নীড় পাতা » পৌরসভা নির্বাচন ২০১৫ » বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থীর ছড়াছড়ি

বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থীর ছড়াছড়ি

বান্দরবান পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলী-বিএনপির বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থীর ছড়াছড়ি হয়েছে। প্রার্থী হওয়ায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে বহিষ্কারও করা হয়েছে। বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থীরা হলেন- ১নং ওয়ার্ডে জেলা ছাত্রদলের ক্রীড়া সম্পাদক ফরিদুল আলম (স্বতন্ত্র), ৩নং ওয়ার্ডে শ্রমিকদলের নেতা মোহাম্মদ ফোরকান (স্বতন্ত্র), ৪নং ওয়ার্ডে স্বেচ্ছাসেবক দলের পৌরশাখার যুগ্ম সম্পাদক রাজু কর্মকার (স্বতন্ত্র), ৮নং ওয়ার্ডে স্বেচ্ছাসেবক দলের পৌরশাখার সভাপতি মো: জাফর উল্লাহ (স্বতন্ত্র), জেলা কৃষকদলের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম (স্বতন্ত্র) এবং সংরক্ষিত ১,২,৩ ওয়ার্ডে মহিলা কাউন্সিলর পদে মহিলাদলের সদস্য ফেরদৌস আক্তার (স্বতন্ত্র)।

অপরদিকে ১নং ওয়ার্ডে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হচ্ছেন যুবলীগের নেতা সুকুমার শীল (স্বতন্ত্র), ৩নং ওয়ার্ডে জেলা শ্রমিকলীগের নেতা মোহরম আলী (স্বতন্ত্র), ৭নংওয়ার্ডে শ্রমিকলীগের পৌরশাখা সভাপতি সামসুল হক সামু (স্বতন্ত্র), শ্রমিকলীগের নেতা মোহাম্মদ জলিল(স্বতন্ত্র), ৯নং ওয়ার্ডে স্বেচ্ছাসেবকলীগের শহর শাখার সভাপতি মো: শাহজাহান (স্বতন্ত্র), আওয়ামীলীগের পৌরশাখা সেক্রেটারী পরিমল দাশ (স্বতন্ত্র), আওয়ামীলীগ নেতা মনসুর আলম সাগর (স্বতন্ত্র) এবং সংরক্ষিত ৭,৮,৯ ওয়ার্ডে মহিলা কাউন্সিলর পদে আওয়ামীলীগের নেত্রী মোছাম্মৎ রাহিমা বেগম (স্বতন্ত্র)।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, কাউন্সিলর প্রার্থীরা হচ্ছেন- ১নং ওয়ার্ডে শামসুল ইসলাম সানু (আ’লীগ), আবুল খায়ের (বিএনপি), ২নং ওয়ার্ডে আব্দুল শুক্কুর (আ’লীগ), মোহাম্মদ আলী (জামায়াত), ৩নং ওয়ার্ডে অজিত কান্তি দাশ (আ’লীগ), মো: জসিম উদ্দিন (বিএনপি), ৪নং ওয়ার্ডে দিলিপ বড়–য়া (আ’লীগ), মোহাম্মদ সোলায়মান (জামায়াত), ৫নং ওয়ার্ডে মংমং সিং মারমা (আ’লীগ), থুইসিং প্রু লুবু (বিএনপি), ৬নং ওয়ার্ডে সৌরভ দাশ শেখর (আ’লীগ) মো: আইয়ুব খান (বিএনপি), ৭নং ওয়ার্ডে ইউসুফ আলী সিকদার (আ’লীগ), মো: শামীম হোসেন (বিএনপি), ৮নং ওয়ার্ডে হাবিবুর রহমান খোকন (আ’লীগ), মো: সাইদুল আলম (বিএনপি) ৯নং ওয়ার্ডে মো: সেলিম রেজা (আ’লীগ), মোহাম্মদ করিম (বিএনপি)। এছাড়াও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীরা হচ্ছেন ১,২,৩নং ওয়ার্ডে উজ্বলা তংচঙ্গ্যা (আ’লীগ), খুরশিদা আক্তার (বিএনপি), ৪,৫,৬ নং ওয়ার্ডে সালেহা বেগম (আ’লীগ), শাহিন আক্তার (বিএনপি) এবং ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ডে জোহরা বেগম চৌধুরী (আ’লীগ), গীতা রানী দে (বিএনপি)।

জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক লক্ষ্মীপদ দাশ বলেন, দলীয় প্রার্থীর বাইরে যারা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন, তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিন পর্যন্ত সময় দেয়া হয়েছে। তারপরও যারা মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করবেন না তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিকভাবে ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রয়োজনে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।

জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মজিবুর রশীদ বলেন, বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে যারা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন তাদের আগামী ১৩ ডিসেম্বরের মধ্যে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের দজন্য সময় দেয়া হয়েছে। তারপরও যারা প্রার্থী হবেন তাদের বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধীতার প্রতিবাদ রাঙামাটিতে

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধীতার নামে ‘উগ্রমৌলবাদ ও ধর্মান্ধগোষ্ঠীর জনমনে বিভ্রান্তির …

Leave a Reply