নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » পাহাড়ে ‘র‌্যাব’ মোতায়েন নিয়ে বিপরীত অবস্থান দুই পাহাড়ী ও বাঙালি সংগঠনের

পাহাড়ে ‘র‌্যাব’ মোতায়েন নিয়ে বিপরীত অবস্থান দুই পাহাড়ী ও বাঙালি সংগঠনের

Rab-COverপার্বত্য চট্টগ্রামে র‌্যাব মোতায়েনের সরকারী সিদ্ধান্তের পক্ষে বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে পাহাড়ী-বাঙালি সংগঠনগুলো। বুধবার খাগড়াছড়িতে তিন পাহাড়ী সংগঠনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এক মানববন্ধন থেকে র‌্যাব মোতায়েনের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবী জানানো হলেও অন্যদিকে এক বিবৃতিতে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ দ্রুত পাহাড়ে র‌্যাব মোতায়েন করার দাবী জানিয়েছেন।

বুধবার সকালে খাগড়াছড়িতে র‌্যাব মোতায়েনের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন। ‘আইন শৃংখলার নামে পাহাড়ে রাষ্ট্রীয় সংস্থার ক্রস ফায়ার-চাঁদাবাজি-অপহরণ-গ্রেফতার বাণিজ্য সম্প্রসারণের বিরুদ্ধে পাহাড়ি-বাঙালি এক হও’ শ্লোগানে বুধবার সকাল ১০টায় জেলা শহরের চেঙ্গী স্কোয়ারে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে খাগড়াছড়ির বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ শতাধিক নারী পুরুষ অংশগ্রহন করেন। মানববন্ধন চলাকালীন বক্তব্য রাখেন রাখেন ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)-এর খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা ইউনিটের সংগঠক চরণসিং তঞ্চঙ্গ্যা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অংগ্য মারমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা সভাপতি বিপুল চাকমা, জেলা শাখার দপ্তর সম্পাদক বিজয় চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি মিশুক চাকমা ও যুব ফোরামের খাগড়াছড়ি উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আলোবরন চাকমা প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, “পার্বত্য চট্টগ্রামের বিপুল সংখ্যক সেনা মোতায়েন থাকা সত্ত্বেও সরকার এই রাষ্ট্রীয় খুনী বাহিনীকে পার্বত্য চট্টগ্রামে মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পার্বত্য চট্টগ্রামে এই খুনী বাহিনীকে মোতায়েন করা হলে সমতলের ন্যায় এখানেও খুন-গুম-ক্রসফায়ার ও নিপীড়ন-নির্যাতনের মাত্রা আরো বহুগুণে বৃদ্ধি পাবে। তাই র‌্যাব মোতায়েনের সরকারী সিদ্ধান্ত পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগণের জন্য অশনি সংকেত হিসেবে দেখা দিয়েছে।”
বক্তারা আরো বলেন, “সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জে এক প্যানেল মেয়রসহ ৭ জনকে খুনের ঘটনায় র‌্যাব জড়িত রয়েছে। এছাড়া চট্টগ্রামে মাজার লুট থেকে শুরু করে প্রতিনিয়ত যে খুন, গুম, অপহরণ ও ক্রসফায়ারের নামে বিনা বিচারে মানুষ হত্যার ঘটনা ঘটছে এসবের সাথে র‌্যাব প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত রয়েছে।”
ঘন্টাব্যাপী চলা মানববন্ধনে বক্তারা আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে পাহাড়িদের ন্যায্য আন্দোলনকে বলপূর্বক দমনের লক্ষ্যে সরকার এখানে র‌্যাব মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সরকারের এই সিদ্ধান্ত পাহাড়ি জনগণ কিছুতেই মেনে নেবে না।
মানববন্ধন থেকে বক্তারা অবিলম্বে পার্বত্য চট্টগ্রামে র‌্যাব মোতায়েনের সরকারি সিদ্ধান্ত বাতিল, নারায়ণগঞ্জে ৭ খুনের ঘটনায় জড়িত র‌্যাব সদস্য ও কর্মকর্তার বিচার, পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারা দেশে খুন-গুম, ক্রস ফায়ারের নামে বিনা বিচারে মানুষ হত্যা ও নিপীড়ন-নির্যাতন বন্ধের দাবি জানিয়েছেন।
এদিকে পার্বত্য চট্টগ্রামে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার, পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত সকল সম্প্রদায়ের নিরাপত্তার স্বার্থে খাগড়াছড়ি জেলায় র‌্যাব ইউনিট স্থাপনের দাবী জানিয়েছে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ।
বুধবার পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা সভাপতি সাহাজল ইসলাম সজল ও সাধারন সম্পাদক এস.এম মাসুম রানা স্বাক্ষরিত এক যৌথ বিবৃতিতে এই দাবী জানানো হয়।
বিবৃতিতে বলা হয়, “পার্বত্যাঞ্চলে উপজাতীয় সশস্ত্র দলগুলি প্রতি নিয়ত পরিবহণ সেক্টর সহ সকল খাত থেকে অব্যাহত চাঁদাবাজি করে আসছে। গুম, অপহরণ, হত্যা, ধর্ষন সহ আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ভারী অস্ত্রের ব্যাবহার করে আসছে। অব্যাহত চাঁদাবাজির অর্থ দ্বারা সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা সহ দেশী-বিদেশী অস্ত্র সংগ্রহ করে সাধারন ঠিকাদার সহ পরিবহণ সেক্টরকে জিম্মি করে রেখেছে উপজাতীয় সশস্ত্র দল ইউপিডিএফ ও জেএসএস। এছাড়াও স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনও তাদের হাতে থাকা অবৈধ অস্ত্রগুলো চিরুনী অভিযান দিয়ে উদ্ধার করতে পারছে না।”
বিবৃতিতে আরো বলা হয়, সম্প্রতি সময়ে খাগড়াছড়ি জেলায় র‌্যাব ইউনিট স্থাপনে যখন সরকার আন্তরিক হয়েছে ঠিক এমন সময়ে এ দুটি সশস্ত্র দল তথা ইউপিডিএফ ও জেএসএস র‌্যাবের বিরুদ্ধে অপপ্রচার সহ পার্বত্য চট্টগ্রামে পোস্টার ছড়িয়ে যাচ্ছে। র‌্যাবের ইউনিট খাগড়াছড়িতে স্থাপন করা হলে অত্র জেলার সকল সম্প্রদায় নিরাপত্তায় বসবাস সহ নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে ব্যবসা বাণিজ্য পরিচালনা করতে পারবে।
বিবৃতিতে অবিলম্বে খাগড়াছড়িতে র‌্যাব ইউনিট স্থাপনে সরকারের নিকট জোর দাবী জানানো হয়। অন্যথায় কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলার হুশিঁয়ারী দেয়া হয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জনপ্রিয় হচ্ছে ‘তৈলাফাং’ ঝর্ণা

করোনার প্রভাবে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল খাগড়াছড়ির পর্যটন ও বিনোদনকেন্দ্র। তবে টানা বন্ধের পর এখন খুলেছে …

Leave a Reply