নীড় পাতা » ব্রেকিং » পর্যটকদের চোখে রাঙামাটি

পর্যটকদের চোখে রাঙামাটি

rangamatiiiবাংলাদেশের দেশী ও বেড়াতে আসা বিদেশী পর্যটকদের একটি পছন্দের ও প্রিয় স্থান হচ্ছে হ্রদ পাহাড়ের শহর রাঙামাটি। এখানকার প্রাকৃতিক রুপ-বৈচিত্র যে কোন ভ্রমন প্রিয় মানুষকে কিছুটা সময়ের জন্য হলেও মুগ্ধ করে। রাঙামাটি জেলায় প্রতি বছরই হাজার হাজার দেশি বিদেশি পর্যটকরা ঘুরতে আসেন। তবে ভ্রমণ শেষে প্রত্যাশার অপূর্ণতাও বেশ কষ্টই দেয় তাদের। এনিয়ে অভিযোগেরও অন্ত নেই বেড়াতে আসা পর্যটকদের। বিষয়টি নিয়ে আমরা পাহাড়ের সবচে জনপ্রিয় অনলাইন দৈনিক পাহাড়টোয়েন্টিফোর ডট কম এর পক্ষ থেকে কথা বলেছি গত ১৬ সেপ্টেম্বর রাঙামাটি বেড়াতে আসা কয়েকজন পর্যটকের সাথে। জানার চেষ্টা করেছি রাঙামাটিকে তারা কিভাবে দেখছেন এবং উত্তর খোঁজার চেষ্টা করেছি তাদের ভাবনা কি।

শান্ত,কুমিল্লা
শান্ত,কুমিল্লা

এই প্রসঙ্গে কথা বলে কুমিল্লা থেকে বেড়াতে আশা শান্ত বলেন, আমি রাঙামাটিতে এই প্রথমবার বেড়াতে এসেছি, ভালোই লাগছে এখানে বিভিন্ন পাহাড়-পর্বত দেখতে, তার সাথে কাপ্তাই হ্রদ। কিন্তু আমার মনে হয় এখানে বাচ্চাদের জন্য পার্ক, চিড়িয়াখানা থাকলে ভালো হতো। কারণ আমরা এই পাহাড়-পর্বত দেখতে ভালোবাসি বলেই এখানে এসেছি, তবে বাচ্চাদের কাছে পার্ক আর চিড়িয়াখানাটাই আনন্দের স্থান। তাই প্রাকৃতিক পরিবেশেও বাচ্চাদের জন্য কিছু আয়োজন থাকা উচিত।

মনিরুল ইসলাম বাবু,পাবনা
মনিরুল ইসলাম বাবু,পাবনা

পাবনা থেকে বেড়াতে আসা মনিরুল ইসলাম বাবু বলেন, রাঙামাটি অসাধারণ একটি স্থান। এখানের পাহাড়ের সাথে আকাশের যে মিলন মেলা তা দেখতে আসলেই খুব ভালো লাগে। বরকল যাবার পথে যে বুদ্ধিমূর্তি বানানো হয়েছে তা দেখে অনেক সুন্দর লেগেছে। আমার মনে হয় এমনভাবে যদি হ্রদের পাশে বিভিন্ন পাহাড়ে ভাস্কর্য বানানো হয় এবং বিশেষ করে পর্যটকদের জন্য সেখানে কিছুটা বিনোদনের ব্যবস্থা তৈরি করে দেওয়া হয় তবে আরো ভালো লাগতো।

সুপ্ত শেখ,পাবনা
সুপ্ত শেখ,পাবনা

পাবনা থেকে বেড়াতে আসা সুপ্ত শেখ বলেন, রাঙামাটিতে এই ঝুলন্ত ব্রিজের যদি আরো নতুনত্ব করা যেত, তার পাশাপাশি পাহাড় গুলোকে যদি কাজে লাগিয়ে বিনোদনের বিভিন্ন স্পট তৈরি করা হতো তবে ভালো হয়। এছাড়া শিশুদের জন্য পার্ক করা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

পাবনা থেকে দলবেঁধে রাঙামাটিতে বেড়াতে এসেছে এই তরুণরা
পাবনা থেকে দলবেঁধে রাঙামাটিতে বেড়াতে এসেছে এই তরুণরা
সুমাইয়া,চট্টগ্রাম
সুমাইয়া,চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম থেকে বেড়াতে আসা সুমাইয়া বলেন, রাঙামাটিতে ক্যাবল কার, পানিতে ওয়াটারবোট, শিশুদের জন্য পার্ক এসব থাকলে বেশি ভালো হত। এমনিতে রাঙামাটি রূপ বৈচিত্র অনেক সুন্দর বলেই এখানে অনেক পর্যটকরা বেড়াতে আসে, তবে তাদের সুবিধার জন্য আরো কিছু কাজ করা প্রয়োজন এখানে। যেমন,পর্যটকদের বসার জন্য ঝুলন্ত ব্রিজের পরের পাহাড়ে শিশুদের পার্কে তেমন কোন ব্যবস্থাই নেই। এছাড়া এখানে বাচ্চাদের জন্য যে খেলনা সরঞ্জাম রয়েছে তাও যথেষ্ট নয়। আরো খেলার সরঞ্জাম ও রাইড রাখা প্রয়োজন বলে আমি মনে করি।

শারমীন,চট্টগ্রাম
শারমীন,চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম থেকে বেড়াতে আসা শারমীন বলেন, রাঙামাটি অনেক সুন্দর, এখানে এসে ভালোই লাগছে। তবে পর্যটকদের জন্য এখানে দেশি বিদেশী আরো কিছু বিনোদনের উপকরণ এবং বিনোদন স্পট করলে ভালো হয়।

শাহনাজ পারভীন
শাহনাজ পারভীন

পর্যটনে চলতে চলতে দেখা হলো প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শাহনাজ পারভিন’র সাথে। তিনি বলেন, রাঙামাটিতে পর্যটকদের নিরাপত্তা বাড়ানো ও যোগাযোগ ব্যবস্থা আরো উন্নত করা প্রয়োজন। এছাড়া এখানে বিশেষ করে বিভিন্ন হোটেলগুলোকে আরো আধুনিকায়ন করা প্রয়োজন। হোটেলগুলোতে সুইমিং পুল ও সুভ্যেনীর শপ করা প্রয়োজন, তবেই পর্যটকদের আকর্ষন আরো বাড়বে।

লেকের মাঝে রেস্টুরেন্ট এর ব্যবস্থা করা যেতে পারে। কারণ এই লেকের যে সৌন্দর্য্য তা উপভোগ করতেই কিন্তু পর্যটকরা এখানে আসেন। তাই খেতে খেতে হ্রদের সৌন্দর্য্যটাও উপভোগ করা হবে ভ্রমন প্রিয় মানুষদের…….শাহনাজ পারভীন

তিনি আরো বলেন, যারা বাহির থেকে এখানে বেড়াতে আসেন, তারা পাহাড়ি খাবারগুলো খেতে চায়। কিন্তু রাঙামাটিতে তেমন কোন সুব্যবস্থা নেই। পাহাড়িদের খাবার খাওয়ার মত ভালো মানের রেস্টুরেন্টও নাই। পাশাপাশি তাদের স্থানীয় হস্ত শিল্পগুলোকে আরো উন্নত ও আধুনিক ডিজাইনের মাধ্যমে পর্যটকদের হাতের নাগাল নিয়ে গেলে মনে হয় পর্যটকরা খুশিই হবেন এবং এই এলাকার মানুষদেরও অর্থনৈতিক উন্নতি হবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণ চেষ্টা, যুবক গ্রেফতার

রাঙামাটিতে বুদ্ধি ও শারিরীক প্রতিবন্ধী এক নারীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। …

2 comments

  1. এখানে সরকারী উদ্যোগ তো নেই বললেই চলে, আর বেসরকারী কোন উদ্যোক্তাও পাহাড়ী সন্ত্রাসদের আতঙ্কে কিছু করার সাহস করেনা । কাজেই আগে ঘর ঠিক করুন তারপরে ভাড়াটিয়া!

Leave a Reply

%d bloggers like this: