নীড় পাতা » ব্রেকিং » দোষীদের ছাড় নয়

দোষীদের ছাড় নয়

লংগদুতে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জরুরি আইন-শৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এই জরুরি সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ না হওয়া পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের জন্য ১৪৪ ধারা বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। একই সাথে ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রাখা হবে বলে জানানো হয়। কাউকেই ছাড় দেয়া হবেনা বলে জানানো হয় সভায়।

এতে উপস্থিত ছিলেন মাইনী জোনের জোন কমান্ডার আব্দুল আলীম চৌধূরী, রাঙামাটি অতিরিক্ত জেলাপ্রশাসক প্রকাশ কান্তি চৌধুরী, রাঙামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সরোয়ার হোসেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. তাজুল ইসলাম, রাঙামাটি জেলা পরিষদের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জানে আলম, লংগদু থানা ওসি মো. মমিনুল ইসলাম, উপজেলা জনসংহতি সমিতির সাধারণ সম্পদাক মনি শংকর চাকমাসহ বিভিন্ন চেয়ারম্যান ও স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত ১৪৪ ধারা বলবৎ থাকবে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের তালিকা তৈরি কাজ শুরু হয়েছে। আর যাতে কেউ গুজবে কান না দেয় সেই দিকে সকলকে সজাগ দৃষ্টি রাখার অনুরোধ জানানো হয়।

এদিকে সেনাবাহিনী হামলায় জড়িত সন্দেহে তিনজনকে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। এরা হলেন, মো.আবুল খায়ের, মো. সবুজ, মো. শরীফ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন লংগদু থানা ওসি মো. মমিনুল ইসলাম।

প্রসঙ্গত, রাঙামাটির লংগদু উপজেলার ৭নং ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো: নুরুল ইসলাম নয়ন (৩৫) কে বৃহস্পতিবার দুপুরে খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার চার মাইল এলাকা থেকে মৃত উদ্ধার করা হয। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার সকালে বাইট্টাপাড়া থেকে লংগদু উপজেলা পরিষদে জানাজার জন্য যাওয়ার পথে উত্তেজিত জনতা জনসংহতি সমিতির কার্যালয় ভাঙচুর করে পরে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে উপজেলা প্রশাসন অনির্দিষ্টকালের জন্য ১৪৪ ধারা জারি করে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

লংগদুতে দুর্যোগ বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা

রাঙামাটির লংগদুতে উপজেলা পর্যায়ে ‘দুর্যোগবিষয়ক স্থায়ী আদেশাবলী (এসওডি)-২০১৯’ অবহিতকরণ প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার লংগদু …

৫ comments

  1. কথায় নয় ,দৃশ্যমান ও কার্যকর আইন প্রয়োগ করে দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে এবং শান্তি প্রতিষ্ঠায় সকলকে এক হয়ে কাজ করতে হবে । শান্তি চাই, নিরাপদ জীবনের গ্যারান্টি চাই ।

  2. নিজেরাই দোষ করে অন্যদের কাধে দোষ চাপানোটা নতুন নয়। অনেক আগে থেকেই এটা জাগ্রত….

Leave a Reply

%d bloggers like this: