নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » বান্দরবান-চট্টগ্রাম সড়কে আবারো আগ্রাসি জামাত

বান্দরবান-চট্টগ্রাম সড়কে আবারো আগ্রাসি জামাত

Bandarban-Jamat-Pic_1বান্দরবান-চট্টগ্রামের হলুদিয়া,বাজালিয়া এলাকায় ৫টি যানবাহন ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করেছে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। এসময় জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা প্রধান সড়কে প্রকাশ্যে লাঠি-সোঠা এবং দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মিছিল করেছে। বৃহস্পতিবার বিকালে জামায়াত নেতা কাদের মোল্লার রিভিউ শুনানীর রায়ের পর বান্দরবানের হলুদিয়া থেকে বান্দরবান-চট্টগ্রাম মহাসড়কের প্রায় ৭ কিলোমিটার এলাকায় বড় বড় গাছের গুড়ি ফেলে,সড়কের পাশের গাছ কেটে এবং টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে রেখেছে জামায়াত-শিবিরের লোকজনরা। মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দিয়ে লাঠি-সুটা এবং দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে রাস্তায় মিছিল করেছে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। এসময় তারা ৩টি মটর সাইকেলসহ ৫টি যানবাহন ভাংচুর এবং অগ্নিসংযোগ করেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছালে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা পুলিশ ধাওয়া করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে।

বান্দরবান-চট্টগ্রাম প্রধান সড়ক পুরোটাই দখল করে লাঠি-সোঠা নিয়ে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের মহড়া দিতে দেখাগেছে। বান্দরবান-চট্টগ্রাম সড়কে সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

সাতকানিয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ জানান, জামায়াত-শিবিরের ধংসাস্তুপ কর্মকান্ডের খবর পেয়েছি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের চেষ্ঠা চলছে।

বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ আহম্মেদ জানান, বান্দরবান-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ঝামেলা হচ্ছে। কিন্তু জেলার অভ্যন্তরে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। অপ্রীতকর ঘটনা এড়াতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন হয়েছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

লামায় জেলা পরিষদ নির্মাণাধীন সেতু ধসের শঙ্কা

বান্দরবানের লামা উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি এলাকা বড়পাড়া সংলগ্ন ইয়াংছা খালের ওপর কোটি টাকা …

Leave a Reply