্রহন বন্ধ থাকে। তখন উত্তেজিত লোকজন পার্শ্ববর্তি গ্রামের একটি বসত ঘর ও একটি মোটর সাইকেলে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়। ঘটনার সংবাদ পেয়ে অতিরিক্ত সেনাবাহিনী ও বিজিবি গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনলে পুনরায় ভোট গ্রহন শুরু হয়। এ ঘটনার জন্য নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন ও ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী বিশ্বকল্যান চাকমা পরস্পরকে দায়ী করেছেন। সেকেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার মুকুল চাকমা জানান, ভোটগ্রহন সাময়ীক বন্ধ থাকলেও আবার তা শুরু করা হয়।2

কবাখালি ইউনয়নের কবাখালি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে জাল ভোট দেওয়া অভিযোগে মোরগ ও টিউব প্রতীকের সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে সখানে গিয়ে কেন্দ্র ফাঁকা দেখা যায়। এ ঘটনায় দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে আধা ঘন্টা ভোট গ্রহন বন্ধ থাকে। পরে ভোট গ্রহন শুরু করলেও ভোটারদের তেমন উপস্থিতি চোখে পরেনি। সে কেন্দ্রে জয়কুমার কার্বারী পাড়ার শহিদুল্লার স্ত্রী সুফিয়া খাতুন (৪৫) অভিযোগ করে জানান, তিনি ভোট দিতে কেন্দ্রে গিয়ে দেখেন তাঁর ভোট দেওয়া হয়ে গেছে। একই অভিযোগ হেযম্যান পাড়ার আছর আলীর স্ত্রী অছিমননেছা (৬০) এর। মোরগ প্রতীকের সদস্য প্রার্থী আবুল বাশার মিন্টু অভিযোগ করে বলেন, তাঁর ভাই চান মিয়া ভোট দিতে গিয়ে জানতে পারে তাঁর ভোট দেওয়া হয়ে গেছে। এর জন্য তিনি টিউবওয়েল প্রতীকের প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী নওশাদকে দায়ী করেছেন। মিন্টু আরো জানান, নওশাদের লোকজন জাল ভোট দেওয়ার কারণে প্রকৃত ভোটাররা ভোট দিতে না পারায় সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। জয়কুমার কার্বারী পাড়ার মজনু মিয়ার ছেলে মোশারফ হোসেন (২৩) অভিযোগ করে জানান, তিনি ভোট দিতে গিয়ে দেখেন তাঁর ভোট দেওয়া হয়ে গেছে। এর প্রতিবাদ করলে তাঁকে নওশাদের লোকজন মারধোর করে। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন নওশাদ। সেসময় কেন্দ্রে দেখা যায়, জাল ভোট দেওয়া চেষ্টার অভিযোগে জাহাঙ্গীর নামের একজনকে আটকে রাখা হয়েছে। অবশ্য প্রমান করতে না পারায় কিছুক্ষন পর তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়। সে কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার উৎপল চাকমা জানান, বাহিরে গোলযোগের কারণে আধাঘন্টা ভোটগ্রহন বন্ধ ছিল পরে শুরু করা হয়েছে। জাল ভোট দেওয়ার অভিযোগের বিষয়ে তিনি জানান, এসব তাৎক্ষনিক প্রমান ছাড়া কিছুই করা যাচ্ছেনা। মেরুং আর এ রেজিঃ প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রেও ফুটবল ও টিউবওয়েল প্রতীকের সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় অন্তত ৫জন আহত হয়েছেন। সেখানেও আধাঘন্টা ভোটগ্রহন বন্ধ ছিল।3
মেরুং ইউনিয়নে ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী হেমব্রত চাকমা অভিযোগ করেন তিনি আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থীর হুমকির কারণে কয়েকটি কেন্দ্রে এজেন্ট দিতে পারেননী। তাঁর প্রমান পাওয়া যায় উত্তর রেংকার্যা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র, রেংকার্যা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র ও জয়ন্তমোহন পাড়া রেজি প্রাথমিক বিদ্যারয় কেন্দ্রে গিয়ে। এর একটি কেন্দ্রেও ঘোড়া প্রতীকের এজেন্ট পাওয়া যায়নি। উত্তর রেংকার্যা কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার এব্যাপারে বলেন, ‘চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে শুধু আনারস প্রতীক ও নৌকা প্রতীকের এজেন্ট এসেছে। কোন প্রার্থীর এজেন্ট না আসলেতো আমার কিছুই করার নাই।’
দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান জানান, ছোটখাট ঘটনাগুলো তাৎক্ষনিক নিয়ন্ত্রন করে ভোটের পরিবেশ বজায় রাখা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ডঃ মোহাম্মদ শহীদ হোসেন চৌধুরী জানান, উল্লেখযোগ্য বড় ধরনের কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই ভোটগ্রহন শেষ হয়েছে

Micro Web Technology

আরো দেখুন

স্বাস্থ্য বিভাগকে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো রাঙামাটি রেড ক্রিসেন্ট

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে রাঙামাটির ১২টি সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে স্বাস্থ্য …

Leave a Reply