নীড় পাতা » ব্রেকিং » নিষেধাজ্ঞায় পর্যটক শূন্য রাঙামাটি

নিষেধাজ্ঞায় পর্যটক শূন্য রাঙামাটি

হ্রদ পাহাড়ের শহর রাঙামাটিতে নভেম্বর থেকে এপ্রিল পর্যন্ত পর্যটকের ভর মৌসুম থাকলেও নভেল করোনো ভাইরাস সর্তকতায় সকল পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্র পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করায় ভরা মৌসুমেও পর্যটক শূন্য রাঙামাটি।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শহরের রাঙামাটি পার্ক, পলওয়েল পার্ক, ডিসি বাংলো পার্ক, ঝুলন্ত সেতু, বেরাইন্যা, বরগাং, সুভলং ঝর্নাসহ জেলার বিভিন্ন পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্র ঘুরে পর্যটক শূন্য দেখা যায়। পর্যটক শূন্যতার কারণে এই ব্যবসার সাথে জড়িতরা অলস সময় পার করছেন।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসন থেকে বলা হয়েছে, পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত রাঙামাটির সকল পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্রে পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এই নির্দেশনা যদি কেউ অমান্য করে তবে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

হোটেল মোটেল ব্যবসায়ীরা জানান, করোনা ভাইরাসের কারনে স্থানীয় প্রশাসন সকল পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ ঘোষণা করার ফলে রাঙামাটি পর্যটন শূন্য এ সময়টা পর্যটন মৌসুম হলেও করোনা ভাইরাসের কারনে পর্যটক শূন্য থাকায় আর্থিক ক্ষতি হলেও দেশের সার্বিক দিক বিবেচনা করে আমরা এই ক্ষতি মনে নিয়েছি।

পর্যটন ঘাট ইজারাদার রমজান আলী বলেন, মৌসুম শুরুতে ভালোই পর্যটক ছিল রাঙামাটিতে। হঠাৎ করোনা ভাইরাসের কারণে পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্রে পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় আজ (বৃহস্পতিবার) থেকে পর্যটক শূন্য। আমাদের সাময়িক ক্ষতি হলেও এই সময়ে সরকারকে সহযোগিতা করার চেষ্টা করছি।

রাঙামাটি পলওয়েল পার্ক, দায়িত্বরত এসআই, আলমলীর হোসেন বলেন, সরকারি ও স্থানীয় প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা পার্ক বন্ধ রেখেছি। এই মুহুত্বে আমরা কাউকে পার্কে প্রবেশ করতে দিচ্ছি না।

হোটেল স্কয়ার পার্কের ম্যানেজার আবু সুফিয়ান বলেন, স্থানীয় প্রশাসন ও সরকারি নির্দেশনা পাওয়ার পর আর কাউকে নতুন করে রুম বুকিং দিচ্ছি না। আগামী ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে প্রচুর বুকিং ছিল করোনা ভাইরাসের কারণে সব বুকিং বাতিল করা হয়েছে।

রাঙামাটি পর্যটন হলিডে কমপ্লেক্সের উপ-ব্যবস্থাপক আলী আজম বলেন, এই সময়টাতে পর্যটকমুখর থাকে কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে এখন একদম ফাঁকা। আমরাও কাউকে রুম বুকিং দিচ্ছি না। তিনি আরো বলেন, এটি সরকারের একটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান। পর্যটক না এলে ব্যবসায় তো ক্ষতি হচ্ছেই কিন্তু যেহেতু আমরা সমস্যা আছি তাই সবাই মিলে এর মোকাবেলা করতে হবে।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ জানিয়েছেন, করোনা মোকাবেলায় প্রশাসনের তরফ থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কারাতে ফেডারেশনের ব্ল্যাক বেল্ট প্রাপ্তদের সংবর্ধনা

বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশন হতে ২০২১ সালে ব্ল্যাক বেল্ট বিজয়ী রাঙামাটির কারাতে খেলোয়াড়দের সংবধর্না দিয়েছে রাঙামাটি …

Leave a Reply