নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » নাগরিক ভালোবাসায় ভিজলেন প্রভাংশু ত্রিপুরা

নাগরিক ভালোবাসায় ভিজলেন প্রভাংশু ত্রিপুরা

provansgu-piccc--43এমনিতে সচরাচর আলোচনা সভায় উপস্থিতি থাকে খুব কম। কিন্তু এই আলোচনা সভা যে ব্যতিক্রম। পাহাড়ীয়া শহর খাগড়াছড়ির মানুষের অহংকার পার্বত্য চট্টগ্রামের গর্ব প্রভাংশু ত্রিপুরার নাগরিক সংবর্ধনা বলে কথা। যিনি গবেষণায় সামগ্রিক অবদানের জন্য পেয়েছেন বাংলা একাডেমী পুরস্কার ২০১৩।

বাংলা একাডেমী পুরস্কারে ভূষিত লেখক-সাহিত্যিক প্রভাংশু ত্রিপুরাকে শনিবার খাগড়াছড়ি শহরের অফিসার্স ক্লাব মিলনায়তনে নাগরিক সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে।

বিকেলে প্রভাংশু ত্রিপুরা নাগরিক সংবর্ধনা কমিটি’র আহ্বায়ক ড. সুধীন কুমার চাকমা’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান চাইথোঅং মারমা, শরণার্থী টাস্কফোর্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কৃষ্ণ চন্দ্র চাকমা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ আব্দুল খালেক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) কাজী মোঃ মোজান্মেল হক, নারীনেত্রী ইন্দিরা দেবী চাকমা, সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনীন্দ্র লাল ত্রিপুরা, প্রাবন্ধিক অংসুই মারমা, এড. মহিউদ্দিন কবীর বাবু, মুক্তিযোদ্ধা মংসাথোয়াই চৌধুরী ও সমাজকর্মী সুরজিত নারায়ণ ত্রিপুরা। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংবর্ধনা পরিষদের যুগ্ন সদস্য সচিব মথুরা বিকাশ ত্রিপুরা। এর আগে সংবর্ধিত অতিথিকে উত্তরীয় পরিয়ে দেন সংবর্ধনা পরিষদের আহ্বায়ক ড. সুধীন কুমার চাকমা। এছাড়া খাগড়াছড়ি প্রেস ক্লাব, দীঘিনালা প্রেস ক্লাব, দৈনিক অরন্যবার্তার পক্ষ থেকে প্রভাংশু ত্রিপুরাকে ফুলের শুভেচ্ছা জানানো হয়।

সভায় বক্তারা বলেন, ‘বাংলা একাডেমীর ৫৪ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে কোন ব্যক্তি এতো বড় পুরষ্কারে ভূষিত হয়েছেন। গবেষনায় সামগ্রিক অবদানের জন্য প্রভাংশু ত্রিপুরার পাওয়া এই পুরষ্কারে আমরা গর্বিত। এই পুরষ্কার পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর মধ্য থেকে আরো প্রভাংশু ত্রিপুরা তৈরিতে অগ্রনি ভূমিকা রাখবে।provangsu-pic-21

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রভাংশু ত্রিপুরা বলেন, পাহাড়ী সমাজে জুমের ভাত আর ছড়ার পানি খেয়ে আমি বড় হয়েছি। এই সমাজের কুসংস্কার আমি নিজের চোখে দেখেছি। মূলত: সমাজে কুসংস্কার দূর করার লক্ষ্যে আমার লেখালেখি শুরু। কোন পুরষ্কারের আশায় আমি লেখিনা। তিনি বলেন, যে জাতির সাহিত্য নেই সে জাতি’র ভিত্তি দুর্বল। তাই সাহিত্য চর্চায় তরুণ প্রজন্মকে অগ্রণী ভূমিকা নিতে হবে। পাহাড়ে মানুষের বুদ্ধিবৃত্তিক উৎকর্ষতা সাধনে সাহিত্য ও সংস্কৃতি প্রসারে সরকারের আরো বেশী মনোযোগ প্রয়োজন। এজন্য পার্বত্য এলাকার ভিন্ন ভাষাভাষী জাতি গোষ্ঠি’র ভাষা-বর্ণমালা ও সংস্কৃতি সংরক্ষণ এবং বিকাশে স্থানীয় সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানগুলোর অধিকতর ক্ষমতায়ন জরুরী। অনুষ্ঠানে নাগরিক সংবর্ধনা কমিটির পক্ষ থেকে প্রভাংশু ত্রিপুরাকে ক্রেস্ট প্রদান করেন আগত অতিথিরা।provanshu-pic-234

উল্লেখ্য, গত ১ ফেব্রুয়ারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গবেষনায় সামগ্রিক অবদানের জন্য খাগড়াছড়ির কৃতি সন্তান প্রভাংশু ত্রিপুরার হাতে ‘বাংলা একাডেমী পুরস্কার ২০১৩’ প্রদান করেন। বাংলা একাডেমীর ৫৪ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে কেউ এতোবড় সম্মানজনক এই পুরস্কারে ভূষিত হলেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

ছেলের হাতে মা-বাবা আহত হয়ে হাসপাতালে

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় নেশাখোর বখাটে ছেলের মারধরের শিকার হয়ে আহত বৃদ্ধ মা-বাবা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনাটি সোমবার …

Leave a Reply