নীড় পাতা » ব্রেকিং » ‘বাংলাদেশে সংখ্যালঘু বলতে কোন কিছু নেই’

‘বাংলাদেশে সংখ্যালঘু বলতে কোন কিছু নেই’

‘বাংলাদেশে সংখ্যালঘু বলতে কোন কিছু নেই, আমাদেরও ধর্ম আছে, ভাষা আছে, সংস্কৃতি আছে অন্য সকল মানুষের মতো সকল কাজে সমান সুযোগ পাওয়ার অধিকার আছে। সকলের সমান অধিকার বর্তমান সরকার নিশ্চিত করেছে এবং তার জন্য অবিরাম কাজ করে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেন খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।
সোমবার সন্ধ্যায় রাঙামাটির রিজার্ভ বাজারস্থ গীতাশ্রম মন্দিরের সুবর্ণ জয়ন্তী ও শারদীয়া দুর্গোৎসবের ১২দিনব্যাপী আয়োজনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন।
এসময় তিনি আরো বলেন, মা দূর্গা অসুর দমন করেছেন, এই ধরনের পূজা অনুষ্ঠান আয়োজনে অংশ গ্রহন করার মধ্য দিয়ে যে কেউ নিজেকে জাগ্রত করতে পারে। আর নিজেকে জাগ্রত করতে পারলে নিজের মধ্যে থাকা আসুরীক শক্তি ত্যাগ করা সম্ভব। যার ফলে সমাজে শান্তি ফিরে আসবে।
গীতাশ্রম মন্দিরের সুবর্ণ জয়ন্তী ও শারদীয়া দুর্গোৎসব উদযাপন কমিটির সভাপতি সুমন নন্দীর সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন পার্বত্য চট্রগ্রাম উন্নায়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান তরুন কান্তি ঘোষ, সনাতন সমাজ কল্যান পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক সজল বরন সেন, রাঙামাটি জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অমর কুমার দে, খাগড়াছড়ি জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক তরুন কুমার ভট্টাচার্য, খাগড়াছড়ি লক্ষী নারায়ন মন্দিরের সহ-সভাপতি আশীষ ভট্টাচার্য, সংবাদ প্রতিদিনের খাগড়াছড়ি জেলা প্রতিনিধি লিটন ভট্টাচার্য, গীতাশ্রম মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি নিখিল কুমার দে, সহ-সাধারন সম্পাদক রাজু প্রসাদ দে।
মিশু মল্লিকের পরিচালনায় স্বাগত এতে বক্তব্য রাখেন গীতাশ্রম মন্দির সুবর্ণ জয়ন্তী ও শারদীয়া দুর্গোৎসব উদযাপন কমিটির সাধারন সম্পাদক শংকর হোড়।
অনুষ্ঠানের শুরুতে মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জলনের মধ্য দিয়ে ১২দিনব্যাপী গীতাশ্রম মন্দিরের সুবর্ণ জয়ন্তী ও শারদীয়া দুর্গোৎসব অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা।
আলোচনা সভা শেষে মনোঞ্জ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়। এর আগে সকালে চন্ডী পাঠের মধ্য দিয়ে মাকে আবাহন করা হয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধীতার প্রতিবাদ রাঙামাটিতে

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধীতার নামে ‘উগ্রমৌলবাদ ও ধর্মান্ধগোষ্ঠীর জনমনে বিভ্রান্তির …

One comment

  1. কথাটি আসলেই সত্য ।কারণ আমরা এখন পুর্ণ জাতিতে পরিনত হচ্ছি ।কেন না আমাদেরকে সবাই পাহাড়ি জাতি হিসেবে চিনে ।উপজাতি থেকে এখন পাহাড়ি জাতি ।

Leave a Reply

%d bloggers like this: