নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » বিজিবি’র বিরুদ্ধে মামলা নিল পুলিশ

মাটিরাঙ্গায় বিজিবি-গ্রামবাসী সংঘর্ষ

বিজিবি’র বিরুদ্ধে মামলা নিল পুলিশ

পাল্টাপাল্টি অভিযোগর পর একই পরিবারের তিনজনসহ চার গ্রামবাসীকে হত্যার অভিযোগে বিজিবির বিরুদ্ধে মামলা নিল মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশ। গ্রামবাসীর মামলা গ্রহণ নিয়ে নানা ধরনের টানাপোড়েনের পর শুক্রবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে একই পরিবারের তিনজনসহ চার গ্রামবাসীকে হত্যার অভিযোগে ৪০ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের (বিজিবি) হাবিলদার মো. ইসহাক আলীসহ ৬ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেন বিজিবির গুলিতে নিহত মো. মফিজ মিয়ার ছেলে মো. মানিক মিয়া।

মামলা গ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মাটিরাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শামসুদ্দিন ভুইয়া। ওসি বলেন, মৃত মফিজ মিয়ার ছেলে মো. মানিক মিয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে এ বিষয়ে একটি নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে। তদন্ত করে এ বিষয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। মাটিরাঙ্গা থানার মামলা নং-৩।

মামলার এজাহারে ঘটনার দিন গত মঙ্গলবার দুপুরের দিকে মো. মফিজ মিয়াসহ অপরাপর ব্যক্তিদের মারধর, জখম ও সামনে থেকে গুলি করে হত্যার অভিযোগ আনা হয় বিজিবির হাবিলদার মো. ইসহাক আলীসহ অপরাপর অভিযুক্ত বিজিবি সদস্যদের বিরুদ্ধে। সাধারণ মানুষকে গুলি করার সময় বাঁধা দেয়ায় বিজিবি সদস্য শাওন খানকে গুলি করে হত্যারও অভিযোগ আনা হয় বিজিবি হাবিলদার মো. ইসহাক আলীর বিরুদ্ধে।

এর আগে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে বিজিবির গুলিতে নিহত মো. মফিজ মিয়ার ছেলে মো. মানিক মিয়া বাদী হয়ে ৪০ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের (বিজিবি) হাবিলদার মো. ইসহাক মিয়াসহ বিজিবির সদস্যদের বিরুদ্ধে মামলা করতে গেলেও মামলা নেয়নি মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশ। পুলিশ মামলা গ্রহণ না করায় বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে সাধারণ মানুষ।

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার জনৈক চান মিয়ার বাগানের চার টুকরা কাঠাল গাছ পরিবহনকালে মাটিরাঙ্গার গাজিনগরে বিজিবি বাঁধা প্রদান করে। একসময় গাছগুলো বিজিবি নিজেদের ক্যাম্পে নিয়ে যেতে চাইলে উভয়ের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ ঘটে। এতে এক বিজিবির এক সিপাহীসহ পাঁচজন নিহত হন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

৪ দ্বৈত ভোটারের বিরুদ্ধে রাঙামাটিতে ইসি’র মামলা

নির্বাচন কমিশনের আইনের তোয়াক্কা না করে দ্বৈত ভোটার হওয়ার অপরাধে রাঙামাটিতে চারজনের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা …

Leave a Reply