নীড় পাতা » ফিচার » পর্বতকন্যা » পাহাড়ের প্রথম নারী উপজেলা চেয়ারম্যান হলেন মনি চাকমা

পাহাড়ের প্রথম নারী উপজেলা চেয়ারম্যান হলেন মনি চাকমা

Moni-chakmaছিলেন উন্নয়নকর্মী,সেখান থেকে রাজনীতিতে,এরপর জনপ্রতিনিধি। খুউব স্বল্প সময়েই এই রূপান্তর মনি চাকমা’র। বছরকয়েক আগেও ছিলেন বেসরকারি উন্নয়ন সংগঠন ‘সোসাইটি ফর ইন্ডিজিনাস উইমেন প্রোগ্রেস(সুইপ)’ এর নির্বাহী পরিচালক। সারাদিন এনজিওর কাজ নিয়েই ব্যস্ত সময় কাটতো তার। ২০০৩ সালে নিজেই প্রতিষ্ঠা করেন সংগঠনটি।

কিন্তু হঠাৎ’ই কি জোঁক উঠলো। ২০০৮ সালে ছোট ভাই নিখিলকে সংগঠনের দায়িত্ব দিয়ে তিনি বরকল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে অংশ নিয়ে প্রবেশ করেন ভোটের মাঠে। কিন্তু বিধি বাম। সামান্যভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন তিনি। কিন্তুনিয়ে ভোটের মাঠে ব্যর্থ হয়ে থমকে যাননি তিনি। গত পাঁচবছর ধরে মাঠেই পড়ে ছিলেন,মাটি আঁকড়ে। আশ্চর্য্য প্রাণশক্তি নিয়ে ঠিকই রাজনীতিতে আরো বেশি সক্রিয় হয়েছেন,মিছিলে মিটিংয়ে সময় দিয়েছেন। কিন্তু ভেতরে ভেতরে তিনি যে নিজেকেই গোচাচ্ছিলেন তাই জানা গেলে উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর। বাঘা বাঘা মনোনয়ন প্রত্যাশীদের পেছনে ফেলে ঠিকই বাগিয়ে নেন পাহাড়ের অন্যতম প্রধান আঞ্চলিক দল জনসংহতি সমিতির দলীয় সমর্থন। এরপর আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।

ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী,বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও দাপুটে সন্তোষ চাকমাকে পরাজিত করে ঠিকই বিজয় ছিনিয়ে এনেছেন মনি চাকমা এবং নির্মাণ করেছেন নতুন ইতিহাস। পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রথম এবং একমাত্র নারী চেয়ারম্যানও তাই তিনি। এখন দেখার পালা নিজেকে কতদূর নিয়ে যেতে পারেন তিনি। আর নারী অধিকার প্রতিষ্ঠা আর বরকলবাসীর উন্নয়ন কতদূর কি করতে পারেন,তাও মূল্যায়ন করবে মানুষ।

তবে আশাবাদী মনি নির্বাচনে দাঁড়ানোর আগেই বলেছিলেন,তার স্বপ্ন বরকলবাসীর জন্য কিছু করার। সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের সুযোগ পেলে উজাড় করেই করবেন বলে জানিয়েছিলেন তিনি।

বরকল উপজেলার ভূষণছড়া ইউনিয়নের পন্ডিতপাড়া গ্রামের মৃত প্রেমনেন্দু চাকমা ও কৃপাদেবী চাকমার সন্তান মনি চাকমা এসএসসি পাশ । নির্বাচন কমিশনে দেয়া হলফনামার তথ্য অনুসারে কৃষি খাত থেকে তার বার্ষিক আয় দেড় লক্ষ টাকা আর তার নির্ভরশীলদের আয় ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা। ব্যক্তিগতজীনে ১০ ভরি স্বর্ণালংকারের মালিক মনির প্রায় ৩ লক্ষ ৬০ হাজার টাকার ব্যাংকে বা নগদে আছে। নির্ভরশীলদের নামে আছে লক্ষাধিক টাকা। নিজ নামে ১২ একর ভোগদখলীয় জমি, ০.১০ একর রেকর্ডিয় জমি ও ১ টি বাড়ী আছে তার।

১৫ মার্চ অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৯ হাজার ২৮১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন মনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি সন্তোষ কুমার চাকমা পেয়েছেন ৫ হাজার ৯৬৭ ভোট।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জনপ্রিয় হচ্ছে ‘তৈলাফাং’ ঝর্ণা

করোনার প্রভাবে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল খাগড়াছড়ির পর্যটন ও বিনোদনকেন্দ্র। তবে টানা বন্ধের পর এখন খুলেছে …

Leave a Reply