নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » নানিয়ারচরের বেতছড়িতে মোটরসাইকেলে আগুন,দোকানিকে মারধর

নানিয়ারচরের বেতছড়িতে মোটরসাইকেলে আগুন,দোকানিকে মারধর

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলার বেতছড়ি বাজারে শুক্রবার সকালে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা শ্যামরতন চাকমা নামে এক ব্যক্তিকে মারধর ও একটি মোটর সাইকেল আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয় সূত্রে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হওয়া গেছে। ইউনাইটেড পিপল্স ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)-এর রাঙামাটি জেলা ইউনিটের সংগঠক সচল চাকমা এক বিবৃতিতে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে,ঘটনার জন্য তার ভাষায় ‘জেএসএস’র সন্তু-উষাতন বাহিনী’কে দায়ী করেছেন। তবে জনসংহতি সমিতির মুখপাত্র ও কেন্দ্রীয় কমিটি সহ তথ্য ও প্রচার সম্পাদক সজীব চাকমা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

স্থানীয় সূত্র , মোটরাসাইকেল পুড়িয়ে দেয়া এবং এক ব্যক্তিকে মারধরের বিষয়টি নিশ্চিত করলেও বিস্তারিত কিছু জানাতে পারেনি।

তবে বিবৃতিতে ইউপিডিএফ দাবি করেছে, শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে রামহরিপাড়া-কৃষ্ণমা ছড়া এলাকা থেকে অমর চাকমা জঙ্গীর নেতৃত্বে ‘সন্তু-উষাতন বাহিনীর’ একদল ‘সশস্ত্র সন্ত্রাসী’ নানিয়ারচর উপজেলার বেতছড়ি বাজারে হানা দিয়ে স্থানীয় বেতছড়ি খামারপাড়ার বাসিন্দা রুনা চাকমার মালিকানাধীন একটি ডিসকভার মোটর সাইকেল আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় এবং তন্যাপাড়ার বাসিন্দা শ্যামরতন চাকমা নামে এক চা দোকানদারকেও বেদম মারধর করে। সন্ত্রাসীদের মারধরে তার কপাল ফেটে যায়। এরপর সন্ত্রাসীরা আবারো রামহরিপাড়া-কৃষ্ণমা ছড়ার দিকে পালিয়ে যায় বলেও অভিযোগ করে সংগঠনটি।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়,‘উষাতন তালুকদার এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে জেএসএস সন্ত্রাসীরা বেপরোয়া হয়ে এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড শুরু করেছে। প্রশাসনের ছত্রছায়ায় বিভিন্ন এলাকায় তারা প্রকাশ্যে সশস্ত্র তৎপরতা চালাচ্ছে। যার ফলে এলাকার জনগণ চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।’ বিবৃতিতে বেতছড়িতে হামলাকারী সন্তু-উষাতন বাহিনীর সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার, তাদের সশস্ত্র তৎপরতা বন্ধ করে এলাকার জনগণের জীবনের নিরাপত্তা বিধান করার জোর দাবি জানায় ইউপিডিএফ।

অভিযোগ প্রসঙ্গে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির মুখপাত্র ও কেন্দ্রীয় কমিটির সহতথ্য ও প্রচার সম্পাদক সজীব চাকমা বলেন,এই ঘটনা সম্পর্কে আমি কিছু জানিইনা,এসব ভিত্তিহীন অভিযোগ। ওই এলাকাটি ইউপিডিএফ নিয়ন্ত্রিত এলাকা হিসেবে পরিচিত। সেখানে কোন ঘটনার সাথে আমাদের সংগঠন জনসংহতি সমিতির জড়িত থাকার প্রশ্নই আসেনা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বাদশার ঠাঁই হলো বৃদ্ধাশ্রমে

যাযাবর জীবন; মানসিক ভারসাম্যহীন হলেও মানুষের ভাষা বোঝে। সব সময় চুপচাপ থাকা পঞ্চাশোর্ধ মানুষটি অনেকের …

Leave a Reply