নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত রাঙামাটি

নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত রাঙামাটি

sadar-COverrশহরের সর্বত্র নিরাপত্তায় নিয়োজিত আইনশৃংখলাবাহিনীর সতর্ক পদচারণা,কেন্দ্রে কেন্দ্রে হাজির আনসার ও পুলিশ বাহিনীর দায়িত্বপালনকারি সদস্যরাও,প্রতিটি কেন্দ্রেই থাকবে সেনা উপস্থিতিও। নির্বাচনের সব উপকরণও ইতোমধ্যেই পৌঁছে গেছে সব কেন্দ্রে। প্রার্থীদের প্রচারণাও শেষ। সবমিলিয়ে এখন প্রস্তুত রাঙামাটি।
রবিবার রাত শেষে সোমবার সকাল ৮ টা থেকেই শুরু হচ্ছে রাঙামাটির চার উপজেলায় ভোটযুদ্ধ। রাঙামাটি সদর,লংগদু,বিলাইছড়ি এবং রাজস্থলী উপজেলা পরিষদ এর নির্বাচনকে ঘিরে তাই যেনো উৎসবে মেতেছে পাহাড়। নির্বাচনী আমেজের পাশাপাশি আছে শংকাও।
ইতোমধ্যেই নির্বাচনী যুদ্ধে নামা তিনটি দলের সমর্থিত তিন প্রার্থীই বেশ কিছু কেন্দ্রকে ‘ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র’ হিসেবে আখ্যা দিয়ে সেইসব কেন্দ্রের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা কামনা করেছেন। আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জাকির হোসাইন সেলিম এর নির্বাচনী এজেন্ট বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক হাজী মো: মুছা মাতব্বর ১৯ টি কেন্দ্রের একটি তালিকা দিয়ে ওইসব কেন্দ্রে নির্বাচনের আগে থেকেই নির্বাচন শেষ হওয়া পর্যন্ত সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়েছেন। একইভাবে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মাহবুবুল বাসেত অপুর প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট ও জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মো: শাহ আলমও ১৮ টি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করে সেইসব কেন্দ্রে ভোটারদের নিরাপত্তা নিশ্চিত ও ভোটারদের প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়েছেন।
এছাড়া শনিবার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে জনসংহতি সমিতি সমর্থিত প্যানেলের তিন প্রার্থী অরুন কান্তি চাকমা,পলাশ কুসুম চাকমা এবং রিতা চাকমা, এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে শহরের ৯ টি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ ও এইসব কেন্দ্রে ভোট কারচুপির সম্ভাবনার অভিযোগ করেছেন। তারা দাবি করেন,এই ৯ টি কেন্দ্রে জাতীয় রাজনৈতিক দল এবং ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীরা ব্যাপক ‘ভোট কারচুপির’ আশ্রয় নিবে।
এদিকে প্রার্থীদের পাল্টাপাল্টি অভিযোগের কারণে রিটার্নিং অফিসারও ব্যাপক নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন,জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হলেও,তখন সেনাবাহিনী কেন্দ্রে যায়নি,আশেপাশে অবস্থান নিয়ে ছিলো। এবার সেনাবাহিনী কেন্দ্রেই অবস্থান নেবে। তিনি জানিয়েছেন নির্বাচন শান্তিপূর্ণ অবাধ এবং সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে প্রশাসন সর্বাত্মক প্রস্তুতি শেষ করেছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

স্বাস্থ্য বিভাগকে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো রাঙামাটি রেড ক্রিসেন্ট

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে রাঙামাটির ১২টি সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে স্বাস্থ্য …

Leave a Reply