নীড় পাতা » পার্বত্য পুরাণ » বিদায় বৃক্ষ মানব

বিদায় বৃক্ষ মানব

আমাদের একটা পাহাড় ছিলো
পাহাড়ের পায়ের কাছে গহন অরন্য
রুক্ষ কঠিন পাহাড়ের চুড়ায় আকাশ, নীচে বিপুলা পৃথিবী
তুমি দশদিক উদ্দেশ্য করে বলেছিলে তোমার কোন অহংকার নেই
পাখির মতো বলেছিলে অজস্র তারার ধুলি ধুয়ে যাবে শিশিরের জলে
দুরত্বের তটরেখা ঘুচে যাবে একদিন ব্যাপ্ত জাগরণে
এবং অরণ্য মর্মরে স্বপ্নের ছায়ায় মানুষ মিলবে মানুষের সাথে।

যখন চতুর্দিকে বিভেদ-ফ্যাসাদ, প্রবঞ্চনা, জোচ্চুরী, সন্ত্রাস
সুরুচি ও সংস্কৃতির অশালীন বহ্নোৎসব
তখনও তুমি ছিলে সত্য-সুন্দর-কল্যাণের ধ্যানে
কিন্নরের মতো কন্ঠে সেধেছো আবাহনী গান
নিভৃতে নির্মাণ করেছো আমাদের অমল ধবল স্বপ্ন
আমাদের প্রার্থনার শস্যবীজ জল ও মাটীতে পুষ্ট হয়
তুমি তার গভীর ফসল হয়ে বাতাসে দোলাও শীষ
তুমি বলতে একদিন শুদ্ধ হবে দৃষ্টি মনিষার বৃষ্টিপাতে
এবং পৃথিবী আমাদের হবে আমরা পৃথিবীর।

তুমি মৃত্যুকে অতিক্রম করতে চেয়েছিলে প্রচন্ড ভালোবাসায়
উচ্চ কন্ঠে গেয়েছিলে জীবনের গান
তবুও স্তব্দতাকে আরাধ্য করলে তুমি,
তোমার কোমল কন্ঠের প্রগাঢ় স্বর
আর কখনও যাবেনা শোনা
তবু জীবন ও সত্যের টলটলে পানিতে একটি নীলিমা ছোঁয়া
মৃণালের শীর্ষে তুমি ফুটে আছো এক বিশুদ্ধ পদ্ম
পবিত্র অজর।

এক একটি জন্মের সমান মেধাবী মৃত্যু
এক একটি প্রতিজ্ঞা পুষ্ট মৃত্যুর সোপান
দূর্যোগ অন্ধকারে তুলে রাখে সুর্যময় হাত
তুমুল তিমিরে শুরু হয় আমাদের পথচলা ।
শ্মশান পারেনি বন্ধু পোড়াতে তোমাকে
তবু এক ভয়ঙ্কর দাউ দাউ চিতা
বুকের ভেতর বয়ে নিয়ে গেছো বিদায়ের অতল অমায়
নিরবে নিভৃতে সাধকের মতো অপার ক্ষমায়
শৈলেন, বন্ধু আমার তুমি আমাদের ভালোবাসার রক্তকরবী বৃক্ষ।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জেসমিন সুরভী’র কবিতা স্বপ্নের ফেরিওয়ালা

অচেনা ফেরিওয়ালা হরেক রঙের স্বপ্ন ফেরি করে হাঁটছে এ গ্রাম থেকে সে গ্রাম, ইটের শহর …

Leave a Reply