নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » বিদ্রোহীদের নিয়ে বেকায়দায় দলীয় প্রার্থীরা !

বিদ্রোহীদের নিয়ে বেকায়দায় দলীয় প্রার্থীরা !

pic-28_48793খাগড়াছড়ির ছয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তিন পদে ৭৭ প্রার্থী লড়ছেন। চেয়ারম্যানে ২৬, ভাইস-চেয়ারম্যানে ২৬ এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানে ২৫ জন। তাদের মধ্যে রামগড়, মাটিরাঙা ও মানিকছড়িতে বিএনপির এবং রামগড় ও পানছড়িতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন। আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি সদর, রামগড়, মাটিরাঙা, পানছড়ি, মহালছড়ি ও মানিকছড়ি উপজেলায় ভোটগ্রহণ।

খাগড়াছড়ি সদরে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত বর্তমান চেয়ারম্যান মো. শানে আলম (আনারস), বিএনপির কংচাইরী মারমা (দোয়াত-কলম), ইউপিডিএফ সমর্থিত চঞ্চুমনি চাকমা (মোটরসাইকেল) ও স্বতন্ত্র এস এম রেজাউল করিম হেলাল (ঘোড়া)।

রামগড়ে উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম ফরহাদ (ঘোড়া), আওয়ামী লীগ সমর্থিত এ কে এম আলীম উল্লাহ (হেলিকপ্টার), নাগরিক কমিটির প্রার্থী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা বিএনপির সহসভাপতি বেলায়তে হোসেন ভূঁইয়া (কাপ-পিরিচ), আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী কাজী মো. সেলিম (আনারস), বিএনপি (সমীরণ দেওয়ান গ্রুপ) প্রার্থী রিয়াজ উদ্দিন রিপন (দোয়াত-কলম), স্বতন্ত্র প্রার্থী উশেপ্রু মারমা (টেলিফোন) ও চাইথোয়াই চৌধুরী (মোটরসাইকেল)।

পানছড়িতে আওয়ামী লীগের বকুল চন্দ্র চাকমা (ঘোড়া), বিএনপি সমর্থিত অনিমেষ চাকমা রিংকু (মোটরসাইকেল), আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহসভাপতি জিমি চাকমা (আনারস), ইউপিডিএফ সমর্থিত প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান সর্বোত্তম চাকমা (কাপ-পিরিচ)।

মাটিরাঙায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সামছুল হক (মোটরসাইকেল), উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. তাজুল ইসলাম (আনারস), জামায়াতের আলকাছ মিয়া (কাপ-পিরিচ) ও বিএনপি (সমীরণ দেওয়ান গ্রুপ) প্রার্থী আবুল কাশেম ভঁূইয়া (দোয়াত-কলম)।

মানিকছড়িতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মাগ্র্য মারমা (আনারস), উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক এনাম (দোয়াত-কলম) এবং বিএনপির বিদ্রোহী উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি এস এম রবিউল ফারুক (মোটরসাইকেল)।

মহালছড়ি উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী নীলোৎপল খীসা (মোটরসাইকেল), জেলা ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত সহসভাপতি ক্যজাই মারমা (আনারস), ইউপিডিএফ সমর্থিত বর্তমান চেয়ারম্যান সোনারতন চাকমা (দোয়াত-কলম)ও জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) গ্রুপের প্রার্থী বিমল কান্তি চাকমা (কাপ-পিরিচ)।

ভাইস চেয়ারম্যানরা হলেন

মানিকছড়িতে মো. জাকির হোসাইন সিরাজ (তালা), জামাল উদ্দিন (উড়োজাহাজ), তাজুল ইসলাম বাবুল (টিউবওয়েল) এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌস বেগম (পদ্মফুল), রাহেলা আক্তার (ফুটবল) ও শাহিনা আক্তার (কলস)।

রামগড়ে আব্দুল কাদের (টিয়াপাখি), আনোয়ারুল আজিম চৌধুরী (চশমা), মংসপ্রু কার্বারী (বই), মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আকলিমা সুলতানা (হাঁস), খাদিজা আক্তার (কলস), ঝর্না বেগম (প্রজাপতি) ও নাজমা বেগম (ফুটবল)।

পানছড়িতে রুমেল মারমা (টিয়াপাখি), লোকমান হোসেন (চশমা), নন্দ দুলাল চাকমা (মাইক), মতিলাল চাকমা (তালা), ভূমিধর রোয়াজা (টিউবওয়েল), সিন্দু কুমার চাকমা (বই) এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে অপরাজিতা চাকমা (পদ্মফুল), সখিনা বেগম (কলস), মনোয়ারা বেগম (ফুটবল) রৌশনারা বেগম (প্রজাপতি), রত্না তঞ্চঙ্গা (হাঁস)ও শুভ্রা চাকমা (তীরধনুক)।

মহালছড়িতে আব্দুল আজিজ (তালা), বিশ্বজিত চাকমা (চশমা), থুইহ্লাঅং মারমা (টিউবওয়েল), ক্যাচিং মিং চৌধুরী (উড়োজাহাজ) এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে কাকলী খীসা (প্রজাপতি), জাহানারা বেগম (সেলাই মেশিন), ভূমিকা ত্রিপুরা (ফুটবল), হাসিনা বেগম (কলস), সুইনুচিং চৌধুরী (পদ্মফুল) ও স্বপ্না চাকমা (হাঁস)ূ।

মাটিারাঙায় দেলোয়ার হোসেন (চশমা), রফিকুল ইসলাম (মাইক), আমান উদ্দিন (টিয়াপাখি) ও হেমেন্দ্র ত্রিপুরা (টিউবওয়েল) এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোয়ারা বেগম (হাঁস), হাসিনা বেগম (কলস), হোসনে আরা বেগম (পদ্মফুল)।

খাগড়াছড়ি সদর উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে তরুণ আলো চাকমা (বই), সাহাবুদ্দিন সরকার (উড়োজাহাজ), নিরাপদ তালুকদার (চশমা), সুলতান উদ্দিন খান (তালা) ও রণিক ত্রিপুর (টিউবওয়েল), সিংহ বিজয় চাকমা (টিয়াপাখি) এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আরনা চাকমা (কলস), বাঁসুরী মারমা (ফুটবল) ও বিউটি রাণী ত্রিপুরা (পদ্মফুল)।

‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী যারা
মানিকছড়িতে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক এনাম। দলীয় সমর্থন না পাওয়া বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি এস এম রবিউল ফারুক। মাটিরাঙা ও রামগড়ে জেলা বিএনপির আরেক অংশের প্রার্থীও রয়েছেন। রামগড়ে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সম্পাদক শহীদুল ইসলাম ফরহাদ। বিএনপি (সমীরণ দেওয়ান গ্রুপ) এর প্রার্থী রিয়াজ উদ্দিন রিপন। একই উপজেলায় বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি বেলায়েত হোসেন ভূঁইয়া নাগরিক কমিটির প্রার্থী হয়েছেন। মাটিরাঙায় বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী তাজুল ইসলাম তাজু। এছাড়া বিএনপির সমীরণ দেওয়ান গ্রুপের প্রার্থী হয়েছেন আবুল কাশেম।

অন্যদিকে রামগড়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাবেক সংসদ সদস্য আলিম উল্লাহ। বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন কাজী মো. সেলিম। পানছড়িতে দলীয় প্রার্থী হয়েছেন প্রবীণ নেতা বকুল চন্দ্র চাকমা। বিদ্রোহী প্রার্থী জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি জিমি চাকমা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

অর্থাভাবে বেতন হচ্ছে না বেসরকারি বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের

মহামারী নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রায় দেড় বছর ধরে বন্ধ রয়েছে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। বন্ধ রয়েছে …

Leave a Reply