নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » নদীতে ভাসলো প্রদীপোজ্বল নৌকা, আকাশে উড়লো ফানুস

নদীতে ভাসলো প্রদীপোজ্বল নৌকা, আকাশে উড়লো ফানুস

noukaaaদীর্ঘ ৩ মাসের বর্ষাবাস (উপোষ) শেষে পার্বত্য অঞ্চলেও বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব প্রবারনা পূর্ণিমা পালিত হয়েছে। গত মঙ্গলবার চাকমা ও বাঙ্গালী বড়–য়া সম্প্রদায়ের মানুষ দিবসটি ব্যাপক ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতা ও উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে দিনটি উদযাপন করেছে। তবে একই ধর্মাবলম্বী হলেও অনেকটা ব্যতিক্রমীভাবে মারমা জনগোষ্টীর মানুষ বুধবার ওয়া বা ওয়াগ্যো প্যোয় উৎসব পালন করছে। তারা ধর্মীয় রীতিনীতির বাইরেও সামাজিক উৎসব পালন করে থাকে। এ উপলক্ষে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার বিভিন্ন বিহার(মন্দির)এ নানা পুজা অর্চনার আয়োজন করা হয়েছে। সকালে বুদ্ধ পুজা, পঞ্চশীল গ্রহন, সংঘ দান, অষ্ট পরিস্কার দান, হাজার বাতি দান ও ধর্ম দেশনা দেয়া হয়।khagrachari-pic-01

মারমা জনগোষ্টীর ওয়াগ্যো প্যোয় উৎসবের আরেকটি আকর্ষণ নদীতে নৌকা ভাসানো। মূলত উপগুপ্ত অরহৎ’র উদ্যোশ্যে নদীতে প্রদীপ প্রজ্জলিত নৌকা ভাসানো হয়। এই দিন শহরের য়ংড বৌদ্ধ বিহার থেকে দুটি সুসজ্জিত প্রদীপ প্রজ্জলিত নৌকা নিয়ে চেঙ্গী নদীতে ভাসিয়ে দেয়া হয়। এসময় বৌদ্ধধর্মাবলম্বী ছাড়াও বিভিন্ন ধর্মের হাজারো মানুষ নৌকা ভাসানো দেখতে ভীড় করেন। আতশবাজী আর ডাকের তালে উৎসবে মেতে উঠেন মারমা তরুণ তরুণীরা। পরে বিহার থেকে উড়ানো হয় ফানুস বাতি। প্রচলিত আছে বৌদ্ধ ধর্মের প্রবক্তা গৌতম বুদ্ধ এই আশ্বিনী পূর্নিমায় ঘর ছেড়ে সাধনায় যাওয়ার আগে মাথার চুল আকাশে উড়িয়ে দিয়েছিল। তাই আশ্বিনী পূর্নিমার এই তিথিতে আকাশে উড়ানো হয় ফানুস বাতি। এই ফানুস উড়িয়ে বৌদ্ধকে স্মরণ ও সবার মঙ্গল কামনা করা হয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা হলেন দীপংকর তালুকদার

বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদ রাঙামাটি জেলা শাখার প্রধান উপদেষ্টা হয়েছেন খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী …

Leave a Reply