নীড় পাতা » পৌরসভা নির্বাচন ২০১৫ » প্রার্থীর বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল

প্রার্থীর বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল

Bandarban-BNP-Jaru-PiC_2বান্দরবানে দলীয় মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ জাবেদ রেজার বিরুদ্ধে ঝাড়–-জুতা মিছিল করেছে বিএনপির একাংশের নেতাকর্মীরা। রোববার বিকালে জেলা বিএনপিসহ অঙ্গসংঠনের একাংশের নেতাকর্মীরা এ বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছেন।

ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী মোহাম্মদ জাবেদ রেজার পক্ষে কাজ না করার অভিযোগে জেলা বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান মিঠুন, ক্রীড়া সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমকে বহিস্কার এবং জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুছ ও পৌর বিএনপির সভাপতি নাছির উদ্দিন চৌধুরীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়ার প্রতিবাদে বিএনপির বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা জেলা শহরে ঝাড়–, জুতা নিয়ে বিএনপির মেয়র প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। পরে প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশে মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ জাবেদ রেজার কুশপুত্তলিকা দাহ করেন নেতাকর্মীরা।

পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে সদর উপজেলা আব্দুল কুদ্দুছ, জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাজী মহোতুল হোসেন যতœ, জেলা বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান মিঠুন, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম’সহ সংগঠনের নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন।

বিক্ষোভ সমাবেশে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুছ বলেন, জেলা বিএনপির সিদ্ধান্তকে পাশ কাটিয়ে অর্থের বিনিময়ে দুর্নীতিবাজ মোহাম্মদ জাবেদ রেজা ধানের শীষ প্রতীকের মনোনয়ন নিয়েছেন। বিএনপির লেবাসদারী আওয়ামীলীগের দালাল জাবেদ রেজাকে বিএনপির নেতাকর্মীরা মেনে নেয়নি। বিএনপির নেতাকর্মীরা জাবেদ রেজাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে ভোট প্রদানে বিরত থাকবেন। তিনি আরো বলেন, দুর্নীতিবাজ জাবেদ রেজার অবৈধ টাকার খেলা বন্ধ করতে বিএনপির নেতাকর্মীরা ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে প্রতিরোধ গড়ে তুলবে। বহিষ্কার আদেশ আমরা মানি না।

জেলা বিএনপির সিনিয়র নেতা আইনজীবি কাজী মহোতুল হোসেন যতœ বলেন, অতীতের সবকিছু ভুলে ধানের শীষের পক্ষে বিএনপির নেতাকর্মীরা ঐকবদ্ধভাবে মাঠে নেমেছিলেন। কিন্তু কথিত বিএনপি নেতাদের প্ররোচনায় জেলা বিএনপির দুই নেতাকে বহিষ্কার এবং দুজনকে কারণে দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে অন্যায়ভাবে। আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে বহিষ্কার আদেশ প্রত্যাহার করা না হলে আরো কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।

জেলা বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান মিঠুন বলেন, মেয়র নির্বাচিত হওয়ার আওয়ামীলীগের ইন্ধনে নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে বিএনপিকে দু’ভাগে বিভক্ত করে রেখেছিল জাবেদ রেজা। দ্বিতীয়বার মেয়র নির্বাচিত আওয়ামীলীগের পকেটে চলে যাবে বিএনপির রাজনীতি। বিএনপির সাইনবোর্ড ব্যবহার করে সম্পদের পাহাড় গড়েছে কথিত বিএনপি নেতা জাবেদ রেজা।

জেলা বিএনপির ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, জনগণের ভোটে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা রাস্তাঘাট আর জনগনের উন্নয়নে কাজ করে। কিন্তু দুর্নীতিবাজ মেয়র জাবেদ রেজা পাঁচবছর শুধু নিজের উন্নয়ন করেছেন। পৌরসভার নয়টি ওয়ার্ডেই জমির প্লট কিনেছেন। পাঁচ বছরে দুর্নীতিবাজ জাবেদ রেজার সম্পদ বেড়েছে পাঁচগুন। তিনি আরো বলেন, সরকার বিরোধী আন্দোলনে মেয়র জাবেদ রেজা’র মামলা-হামলার কারণে মাঠে নামতে পারেনি বিএনপি নেতাকর্মীরা। কিন্তু পৌরসভা নির্বাচনে জেলা বিএনপির সিদ্ধান্তকে পাশ কাটিয়ে অর্থের বিনিময়ে দুর্নীতিবাজকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। কিন্তু বিএনপির কথিত কেন্দ্রীয় নেতারা টাকার জন্য জাবেদ রেজার পক্ষে লোক দেখানো প্রচারণা চালিয়েছেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

স্বাস্থ্য বিভাগকে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো রাঙামাটি রেড ক্রিসেন্ট

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে রাঙামাটির ১২টি সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে স্বাস্থ্য …

Leave a Reply