নীড় পাতা » বান্দরবান » বান্দরবানে সাংবাদিকদের মানববন্ধন

বান্দরবানে সাংবাদিকদের মানববন্ধন

Bandarban-Journalist-Pic-02বান্দরবানের সাংবাদিক জহির রায়হানের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে স্থানীয় সাংবাদিকরা। বুধবার সকালে বান্দরবান প্রেসক্লাবের সামনে এই কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচীতে বান্দরবানে কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজন অংশ নেয়। পরে বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে পুলিশের রীরব ভূমিকায় ক্ষুব্ধ হয়ে বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা (ওসি) ইমতিয়াজ আহম্মেদ এর অপসারণ দাবি করেন স্থানীয় সাংবাদিকরা।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বান্দরবান প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যাপক মো: ওসমান গনি, সাধারণ সম্পাদক মিনারুল হক, সাংবাদিক এনামুল হক কাসেমী, সেলিম আহমদ চৌধুরী, সঞ্জয় বড়ুয়া, চবাথুই মারমা, মোজাম্মেলক হক লিটন’সহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার গনমাধ্যমকর্মীরা।

প্রেসক্লাব সভাপতি অধ্যাপক মো: ওসমান গনি বলেন, পুলিশের প্রশাসনের নাকের ডগায় সাংবাদিকের উপর হামলাকারী সন্ত্রাসীরা ঘোরাফেরা করছেন। কিন্তু পুলিশ গ্রেফতার করছেন না। পুলিশের অসহায়ত্ব দেখে লজ্জা পাচ্ছে জনগন। দেশে আইনের শাসন প্রশ্ন তুলছে সাধারণ মানুষ। সাংবাদিকরা যদি বিচার না পাই তাহলে দেশের সাধারণ জনগনের নিরাপত্তা কোথায়। হামলাকারীদের গ্রেফতার করে পুলিশ এবং স্থানীয় প্রশাসন’কে দায়িত্বশীল আচরণের প্রমাণ দেয়ার আহবান জানান তিনি।

প্রেসক্লাব সেক্রেটারী মিনারুল হক বলেন, সাংবাদিকদের উপর কারা হামলা চালিয়েছে পুলিশ এবং প্রশাসনের সকলেই জানেন। কিন্তু ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছেনা। এটি ক্ষমতাসীন দলের ভাবমূর্তি ও সম্প্রীতির জেলা হিসেবে পরিচিত বান্দরবানের সুনাম চরমভাবে ক্ষুন্ন করছে। ওসি নানা অজুহাতে হামলাকারীদের গ্রেফতার করছেন না বলে অভিযোগ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত ৬ ডিসেম্বর বৈশাখী টিভি’র সাংবাদিক জহির রায়হানের ওপর জেলা শহরের স্টেডিয়াম এলাকায় হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। হামলার পাঁচদিন পর সাংবাদিক জহিরের স্বীকারোক্তি মোতাবেক ৮ জন’কে অভিযুক্ত করে পুলিশ থানায় মামলা নিলেও এখনো পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বান্দরবানে করোনায় টমটম চালকের মৃত্যু

বান্দরবানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মো. হাসান নামে একজন বেটারিচালিত টমটম গাড়ি চালকের মৃত্যু হয়েছে। এ …

Leave a Reply