নীড় পাতা » ব্রেকিং » বিএনপিতে যোগ দিলেন বাঘাইছড়ির মেয়র আলমগীর কবির

বিএনপিতে যোগ দিলেন বাঘাইছড়ির মেয়র আলমগীর কবির

Alamgir-Kabirনানা নাটকীয়তার পর বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপিতে যোগ দিয়েছেন বাঘাইছড়ি পৌরসভার মেয়র আলমগীর কবির। শনিবার বেগম খালেদা জিয়ার হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে বিএনপিতে যোগ দেন তিনি। এসময় তার সাথে রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র সাইফুল ইসলাম ভূট্টো উপস্থিত ছিলেন।

বিএনপিতে যোগ দেয়ার সংবাদটি নিশ্চিত করে বাঘাইছড়ি পৌরসভার মেয়র আলমগীর কবির পাহাড়টোয়েন্টিফোর ডট কম’কে বলেন,শহীদ জিয়ার আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়েই তিনি বিএনপিতে যোগদান করেছেন। দীর্ঘদিন থেকেই বিএনপির সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলা আলমগীর বেগম জিয়ার হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে সরাসরি যোগ দেয়ার সুযোগের অপেক্ষায় ছিলেন। বিভিন্ন সময় যোগদানের তারিখ ঠিক হলে তিনি একাধিকবার ঢাকায়ও যান, কিন্তু দলীয় নেত্রীর নানান ব্যস্ততায় সুযোগ মিলছিলোনা তার। অবশেষে শনিবার বিএনপি চেয়ারপার্সনের হাত থেকে ফুলের তোড়া নিয়েই যোগ দিলেন তিনি ।

প্রসঙ্গত, রাঙামাটির দ্বিতীয় পৌরসভা বাঘাইছড়ি পৌরসভার প্রথম নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বিজয়ী হওয়া আলমগীর কবির পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি এবং একসময় জামাতে ইসলামীর রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। কিন্তু মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে বিএনপির ভূট্টো গ্রুপের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক বজায় রেখে চলেন। তবে সর্বশেষ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির প্রার্থী বড়ঋষি চাকমার পক্ষে প্রকাশ্যেই কার্যক্রম চালান এবং জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় সহসভাপতি উষাতন তালুকদার স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে তাকে বাঘাইছড়িতে যে সংবর্ধনা দেয়া হয় তাতে আলমগীর কবিরের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিলো। বর্তমানে বিএনপিতে যোগদানের মাধ্যমে নিজের নতুন রাজনৈতিক জীবন শুরু করলেন তরুন এই জনপ্রতিনিধি।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কারাতে ফেডারেশনের ব্ল্যাক বেল্ট প্রাপ্তদের সংবর্ধনা

বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশন হতে ২০২১ সালে ব্ল্যাক বেল্ট বিজয়ী রাঙামাটির কারাতে খেলোয়াড়দের সংবধর্না দিয়েছে রাঙামাটি …

৫ comments

  1. সাংবদটি পড়ে আমার মনে হলো তিনি একজন ডিকবাজ নেতা, এখন ওনার আওয়ামীগে যোগদান বাকী যেহেতু ওনি সব দলের সাথে যোগসাযোশ রেখেছে, সেহেতু আমি এই আশা করতেই পারি এবং দেখার বিষয় ওনি কতদিনের জন্য বিএনপি যোগদান করেছেন। এইসব ডিগবাজ নেতাদের কোন দলেই নেয়া উচিত না।

  2. শয়তান তার নিজ কর্ম করবে দুঃখ বা খুশি হওয়ার কিছু নেই। ওরতো বাঙ্গালীর ব্যানার বেচে খাওয়া শেষ এ দালালি করে খাওয়া ছারা উপায় নাই।

  3. আপসোছ এরকম বহু শেয়াল কুত্তা বাঙ্গালির ব্যানার দিয়ে অজাত থেকে জাতে উঠেছে, এসব দালালদের জন্য বাঙ্গালি আন্দোলন সাধারন মানুষ বিশ্বাস করে না ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: