নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » ফের কুজেন্দ্র, সঙ্গি হলেন নির্মলেন্দু-দিদার

খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত

ফের কুজেন্দ্র, সঙ্গি হলেন নির্মলেন্দু-দিদার

কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপিকে সভাপতি, নির্মলেন্দু চৌধুরীকে সাধারণ সম্পাদক এবং দিদারুল আলমকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। রোববার বিকালে জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে কাউন্সিলরদের মতামত নিয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল উল আলম হানিফ এমপি এ কমিটি ঘোষণা দেন।

খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পার্বত্য চট্টগ্রাম শরণার্থী পুনর্বাসন বিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলে বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম, কেন্দ্রীয় উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, পার্বত্য বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং, কেন্দ্রীয় উপ-দপ্তর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল। প্রায় তিন বছর পর ২০১৫ সালের ৫ অক্টোবর কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরাকে সভাপতি ও জাহেদুল আলমকে সাধারণ সম্পাদক করে খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কার্যনির্বাহী কমিটির অনুমোদন পায়। কিন্তু নানা ইস্যুতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়।

এর প্রভাব পড়ে তৃণমূল পর্যন্ত। শুরু হয় আলাদা কর্মসূচি পালন, পাল্টা-পাল্টি হামলা-মামলা। এসব ঘটনায় দুই পক্ষের মধ্যে অন্তত তিন ডজন পাল্টা-পাল্টি মামলা হয়। এরই জের ধরে ২০১৫ সালে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহেদুল আলমকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকের দায়িত্ব দেওয়া হয় নির্মলেন্দু চৌধুরীকে। অবশেষে তিনি অনুষ্ঠিত এ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হোন এবং ফের সভাপতি হলেন সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান কুজেন্দ্রের

কভিড-১৯ মহামারী উত্তরণে পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে প্রাপ্ত প্রধানমন্ত্রীর ইফতার সামগ্রী বিতরণ করেছে খাগড়াছড়ি পার্বত্য …

Leave a Reply