নীড় পাতা » ব্রেকিং » ‘নদী চিহ্নিত করে খনন করলে সুফল পাওয়া যাবে’

রাঙামাটিতে বিআইডব্লিউটিএ’র কর্মশালায় বক্তারা

‘নদী চিহ্নিত করে খনন করলে সুফল পাওয়া যাবে’

পার্বত্য জেলা রাঙামাটির অভ্যন্তরীণ প্রধান যোগাযোগ মাধ্যমই নৌ-পথ। প্রতিবছরই জানুয়ারি থেকে এপ্রিল মাস পর্যন্ত কাপ্তাই হ্রদের পানির প্রবাহ কম থাকায় নৌ-চলাচলে বিঘ্ন ঘটে। তবে সুষ্ঠু পরিকল্পনার মাধ্যমে কাপ্তাই হ্রদ ড্রেজিং করা হলে শুষ্ক মৌসুমে পানির প্রবাহ সাম্ভাবিক রাখা যাবে। কাপ্তাই হ্রদ প্রতিদিন যেভাবে দখল ও দূষণ হচ্ছে, তাতে কয়েক বছরের মধ্যে প্রকৃত চেহারা হারিয়ে যাবে। হ্রদ দখল ও দূষণ রোধে প্রশাসনকে আরও কঠোর হতে হবে। শুধু কয়েকটি জয়গায় ড্রেজিং করলে আবারো পলি জমে ভরাট হয়ে যাবে। তাই সুষ্ঠু পরিকল্পনার মাধ্যমে আগে নদীগুলোকে চিহ্নিত করে খনন কাজ করলে সুফল পাওয়া যাবে।

মঙ্গলবার সকালে ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকায় নৌ-পথের নাব্যতা উন্নয়ন এবং ল্যান্ডিং সুবিধাদি উন্নয়ন কল্পে সম্ভাব্যতা যাচাই’ শীর্ষক এক কর্মশালায় এসব কথা বলেন বক্তারা। এদিন রাঙামাটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদের সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন, ২৯৯নং রাঙামাটি আসনের সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার। বিশেষ অতিথি ছিলেন, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) চেয়ারম্যান চেয়ারম্যান কমডোর এম মাহবুব উল ইসলাম। এসময় বিভিন্ন উপজেলার ইউএনও, চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, নৌ-পরিবহন সংশ্লিষ্ট মালিক-শ্রমিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

কর্মশালার প্রধান অতিথি দীপংকর তালুকদার বলেন, ‘শুধু কয়েকটি জায়গায় ড্রেজিং করলে আবারো তাড়াতাড়ি পলি জমে ভরাট হয়ে যাবে। আগে যে নদীগুলো ছিল, সেগুলো কোথায় ছিল, তা খুঁজে বের করে সেইভাবে কাজ করলে সুফল পাওয়া যাবে। রাঙ্গামাটিতে এমনিতেই পাহাড় ধসের শঙ্কা রয়েছে। তাই টেকসই পরিকল্পনা হাতে নিতে হবে। যাতে করে ভূ-প্রকৃতিগতভাবে কোনো ক্ষতি না হয়, সেদিকে খেয়াল রেখেই প্রকল্প শুরু করতে হবে।’

দীপংকর তালুকদার আরও বলেন, ‘রাউজান-রাঙামাটি চার লাইনের রাস্তার পরিকল্পনা কাজ করছে সড়ক বিভাগ। হ্রদ ড্রেজিং এর ফলে যে মাটি পাওয়া যাবে তা সেই কাজে লাগানো যেতে পারে। কাপ্তাই হ্রদ সৃষ্টির ফলে ক্ষতিগ্রস্ত সবাই ক্ষতিপূরণ পেয়েছে। কিন্তু পানি শুকিয়ে গেলে কিছু জমি তৈরি হয় সেখানে অনেকে চাষাবাদ করে। পাহাড়ে প্রতিটি উন্নয়নমূলক কাজে একটি গোষ্ঠী বাধা সৃষ্টি করে। আমি নিশ্চিত কেউ কেউ এটা নিয়েও রাজনীতি করতে চাইবে। জনপ্রতিনিধিদের সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। সাধারণ মানুষদের ব্যবহার করে কেউ যাতে রাজনীতি করতে না পারে।’

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) চেয়ারম্যান কমডোর এম মাহবুব উল ইসলাম বলেন, ‘বিআইডব্লিউটিএ নৌ-পথের নাব্যতা রক্ষা করে যাতে করে যাত্রী ও মালামাল চলাচলে বাধা তৈরি না হয়। আমাদের ১৭৮টি নদী, নৌ-পথের নাব্যতা উন্নয়ন কাজ চলছে। বহু বছর ধরেই কাপ্তাই হ্রদের ড্রেজিং এর বিষয়ে শুনে আসলেও দৃশ্যমান কিছুই লক্ষ্য করা যায়নি। কাপ্তাই হ্রদে যাতে পানি প্রবাহ বৃদ্ধি পায় সে ব্যাপারে আমরা কাজ করবো।’

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বাঘাইছড়িতে এমএনলারমাপন্থী পিসিপি নেতা খুন

রাঙামাাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এমএনলারমা) সহযোগী ছাত্রসংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের …

Leave a Reply