নীড় পাতা » পাহাড়ে নির্বাচনের হাওয়া » বিএনপিতে প্রাণচাঞ্চল্য

একাদশ জাতীয় নির্বাচন

বিএনপিতে প্রাণচাঞ্চল্য

আসন্ন সংসদ নির্বাচনে রাঙামাটি ২৯৯নং আসনে বিএনপি ধানের শীষের প্রার্থী কে হচ্ছেন এ নিয়ে নানান কল্পনা-জল্পনা ও তর্ক-বিতর্ক শেষে যখনই চূড়ান্ত প্রার্থীর নামের তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে তার পর থেকে রাঙামাটি জেলা বিএনপির অফিস আরো বেশি চাঙ্গা হয়ে উঠেছে।

অভিমানী ও দল ত্যাগী অনেক নেতারাই ফিরে আসছেন নিজ গৃহে এমনও মন্তব্য শোনা গেছে অনেক নেতাকর্মীর মুখে। শনিবার সন্ধ্যার দিকে শহরের কাঠালতলীস্থ বিএনপি দলীয় কার্যালয়ে গিয়ে দেখা যায় বিভিন্ন তৃণমূল পর্যায় থেকে নেতাকর্মীদের পদচারণা এবং নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নানান দাপ্তরিক কর্মকান্ড ও কর্মপরিকল্পনা নিয়ে ব্যস্ত দেখা গিয়েছে বিএনপি নেতাকর্মীদেরকে।

এছাড়া দেখা গেছে বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময়। শুধু তাই নয় বিএনপি দলীয় কার্যালয়ের সামনে দল বেঁধে অনেকে নির্বাচনী নানান হিসেব করতে দেখা যায়। উপজেলা থেকে শুরু করে প্রতিটি ভোট কেন্দ্র পর্যন্ত ভোটের হালচাল নিয়ে আলোচনা করতে থাকে বিএনপির এ নেতাকর্মীরা।

একদিকে ভোটের আমেজ অন্যদিকে শীতল ঠান্ডা আবহাওয়া, এসময় চা হবে না তা তো হতে পারে না! তাই বিএনপি দলীয় কার্যালয়ের পাশের অবস্থিত চায়ের দোকানে বিএনপির নেতাকর্মীদের উপছে পড়া ভিড়। চায়ের চুমুকে চলছে ভোটের আলাপ আর নির্বাচনী প্রচারণার কাজের দায়িত্ব বন্টন। ধানের শীষ মার্কার জয় নিশ্চিত করতে যেনো মরিয়ারা সকলে।

রাঙামাটি শহর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল মোস্তফা বলেন, কে প্রার্থী এটা বড় বিষয় নয়। ধানের শীষ মার্কাকে জয় করতে হবে। তাই তৃণমূল নেতাকর্মীদের পদচারণায় আরো মুখর হয়ে উঠেছে বিএনপির দলীয় কার্যালয়। এটা আমাদের জন্য আনন্দের। এসব দেখে নিজেদেরকে সুশৃঙ্খলবদ্ধ, শক্তিশালী ও ঐক্যবদ্ধ যেমনটি ছিলাম তার থেকে আরো বেশি ভালো মনে হচ্ছে।

জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ফারুক আহমেদ সাব্বির বলেন, বিএনপি গণমানুষের দল। আমাদের সারা দেশে অনেক নেতাকর্মীরা এখনো জেলে বন্দী এবং মিথ্যা মামলার কারণে অনেকে এখনো পালিয়ে বেড়াচ্ছে। তবুও নির্বাচনকে ঘিরে রাঙামাটি জেলা বিএনপি চাঙ্গা অবস্থান রয়েছে। আওয়ামীলীগ অফিস থেকেও বিএনপি অফিস অনেক চাঙ্গা বলেও জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, নির্বাচনকে ঘিরে ছাত্রদল আগে যেমন শক্তিশালী ছিলো এখন আরো বেশি শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে। কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের নির্দেশ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ ও গণনা যেনো সুষ্ঠুভাবে হয় সে জন্য ভোট কেন্দ্র ছাত্রদল পাহারা দিবে, সে লক্ষ্যে আমরা প্রস্তুত হচ্ছি।

জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম তালুকদার বলেন, আমাদের অফিস সব সময় চাঙ্গা ছিলো। বিভিন্ন কর্মসূচি আমরা একসাথে পালন করেছি। এখনো চাঙ্গা অবস্থানে আছি। স্বেচ্ছাসেবক দল নির্বাচনী ভোটের মাঠে বিএনপি প্রার্থীর জয় নিশ্চিত করতে কাজ করে যাবে।

জেলা বিএনপির সহ দপ্তর সম্পাদক নাছির খাঁন বলেন, আওয়ামী লীগের নানান ষড়যন্ত্র, মামলা, হামলার কারণে অনেক নেতাকর্মী দীর্ঘদিন দলীয় অফিসে আসতে পারেনি। তারা এখন অফিসে ভীড় করছে। এছাড়া বিভিন্ন স্তরের সাধারণ জনগণও আসছে। সব মিলিয়ে চাঙ্গা অবস্থানে রয়েছে জেলা বিএনপি।

রাঙামাটি জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক ও দাপ্তরিক কমিটির আহ্বায়ক আব্দুল কুদ্দুস বলেন, বিএনপির যত কমসূচি ছিলো তা আমরা পালন করেছি। আমরা এখনো সুশৃঙ্খল অবস্থানে রয়েছি। হারানো গৌরব ফিরিয়ে আনতে আমরা সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যাচ্ছি।

রাঙামাটি জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম পনির বলেন, প্রার্থী কে এটা বড় নয়। আমিও তো প্রার্থীর জন্য আবেদন করেছিলাম। দল জানে কাকে মনোনয়ন দিলে আমরা হারানো গৌরব ফিরে পাবো। দল যাকে মনোনয়ন দিয়েছে তার জন্য কাজ করাই আমাদের দায়িত্ব। তাই বিভিন্ন তৃণমূল থেকে বিএনপি নেতাকর্মীরা অফিসে আসলে এবং পুরো অফিস জুড়ে অন্য ধরনের আমেজ সৃষ্টি হয়েছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রামগড়ে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি

খাগড়াছড়ির রামগড়ে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে। চুরি, ডাকাতি, ধর্ষণসহ নানা অপকর্মে লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। …

Leave a Reply