নীড় পাতা » ফিচার » অরণ্যসুন্দরী » পর্যটক শূন্য খাগড়াছড়ি…..

পর্যটক শূন্য খাগড়াছড়ি…..

KHG-coverরিছাং ঝরনা, আলুটিলা, এডভেঞ্চার সুরঙ্গ কিংবা জেলা পরিষদ পার্ক সবই এখন শুন্য পড়ে আছে। মনে হচ্ছে পর্যটক না থাকায় ঝিমিয়ে পড়েছে এসব পর্যটন এলাকা। এখানে গেলে এখন শুধু দেখা মিলবে আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্য কিংবা হাতেগোনা কিছু স্থানীয় দর্শনার্থীর।

বিগত বছরের শেষ সময়টাতে সবচেয়ে বেশি পর্যটকে মুখর ছিল খাগড়াছড়ি। এতোটাই বেশি ছিল যে, বছরের শেষে এসে হোটেল মোটেলগুলোতে জায়গা দেয়া কঠিন হয়ে পড়েছিল। কিন্তু নতুন বছর আসতেই দেখা গেলো উল্টো চিত্র। হরতাল, অবরোধের কারণে এখন পুরোই পর্যটক শুন্য খাগড়াছড়ি।

খাগড়াছড়ি আলুটিলা পর্যটন কেন্দ্রের টিকিট কাউন্টারের কর্মচারী পরিবেশক রতন ত্রিপুরা বলেন, গেলো বছরের শেষের দিকে আলুটিলায় যেখানে প্রতিদিন দেড় থেকে দুই হাজার পর্যটকদের সমাগম ঘটেছে। সেখানে এখন ৪০ থেকে ৫০ জন লোকের সমাগম ঘটছে,তারা সবাই স্থানীয়।

খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ পার্কের দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একে এম জাকির হোসেন জানান, গত বছরের অক্টোবর, নভেম্বর ও ডিসেম্বর এই তিন মাসে যে পরিমান পর্যটকের উপস্থিতি ছিল জানুয়ারী মাসে তা অনেকটাই শুন্যের কোটায় নেমে এসেছে।

এদিকে পাহাড়ের ভূ স্বর্গ নামে পরিচিত ‘সাজেক’ এলাকাটিও এখন পর্যটক শুন্য। সাজেক উন্নয়ন ফোরামের সদস্য সচিব থাংলাক লুসাই জানান, হরতাল, অবরোধের কারণে বাইরে থেকে পর্যটক আসতে পারছেনা।khagrachari-pic-3

এদিকে শীতের এমন মৌসুমে ঘুরতে আসার জন্য আগে থেকে হোটেল মোটেলে বুকিং করে রেখেছিল পর্যটকরা। কিন্তু দেশের চলমান অস্থিরতার কারণে বাতিল হয়ে গেছে।

খাগড়াছড়ি পর্যটন মোটেলের ইউনিট ব্যবস্থাপক মোঃ মইনুল ইসলাম জানান, নভেম্বর, ডিসেম্বর মাস পর্যটকে পূর্ণ ছিল। সেই ধারাবাহিকতায় জানুয়ারী মাসেও পর্যটকদের অগ্রিম রুম বুকিং ছিল। কিন্তু হরতাল অবরোধের কারণে সব বুকিং বাতিল হয়ে গেছে। এখন এক দুইটি রুম ছাড়া পর্যটন মোটেল পুরো খালি।

খাগড়াছড়ি হোটেল ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি এস অনন্ত ত্রিপুরা বলেন, দেশে এমন অস্থিরতা চলতে থাকলে পর্যটন শিল্প ক্ষতির মুখে পড়বে। এমন মৌসুমে যেখানে পর্যটন এলাকাগুলো পর্যটকে মুখর থাকার কথা। হোটেলগুলো পূর্ণ থাকার কথা। কিন্তু এখন বাস্ততে তারঁ উল্টো চিত্র। যদি দেশে এমন রাজনৈতিক অস্থিরতা চলতে থাকে তাহলে দেশের পর্যটন শিল্প হুমকির মধ্যে পড়বে। তাই পর্যটন সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোকে হরতাল অবরোধের মত কর্মসূচীর আওতার বাইরে রাখার দাবী জানান তিনি।khagrachari-pic-5
খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, খাগড়াছড়িতে পর্যটক দিন দিন বাড়ছে। কারণ এখানকার মনোরম পরিবেশ তাদের আকৃষ্ট করছে। কিন্তু দেশের চলমান অস্থিরতার কারণে নতুন বছর আসতে তা আবার কমে গেচে। তবে দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে খাগড়াছড়ি পর্যটক মুখর হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

যদি এমন চলমান অস্থিরতা অব্যাহত থাকে তাহলে দেশের পর্যটন শিল্প হুমকির মধ্যে পরবে। তাই রাজনৈতিক দলগুলো যেন পর্যটন এলাকাগুলোকে বাইরে রেখে নিজেদের কর্মকান্ড পরিচালনা করে। এমনটাই প্রত্যাশা স্থানীয়দের।khagrachari-pic-2

Micro Web Technology

আরো দেখুন

লকডাউনে ফাঁকা খাগড়াছড়ি, বাড়ছে শনাক্ত

সারা দেশের মতো দ্বিতীয় দফায় সরকারের ঘোষিত লকডাউন চলছে পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়িতে। প্রথম দফার লকডাউন …

Leave a Reply