নীড় পাতা » ব্রেকিং » দু’সপ্তাহেও উৎপাদন শুরু হয়নি কেপিএমে

দু’সপ্তাহেও উৎপাদন শুরু হয়নি কেপিএমে

গ্যাস সরবরাহ বন্ধের কারণে গত ১৬ দিন ধরে বন্ধ রয়েছে রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে অবস্থিত দেশের সর্ববৃহৎ কাগজ কল কর্ণফুলী পেপার মিলস্রে (কেপিএম) উৎপাদন। বছরের প্রথমদিনে প্রধানমন্ত্রী যে বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেন সে বইয়ের কাগজ এই মিলে উৎপাদন হয়। এভাবে মিল বন্ধ থাকায় বছরের প্রথমদিন শিক্ষার্থীরা বই পাওয়া নিয়েও আশঙ্কা প্রকাশ করছে মিল কর্তৃপক্ষ। তবে কবে নাগাদ গ্যাস সংযোগ সচল করা যাবে তা জানাতে পারছে না কর্তৃপক্ষ।

কেপিএম সূত্রে জানা গেছে, গত ০৪ আগস্ট (রোববার) দুপুরে মিলের গ্যাস লাইনের মিটারিং পার্টস বিকল হয়ে পড়ায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধের কারণে মিলের কাগজ উৎপাদন বন্ধ। এ অবস্থায় অলস সময় কাটাচ্ছেন কেপিএমের প্রায় ৮৫০ শ্রমিক ও কর্মকর্তা-কর্মচারী। মিলটিতে বর্তমানে প্রতিদিন কাগজ উৎপাদন সক্ষমতা ১০-১৫ টন। উৎপাদন বন্ধ থাকায় প্রতিদিন ১৫-২০ লাখ টাকা আর্থিক ক্ষতি গুনতে হচ্ছে প্রতিষ্ঠানটিকে। উৎপাদন বন্ধ থাকায় কেপিএমকে বেশ কয়েকটি সরকারি প্রতিষ্ঠানে কাগজের স্বাভাবিক প্রয়োজন মেটাতে বেগ পেতে হবে।

কেপিএমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ড. এমএমএ কাদের বলেন, ‘কেপিএমে গ্যাস সরবরাহ লাইনের মিটারের একটি পার্টস নষ্ট হয়ে গেছে। এ কারণে কারখানায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রয়েছে, কারখানার উৎপাদনও বন্ধ হয়ে গেছে। আমরা গ্যাস সরবরাহ প্রতিষ্ঠান কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি, কিন্তু কখন নাগাদ ঠিক হবে সেই বিষয়ে কোনো কিছুন জানাননি তারা। গ্যাস না থাকায় কাগজ উৎপাদন বন্ধ রয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বছরের প্রথমদিনে প্রধানমন্ত্রী যে বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেন সে বইয়ের কাগজ আমরা সরবরাহ করি। এছাড়া সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিভাগেও আমরা কাগজ সরবরাহ করে থাকি। উৎপাদন বন্ধ থাকায় সে কাগজ সরবরাহে আমাদের বেশ বেগ পেতে হবে। পাশাপাশি প্রতিদিন আর্থিক ক্ষতিও সম্মুখীন হতে হচ্ছে।’

চট্টগ্রাম কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী খায়েজ আহম্মদ মজুমদার জানিয়েছেন, ‘কেপিএম অবস্থিত মিটারিং পাটর্সটি প্রায় ৪০ বছরের পুরনো। যদি মেশিনটি নষ্ট হয়ে যায়, বিদেশ থেকে আনা ছাড়া আর কোনো ব্যবস্থা নেই। তবে কবে নাগাদ গ্যাস সংযোগ সচল হয়, তা বলা যাচ্ছে না।

উল্লেখ্য, গত ২ জুলাই (মঙ্গলবার) রাতে বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার বিস্ফোরণের কারণে আটদিন উৎপাদন বন্ধ থাকে দেশের সর্ববৃহৎ কাগজ কল কর্ণফুলী পেপার মিলের। এ সময় বিদ্যুৎ না থাকায় চরম পানি সংকটে ভুগতে হয় আবাসিক এলাকার বাসিন্দাদের। পার্বত্য জেলা রাঙামাটির কাপ্তাইয়ের চন্দ্রঘোনায় ১৯৫৩ সালে কর্ণফুলী পেপার মিলস লিমিটেড স্থাপিত হয়। পাঁচ একর জমিতে এটি স্থাপন করে তৎকালীন পাকিন্তান শিল্প উন্নয়ন সংস্থা। প্রতিষ্ঠার সময় মিলটির বার্ষিক কাগজ উৎপাদন ক্ষমতা ছিল ৩০ হাজার টন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণ চেষ্টা, যুবক গ্রেফতার

রাঙামাটিতে বুদ্ধি ও শারিরীক প্রতিবন্ধী এক নারীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। …

Leave a Reply