নীড় পাতা » ব্রেকিং » নিখোঁজ সাংবাদিক কাজলের সন্ধানে রাস্তায় সহকর্মীরা

নিখোঁজ সাংবাদিক কাজলের সন্ধানে রাস্তায় সহকর্মীরা

ঢাকা থেকে নিখোঁজ সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার ও কুড়িগ্রামে সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম রিগ্যানকে নির্যাতনকারী জেলা প্রশাসকসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শাস্তির দাবিতে রাঙামাটিতে প্রতিবাদী মানববন্ধন করেছে জেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা। কর্মসূচি থেকে সারাদেশে অব্যাহত সাংবাদিক খুন, গুম, অপহরণ, হামলা এবং মিথ্যা মামলার প্রতিবাদ জানিয়েছে সাংবাদিক নেতারা।

সোমবার সকালে ‘রাঙামাটিতে কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ’র ব্যানারে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। কর্মসূচিতে রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক গিরিদর্পণ সম্পাদক একেএম মকছুদ আহম্মেদ’র সভাপতিত্বে এতে উপস্থিত ছিলেন, রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও প্রবীণ সাংবাদিক সুনীল কান্তি দে, রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মো. শামসুল আলম, রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার উল হক, অনলাইন নিউজ পোর্টাল সিএইচটিটুডে ডটকম সম্পাদক ফজলুর রহমান রাজনসহ জেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রাম সম্পাদক ফজলে এলাহী, রাঙামাটি রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি সুশীল প্রসাদ চাকমা, রাঙামাটি সাংবাদিক সমিতির সভাপতি জিয়াউল হক, রাঙামাটি সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক হিমেল চাকমা, রাঙামাটি সাংবাদিক ফোরামের সহ-সভাপতি মনসুর আহাম্মদ প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রাম-এর নিজস্ব প্রতিবেদক সাইফুল বিন হাসান।

এসময় বক্তারা বলেন, সাংবাদিকরা বিভিন্ন সময়ে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে প্রশাসন, রাজনৈতিক দল কর্তৃক বিভিন্নভাবে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। এতে সংবাদপত্রের স্বাধীনতা যেমন খর্ব হচ্ছে, তেমনি ঝুঁকিতে পড়ছে গণতন্ত্র, সু-শাসন। সম্প্রতি কুড়িগ্রামে প্রশাসন কর্তৃক যে ধরনের কথিত বিচারের নামে প্রহসন চালানো হয়েছে তা দেশের সাংবাদিকতার জন্য হুমকি। তারা আরও বলেন, কেউ আইনের উর্ধ্বে নয়। সকলের ন্যায় বিচার পাওয়ার অধিকার রয়েছে। যদি কোনো সাংবাদিক অন্যায় করে থাকে দেশের প্রচলিত আইনে বিচার হতে পারে। কিন্তু রাতের আধাঁরে যেভাবে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নামে সাজা দেওয়া হয়েছে, তাতে জনমনে ভ্রাম্যমাণ আদালত সংক্রান্ত ভীতি সৃষ্টি করেছে। যা আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার পরিপন্থী। এ ধরনের অতি উৎসাহী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সচেতন হতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো কর্মসূচি থেকে।

এসময় নিখোঁজ সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কালজকে দ্রুত অক্ষত অবস্থায় উদ্ধারের দাবি জানিয়ে সাংবাদিক নেতারা বলেন, যুব মহিলালীগ নেত্রী পাপিয়াকাণ্ডে দৈনিক মানবজমিনে প্রতিবেদন প্রকাশকে কেন্দ্র করে প্রভাবশালী সাংসদ পত্রিকার সম্পাদকসহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করেছে। ওই মামলায় আসামি করা হয় সাংবাদিক কাজলকেও। অথচ মামলার পরপর কাজল নিখোঁজ হলেও এখনো প্রশাসন-পুলিশ তার কোনো সন্ধান পায়নি।

এসময় কাজলকে দ্রুত অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করা না হলে অন্যথায় আরও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন সাংবাদিক নেতারা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কারাতে ফেডারেশনের ব্ল্যাক বেল্ট প্রাপ্তদের সংবর্ধনা

বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশন হতে ২০২১ সালে ব্ল্যাক বেল্ট বিজয়ী রাঙামাটির কারাতে খেলোয়াড়দের সংবধর্না দিয়েছে রাঙামাটি …

Leave a Reply