নীড় পাতা » করোনাভাইরাস আপডেট » ‘প্রধানমন্ত্রীর উপহার’ নিয়ে হতদরিদ্রদের পাশে মাটিরাঙ্গা ইউএনও

‘প্রধানমন্ত্রীর উপহার’ নিয়ে হতদরিদ্রদের পাশে মাটিরাঙ্গা ইউএনও

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ ঠেকাতে সারাদেশে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী সাধারণ ছুটি জারি করেছে। এর ফলে বিপাকে পড়েছে মাটিরাঙ্গা উপজেলার কর্মহীন হয়ে পড়া শ্রমজীবী মানুষের ও সাধারণ হতদরিদ্র দিনমজুররা। কর্মহীন হয়ে পড়ায় দুবেলা দু’মুঠো ভাত জোগাড় কঠিন হয়ে পড়েছে তাদের। এদের কথা মাথায় রেখে সরকার প্রধান বিশেষ ত্রাণের ব্যবস্থা করেছেন।

তারই ধারাবাহিকতায় খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে ত্রান ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রনালয় হতে প্রাপ্ত খাদ্য জেলা প্রশাসকের নির্দেশে মাটিরাঙ্গা উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অস্বচ্ছল, দিনমজুর ও হতদরিদ্র পরিবারগুলোর মাঝে জনপ্রতি ১০ কেজি চাল, ডাল, সয়াবিন তেল, সাবান, লবণ,নগদ অর্থসহ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র পৌঁছে দিচ্ছে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) বিভীষণ কান্তি দাশ ।

প্রতিদিনি সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত মাটিরাঙ্গা উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের কর্মহীন হয়ে পড়া, অস্বচ্ছল ও হতদ্ররিদ্র পরিবারগুলোর মাঝে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বিতরণ করেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাজ কুমার শীল, মাটিরাঙ্গা উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা শেখ মো: আশরাফ উদ্দিন, মাটিরাঙ্গা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এমএম জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ। এ সময় মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম ছাড়াও ইউপি সদস্য ও উপজেলা পরিষদের কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকেন।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. রফিকুল বলেন, সরকারের নির্দেশ আমাদের এ তৎপরতা অব্যাহত থাকবে। করোনার ভাইরাসের মহামারীতে মাটিরাঙ্গা উপজেলার নিঃস্ব মানুষগুলোর পাশে থাকব; করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধিদের সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারের আহ্বান জানিয়ে। তিনি সরকারি সহযোগিতার পাশাপাশি সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) বিভীষণ কান্তি দাশ জানিয়েছেন, ত্রাণ নয় ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার’ খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিতে হবে।  বারবার অনুরোধের পরেও কেউ ঘরে থাকছে না। মানুষকে ঘরে থাকার জন্যই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সকলের জন্য তার পক্ষ থেকে উপহার পাঠিয়েছেন। সরকারের নির্দেশে মানুষের নিরাপদ ও সুরক্ষার জন্য প্রশাসন সবসময় মাঠে আছে ও থাকবে।

ইউএনও বলেন, কাউকে প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাহিরে যাওয়ার দরকার নেই, যদি কারো বাসায় খাবার সংকট হয়, আমরা খবর পেলে নিজেরাই গিয়ে ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার’ খাদ্য সহায়তা পৌছে দিয়ে আসবো।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, করোনা সংকট প্রতিরোধে, জনসচেতনতা ও সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিতকরণে মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন নিবেদিতভাবে কাজ করছেন অসহায় মানুষগুলোর জন্য। চলমান সংকটে সাধারণ মানুষের কষ্ট লাঘব করতে ইতিমধ্যে খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে ত্রান ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রনালয় হতে প্রাপ্ত খাদ্য প্রাথমিকভাবে মাটিরাঙ্গা উপজেলার ১৩ হাজার দরিদ্র, অসহায় কর্মহীন পরিবারের মাঝে ১৩০ ট্রন খাদ্য সামগ্রী, নগদ অর্থ ৬ লাখ ২৫ হাজার টাকা ও শিশু খাদ্য বাবদ ২ লাখ টাকা বিতরণ করা হয়েছে।

আরও জানা গেছে, মাটিরাঙ্গায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সারাদেশে কার্যত লকডাউন চলমান অবস্থায় রয়েছে। আর এমন পরিস্থিতিতে বিপদে পড়েছে দরিদ্র, অসহায়, কর্মহীন মানুষগুলো ইউএনও’র মোবাইলে সহযোগিতা চেয়ে এসএমএস করেছেন। তাদেরকে মাটিরাঙ্গা ইউএনও বিভীষণ কান্তি দাশ নিজ উদ্যোগে ১২০টি পরিবারের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য সামগ্রী ও নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র পৌঁছে দিয়েছেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

খুলছে না রাঙামাটির পর্যটনকেন্দ্র, স্বাস্থ্যবিধি মেনে খুলছে হোটেল-মোটেল

কভিড-১৯ এর কারণে সারাদেশের মত রাঙামাটির পর্যটনকেন্দ্র ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। তবে সরকারের ঘোষিত …

Leave a Reply