নীড় পাতা » পৌরসভা নির্বাচন ২০১৫ » প্রতীক নিয়ে প্রচার ১৪ ডিসেম্বরের আগে নয়: ইসি

প্রতীক নিয়ে প্রচার ১৪ ডিসেম্বরের আগে নয়: ইসি

প্রতীক বরাদ্দ হওয়ার আগে দলীয় মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীরাও মার্কা নিয়ে প্রচার চালাতে পারবেন না। তবে বুধবার থেকে প্রতীক ছাড়া জনসংযোগে বাধা নেই বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।
টানা দুই দিন ধরে অস্পষ্টতার পর ইসি সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম বুধবার সাংবাদিকদের এ বিষয়টি স্পষ্ট করেন।

গত সোমবার নির্বাচন কমিশনার মো. শাহনেওয়াজ বলেছিলেন, আইন অনুযায়ী ৯ ডিসেম্বর থেকে প্রচার চালান যাবে; তবে কে কীভাবে করবে (প্রতীক নিয়ে) তা তাদের ‘নিজেদের বিষয়’।

ওই বক্তব্যের পর স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ও নির্দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থীরা বৈষম্যের শিকার হবেন বলে অভিযোগ ওঠে।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার কমিশনের বৈঠকে প্রচার চালানোর বিষয়ে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
নতুন সিদ্ধান্তের বিষয়ে ইসি সচিব বলেন, “সবার জন্য সমান সুযোগ দিতে, কারো প্রতি বৈষম্য না করতে ইসি সব বিষয় বিবেচনা করেছে। প্রতীক বরাদ্দের পর ১৪ ডিসেম্বর থেকে প্রচারণা করতে হবে- এটিই এখন সিদ্ধান্ত।”

তবে বুধবার থেকে প্রতীক ছাড়া পথসভা, ঘরোয়া সভা, জনসংযোগে বাধা নেই বলে জানিয়েছেন তিনি।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর ২৩৫ পৌরসভায় ভোটের দিন নির্ধারিত রয়েছে। নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী, ভোটের ২১ দিন আগে প্রচারণার কোনো সুযোগ নেই।

৩ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া শেষ করার পর বাছাই শেষ হয়েছে ৬ ডিসেম্বর। তবে এরই মধ্যে বাতিল হওয়া অনেক প্রার্থী আপিল করেছেন। এসব বিষয় নিষ্পত্তির পর প্রার্থিতা চূড়ান্ত হবে ১৩ ডিসেম্বর।

সচিব জানান, ১৩ ডিসেম্বর মনোনয়ন প্রত্যাহারের সময় শেষ হবে। প্রতীক বরাদ্দ হবে ১৪ ডিসেম্বর, ওই দিন থেকে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করতে পারবেন প্রতিদ্বন্দ্বীরা।

“দলীয় প্রার্থীরা প্রচারণার সময় বেশি পেলে বৈষম্য হবে, সেক্ষেত্রে প্রতীক নিয়ে প্রচারণার কোনো সুযোগ নেই। বরং ১৩ ডিসেম্বরের পরেই সবাই প্রচারণার সুযোগ পাবে।”

ইসির এ সিদ্ধান্ত না মানলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। (বিডিনিউজ)

Micro Web Technology

আরো দেখুন

স্বাস্থ্য বিভাগকে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো রাঙামাটি রেড ক্রিসেন্ট

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে রাঙামাটির ১২টি সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে স্বাস্থ্য …

Leave a Reply