নীড় পাতা » পৌরসভা নির্বাচন ২০১৫ » ‘বদ্দা, আস্তে হন, পৌরবাসী য়ুনিবু’

‘বদ্দা, আস্তে হন, পৌরবাসী য়ুনিবু’

dipankarrrপৌর নির্বাচনে অনিয়ম ও জালভোট সম্পর্কে জনসংহতি সমিতির অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে রাঙামাটি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদার সংগঠনটির উদ্দেশ্যে বলেছেন ‘বদ্দা আস্তে হন, পৌরবাসী য়ুনিবু’ (ভাই, আস্তে বলেন, পৌরবাসী শুনবে)। আপনারা নিজেরা ভোট কেন্দ্র দখল করে, আমাদের উপর চাপিয়ে দিচ্ছেন। কিন্তু মানুষ তা বিশ্বাস করেনা।

‘জেএসএস রবিবার অবরোধ করে বলতে চেয়েছে, এখানে নাকি ভোট ডাকাতি হয়েছে। আমরা নাকি ভোট ডাকাতি করেছি। কিন্তু ভোটের হিসাব দেখলে বোঝা যায়, তারা আমাদের থেকে বিভিন্ন কেন্দ্রে এগিয়ে আছে। তারা ভিতরের কেন্দ্রগুলোতে আমাদেরকে কাজ করতে দেয়নি। তারা আমাদের এজেন্টদেরকে বের করে দিয়েছে। আমরা বেশি হলে ৫৬ শতাংশ বা এর চেয়ে কিছুটা বেশি পেয়ে জয়ী হয়েছি, কিন্তু যদি আমরা ভোট ডাকাতি করতাম তবে আমরা ৯০ শতাংশ ভোট বেশি পেতাম।’dipankar-03

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এর ৬৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে রাঙামাটি জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন জেলা রাঙামাটি আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার। সোমবার বিকালে শহরের পৌরসভা চত্ত্বরে এই আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সভায় রাঙামাটি জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল জব্বার সুজনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমার পরিচালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর, পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা।dipankar-04

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের সদস্য স্মৃতি বিকাশ চাকমা, নবনিবার্চিত পৌর মেয়র ও জেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ আকবর হোসেন চৌধুরী, জেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ কাজল, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম সাইদুল, জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক র”বেল চৌধুরী, সদর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি নজর”ল ইসলাম, কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি সুলতান মাহামুদ বাপ্পা, শহর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক অপু লেপচা।DSC_0095

দীপংকর তালুকদার বলেন- ‘গুম, হত্যা করে রাজনীতি হয় না। এটাকে রাজনীতি বলে না। অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করতে হবে, নয়তো এই অস্ত্র দিয়ে পার্বত্যবাসী সব সময় হামলার মুখোমুখি হবে। পার্বত্য এলাকার সমস্যা রাজনৈতিক সমস্যা তাই আওয়ামীলীগ সরকার এই সমস্যা রাজনীতি দিয়েই সমাধান করেছে। তারপরেও তারা পার্বত্য এলাকায় যে অবস্থা সৃষ্টি করছে তা ঠিক নয়। তারা উপজেলা নির্বাচন এবং সংসদ নিবার্চনে অস্ত্র দিয়ে দখল করেছে, কিন্তু আমরা পৌর নিবার্চনে একই কাজ করতে দেইনি। পৌর এলাকার মানুষ সচেতন বলে তারা আমাদের প্রার্থীকেই ভোট দিয়ে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করেছে।’

ছাত্রলীগের ঐতিহাসিক ভূমিকার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, যদি বাংলার ইতিহাস রচনা করতে হয়, তবে ছাত্রলীগের নাম ছাড়া এই ইতিহাস রচনা করা যাবে না। কারণ বাংলার প্রতিটি সংগ্রামে ছাত্রলীগের ভূমিকা ছিলো অতুলনীয়।’

দীপংকর তালুকদার আরো বলেন, বর্তমানে যে রাঙামাটির পৌর মেয়র হয়েছে সে ছাত্রলীগ এর নেতৃত্ব দিয়ে যুবলীগে এসেছে এবং বর্তমানে মেয়র হয়েছে। ঠিক তেমনি ভাবে ইউনিয়ন নিবার্চনেও দেখা হবে যে, প্রার্থী ছাত্রলীগ করেছে কি না। তবেই অনুমতি দেওয়া হবে নির্বাচন করতে।DSC_0349

তিনি ছাত্রলীগকে আদর্শের রাজনীতি করার আহবান জানিয়ে আরো বলেন, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ছাত্ররা করে না। ছাত্রদের কাজ হচ্ছে বই খাতা নিয়ে নিজের মেধাকে বিকাশিত করা। ঠিক তেমনি ছাত্রলীগের কাজ হচেছ সেইসব মেধাকে খুঁজে বের করে দেশের কল্যাণে কাজে লাগানো। ছাত্রলীগ টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসীকে সমর্থন করে না। তাই সকল ছাত্রদের প্রয়োজন, ছাত্রলীগের আদর্শের রাজনীতি করে নিজের জীবনকে সুন্দরভাবে গঠন করা।DSC_0145

এর আগে পার্বত্য জেলা পরিষদ থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে রাঙামাটির প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পৌর চত্ত্বর এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে ঢাকঢোল,ভুভজেলা বাজানোর পাশাপাশি ছিলো ব্যান্ডদলও। রাতে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে পৌর চত্বরে কনসার্টও করে ছাত্রলীগ।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জুরাছড়িতে গুলিতে নিহত কার্বারির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন

রাঙামাটির জুরাছড়ি উপজেলায় স্থানীয় এক কার্বারিকে (গ্রামপ্রধান) গুলি করে হত্যা করেছে অজ্ঞাত বন্দুকধারী সন্ত্রাসীরা। রোববার …

Leave a Reply