পুলিশি বাধায় সংক্ষিপ্ত বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

Bandarban-BNP-Mabud-Grup-piপুলিশি বাধায় বান্দরবানে বিএনপি’র বিভক্ত কোন গ্রুপ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করতে পারিনি। তবে দু’গ্রুপ রাস্তায় অবস্থান নিয়ে পৃথকভাবে সংক্ষিপ্ত সভা করেছে।

মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় সাচিংপ্রু জেরী গ্রুপ ও আব্দুল মাবুদ গ্রুপ বান্দরবান জেলা বিএনপি’র চৌধুরী মার্কেটের দোতলায় অস্থায়ী কার্যালয়ে বিএনপি’র ৩৭ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনের কর্মসুচী ঘোষনা দেন। বিকেলে কার্যালয়ের সামনে সাচিংপ্রু জেরী সমর্থিত নেতাকর্মীরা জড় হতে থাকলে পুলিশ বিএনপি’র কার্যালয়ে প্রবেশে বাঁধা দেন। এতে পুলিশের সাথে নেতাকর্মীদের বাক বিতন্ডা হয়। পরে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সংক্ষিপ্ত সভায় জেলা বিএনপি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাজি মহতুল হোসেন যতœ বক্তব্য রেখে সভা শেষ করেন এবং মিছিল করেন। এতে নেতাদের মধ্যে জেলা বিএনপি’র যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, যুব বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান মিঠন, পৌর বিএনপি’র সভাপতি নাছির উদ্দিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামসহ বিভিন্ন অংগ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় এ্যাডভোকেট মহতুল হোসেন যতœ বলেন, বিএনপি’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করার নামে দলের বহিস্কৃতরা মিছিল সমাবেশ করলেও শান্তি ভঙ্গের অভিযোগে পুলিশ মুল শ্রেতধারার বিএনপি’র নেতাকর্মীদের দলীয় কার্যালয়ে প্রবেশে বাঁধা সৃষ্টি করেছে । পুলিশের এই বাধা অমানবিক ও অগণতান্ত্রিক আখ্যা দিয়ে তিনি বিএনপি’র কর্মসুচী পালনে পুলিশি বাধার তীব্র নিন্দা জানান।

এদিকে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপি’র আব্দুল মাবুদ গ্রুপ শহরে মিছিল করেছে এবং পৌর শপিং কমপ্লেক্স এর সামনে সংক্ষিপ্ত সভা করেন। এতে বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মাবুদ বক্তব্য রাখেন এবং পুলিশের নির্দেশে দ্রুত সভা শেষ করে দেন। এই গ্রুপে অন্যান্যের মধ্যে জেলা শ্রমিক দলের সহ সভাপতি নুরুল ইসলাম, জেলা বিএনপি’র প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জসিম উদ্দিন তুষার, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি সাবিকুর রহমান জুয়েল, বিএনপি নেতা মাসুম, চনুমং মারমাসহ অংগ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় আবুদল মাবুদ বলেন, বিএনপি’র আদর্শ বাস্তবায়নের জন্য লড়াকু সৈনিকেরা আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে যাবে। শেখ হাসিনার সরকারকে উৎখাত না করা পর্যন্ত তৃণমুল পর্যায়ে আন্দোলন চালিয়ে যাবার জন্য নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান। বিএনপি’র দলীয় কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কর্মসুচী পালন করতে না দেয়ায় পুলিশি বাঁধার তীব্র সমালোচনা করেন।

বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তদন্ত আমীর হোসেন জানান, বিএনপি’র দু’গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকায় জেলার শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার স্বার্থে দলীয় কার্যালয়ে সভা-সমাবেশ করতে দেয়া হয়নি। তিনি জানান, বিএনপি’র ২ গ্রুপ সংঘর্ষের প্রস্তুতি নিয়ে মাঠে নেমেছেন তাই মিছিল সমাবেশ করার বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। পুলিশ তৎপর থাকার কারণে কোন ধরনের বিশৃঙ্খল অবস্থার সৃষ্টি হয় নি।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কারাতে ফেডারেশনের ব্ল্যাক বেল্ট প্রাপ্তদের সংবর্ধনা

বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশন হতে ২০২১ সালে ব্ল্যাক বেল্ট বিজয়ী রাঙামাটির কারাতে খেলোয়াড়দের সংবধর্না দিয়েছে রাঙামাটি …

Leave a Reply