নীড় পাতা » ব্রেকিং » প্রতারণা মামলায় দু’জনের কারাদন্ড

সেনা পরিচয়ে

প্রতারণা মামলায় দু’জনের কারাদন্ড

পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে ভূয়া পরিচয় ব্যবহারে করে প্রতারণার অপরাধে দুই আসামি কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। একইসাথে দুইজনকে অর্থদন্ডও প্রদান করা হয়। বুুধবার রাঙামাটি জুডিসিয়াল আদালতের চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এএনএম মোরশেদ খান এ আদেশ।

মামলার এজাহার ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০০৮ সালে রাঙামাটির বরকল উপজেলার ছোটহরিণা আমতলাপাড়া এলাকায় মামলার ১নং আসামি আব্দুল হালিম যাওয়া আসা শুরু করে। পরবর্তীতে ওই এলাকার লোকজনকে নিজেকে সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা পরিচয়ে মাথাপিছু ৫০ হাজার টাকা ও ২ বান্ডিল করে টিন অনুদান দেওয়ার কথা বলে অর্থ হাতিয়ে নেয়। এ কাজে সহযোগীতা করে মামলার ২নং আসামি মো. আলতাফ হোসেন। পরবর্তীতে অনুদানের টাকাগ্রহণ ফরমপূরণ বাবদ প্রতি পরিবার থেকে ৭০০/১০০০/১২০০ টাকা করে আনুমানিক ৫০ হাজার টাকা করে হাতিয়ে নেয়। মামলার বাদী মো. দুলালসহ স্থানীয়দের কয়েকধাপে রাঙামাটিতে অনুদানের টাকা ও টিন দেওয়ার কথা বলে আনায়। কিন্তু রাঙামাটি আসলে তারা কোনো অনুদান ছাড়াই পাঠিয়ে দেয়।

এজাহারে আরও জানা গেছে, ২০০৮ সালের ১৮ নভেম্বর মামলার বাদীসহ প্রতারণার স্বীকার ব্যক্তিরা আসামি আব্দুল হালিম ও মো. আলতাফ হোসেনের সাথে রাঙামাটি কোর্টবিল্ডিং এলাকায় শাপলা হোটেলে দেখা করে। এক পর্যায়ে আব্দুল হালিম ও মো. আলতাফ হোসেনের কথা সন্দেহজনক হলে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তাদের দুইজনকে শাপলা হোটেল থেকে আটক করে। আটককৃত অবস্থায় আসামি আব্দুল হালিম নিজেকে সেনাবাহিনীর অফিসার হিসেবে ভূয়া পরিচয় দেওয়ার কথা স্বীকার করে।

প্রায় ১১বছর আগে দায়ের করা প্রতারণা মামলার রায়ে মামলার ১নং আসামি মো. জাহিদ প্রকাশ আব্দুল হালিম ১৮৬০ সালের দন্ডবিধি ১৭০ ধারায় এক বছর সশ্রম কারাদন্ড ও ৫ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরও দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং ১৮৬০ সালের ৪১৯ ধারায় দুই বছর সশ্রম কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরও চার মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত হয়। মামলার ২নং আসামি মো. আলতাফ হোসেন ১৮৬০ সালের ৪১৯ ধারায় দুই বছর সশ্রম কারাদন্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে আরও চার মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত হয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

১০ দিনেও সন্ধান মেলেনি অপহৃত ইউপি সদস্যের

রাঙামাটির কাপ্তাইয়ের রাইখালী ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য মংচিং মারমাকে অপহরণের পর দশদিন অতিবাহিত হলেও এখনো …

Leave a Reply