নীড় পাতা » পাহাড়ের অর্থনীতি » পাহাড়ে বাড়ছে চায়না-থ্রি লিচু চাষ

পাহাড়ে বাড়ছে চায়না-থ্রি লিচু চাষ

licchiiiপাহাড়ে লিচু চাষ করে বান্দরবানে স্বাবলম্বী হয়ে উঠেছে অনেকে। খেতে সুস্বাদু চায়না- থ্রি জাতের লিচু চাষ বাড়ছে এখানে। জেলায় এবারও চায়না থ্রি’সহ দেশীয় জাতের লিচু’র বাম্পার ফলনে হাসি ফুটেছে চাষীদের মুখে।
কৃষি বিভাগ জানায়, জেলার সাত উপজেলায় চলতি মৌসুমে নয়শ ৯৩ হেক্টর পাহাড়ি জমিতে চায়না থ্রি জাতের লিচুসহ বিভিন্ন জাতের লিচু চাষ হয়েছে। উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ৪ হাজার নয়শ মেট্টিকটন ধরা হলেও কয়েকগুন বেশি ভালো ফলন হয়েছে। পাহাড়ের মাটি ও পরিবেশ অনুকুলে থাকায় তিন পার্বত্য জেলার মধ্যে বান্দরবান জেলার এবারো সবচেয়ে বেশি লিচু চাষ হয়েছে। স্বল্প খরচে পরিচর্যার মাধ্যমে অধিক লাভজনক হওয়ায় এখানে চাইনা থ্রি জাতের লিচু চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছে স্থানীয় চাষীরা। পোকার আক্রমন কম এবং খেতে বেশ সুস্বাদু হওয়ায় চাইনা থ্রি জাতের লিচুর চাহিদাও রয়েছে প্রচুর।
পাহাড়ে উৎপাদিত লিচু জেলার চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় রপ্তানিও হচ্ছে। স্থানীয় বাজারগুলোতে চাইনা থ্রি জাতের লিচু বিক্রি হচ্ছে একশ আড়াইশ থেকে তিনশ টাকায়। স্থানীয় জাতের একশ লিচু বিক্রি করা হচ্ছে দুইশ থেকে আড়াই টাকায়। সে হিসাবে প্রতিটি লিচু বিক্রি হচ্ছে গড়ে দুই থেকে চার টাকায়। স্থানীয় হাট-বাজারগুলো বিভিন্ন জাতের লিচ’ুতে ভরপুর হয়ে গেছে। প্রতিদিনই বান্দরবানের মেঘলা, শৈলপ্রাপাত, মিলনছড়ি, গোয়ালিখোলা, বালাঘাটা, গেজমনিপাড়া’সহ জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে পাইকারী দামে লিচু কিনে চট্টগ্রাম, ঢাকা’সহ দেশের বিভিন্নস্থানে গাড়িতে করে নিয়ে যাচ্ছে ব্যবসায়ীরা।
লিচু ব্যবসায়ী মোহাম্মদ সিরাজ বলেন, দেড়লক্ষ টাকায় চারটি লিচু বাগান কিনেছি। বাজারে বিক্রি করে মোটামুটি লাভ হচ্ছে। স্থানীয় বাজারগুলোর চাহিদা মিটিয়ে এখানকার চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্নস্থানেও গাড়িতে করে নিয়ে বিক্রি করা হচ্ছে। এবছর লিচু আকারে বড় এবং খেতেও সুস্বাদু হয়েছে। Bandarban-Lichi-PiC-1
পাহাড়ী লিচু চাষী লিরামনি তঞ্চঙ্গ্যা জানান, দেড় একর পাহাড়ী জমিতে লিচু চাষ করে আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছি। লিচু’সহ মৌসুমি ফল বিক্রি করে আমার টানা-হেঁচড়ার সংসারে স্বচ্ছলতা ফিরেছে। স্বল্প খরচে লাভজনক হওয়ায় গ্রামের আরো কয়েকজনও লিচু চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছে।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের শস্য উৎপাদন বিশেষজ্ঞ আলতাফ হোসেন জানান, পাহাড়ে চায়না থ্রি’সহ দেশীয় জাতের লিচু চাষ একটি লাভজনক চাষাবাদ। স্বল্প খরচে পরিচর্যার মাধ্যমে লিচু চাষে অধিক লাভবান হচ্ছে স্থানীয় চাষীরা। লিচুর মোটামুটি ভালো হয়েছে এবার জেলায়। চাহিদা থাকায় স্থানীয় বাজারগুলোর চাহিদা মিটিয়ে বান্দরবানে উৎপাদিত লিচু দেশের বিভিন্ন নিয়ে যাচ্ছে ব্যবসায়ীরা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

সংবর্ধিত হলেন রাঙামাটি পৌরসভার অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা

রাঙামাটি পৌরসভার অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিদায়ী সংবর্ধনা দিয়েছে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার দুপুরে পৌরসভা মিলনায়তনে …

Leave a Reply