নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » দীঘিনালায় ২৫টি কেন্দ্রের ২৩টি ঝুঁকিপূর্ণ!

দীঘিনালায় ২৫টি কেন্দ্রের ২৩টি ঝুঁকিপূর্ণ!

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় নির্বাচনকে ঘিরে বিশেষ অভিযান শুরু করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। বিভিন্ন পয়েন্টে নিরাপত্তা চৌকি বসিয়ে তল্লাশি অভিযান চালানো হচ্ছে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে তিনটি অস্ত্রসহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী,জাল টাকাসহ আটক হয়েছে আরো দুইজন। এছাড়াও উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের ২৫টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ২৩টি কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চি‎িহ্নত করেছে প্রশাসন। পাঁচ নম্বর বাবুছড়া ইউনিয়নের ভারতীয় সীমান্তবর্তী নাড়াইছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নির্বাচনী সরঞ্জাম যাবে হেলিকপ্টারে। দীঘিনালা উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের ৩৪ হাজার ১২৮ জন আর নারী ৩১ হাজার ৭৪১ জনসহ মোট ৬৫ হাজার ৮৬৯ জন ভোটার রয়েছে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্র জানিয়েছে,সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে কোন নাশকতা কর্মকান্ড যেন চালাতে না পারে সেজন্য বিশেষ অভিযান শুরু করা হয়েছে। ২২ ডিসেম্বর উপজেলা সদরের হর্টিকালচার সেন্টারে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা গোপন বৈঠকে বসলে সেখানে পুলিশ অভিযান চালিয়ে একটি দেশীয় তৈরী এলজি উদ্ধার করে। ২৩ ডিসেম্বর উপজেলার পোমাংপাড়া রাবার বাগান এলাকায় অভিযান চালিয়ে একটি দেশীয় তৈরী বন্দুক ও দুইটি গুলি উদ্ধার করে। ২৯ ডিসেম্বর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী উপজেলার চংড়াছড়ি এলাকায় নিরাপত্তা চকি বসিয়ে তল্লাশী চালানোর সময় উপজেলা সদর দিকে সীমান্তবর্তী দাঙ্গাবাজার এলাকায় যাওয়ার পথে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার লাইল্যাঘোনা গ্রামের মৃত সুভাষ কান্তি চাকমার ছেলে তংগু মনি চাকমা(৩৩)কে একটি ইতালীর তৈরী পিস্তল,দুইটি খালি ম্যাগজিন,একটি তাজা গুলি ও চাঁদা আদায়ের রসিদ বইসহ এবং খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার মধুপুর এলাকার শিখি দাস বাবুর ছেলে তাপস খীসা(২৫)কে আটক করা হয়। ২৬ ডিসেম্বর পুলিশ অভিযান চালিয়ে উপজেলার বাস টার্মিনাল থেকে বাঘাইছড়ি উপজেলার মাচালং উজানছড়ি গ্রামের চৌধুরী ত্রিপুরার ছেলে ধরেন্দ্র ত্রিপুরা(৩৩) ও একই এলাকার সোনা রতন ত্রিপুরার ছেলে মহেন্দ্র ত্রিপুরা(৪২ কে এক হাজার টাকা মানের ৬৫ হাজার টাকার জালনোটসহ আটক করে।

অপরদিকে প্রশাসন সংসদ নির্বাচনে উপজেলার ২৫টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ২৩ টিকেই ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চি‎িহ্নত করেছে। প্রশাসনের কেন্দ্র তালিকা মোতাবেক জানা যায়,এক নম্বর মেরুং ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের মধ্যে ৭টি ঝুঁকিপূর্ণ, ২টি অধিক ঝুঁকিপূর্ণ। দুই নম্বর বোয়ালখালী(সদর)ইউনিয়নের ৪টি কেন্দ্রের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ ১টি,অধিক ঝুঁকিপূর্ণ। তিন নম্বর কবাখালী ইউনিয়নের ৪টি কেন্দ্রের মধ্যে ৩টি ঝুঁকিপূর্ণ,১টি অধিক ঝুঁকিপূর্ণ। চার নম্বর দীঘিনালা ইউনিনের ৩টি কেন্দ্রের মধ্যে ৩টি কেন্দ্রই অধিক ঝুঁকিপূর্ণ। পাঁচ নম্বর বাবুছড়া ইউনিয়নের ৫টি কেন্দ্রের ৫টি কেন্দ্রই অধিক ঝুঁকিপূর্ণ।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সূত্র জানায়,দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৯৮ নম্বর খাগড়াছড়ি আসনে আওয়ামীলীগ,জাতীয় পার্টির পাশাপাশি দুইটি আঞ্চলিক দলের প্রার্থী রয়েছে। বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য পর্যালোচনা করে দূর্গম এলাকার ভোটারা যাতে নিরাপদে ভোট দিতে পারেন। ভোটারদের যাতে কোন দলের পক্ষ থেকে প্রভাবিত,চাপ করতে না পারে সে লক্ষ্যেই প্রশাসন ভোট কেন্দ্রের নিরাপত্তাসহ সার্বিক পরিস্থিতি বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে ভোট কেন্দ্রের তালিকা গুলো নিরুপন করা হয়েছে।

দীঘিনালা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)সাহাদাত হোসেন টিটো বলেন,বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য উপাত্ত ও পূর্বের নির্বাচন গুলোর সাবির্ক পরিস্থিতি এবং বিভিন্ন ঘটনার বিচার বিশ্লেষন বিবেচনা করেই কেন্দ্রের নিরাপত্তার ছক ও তালিকা তৈরি করা হয়েছে। এন ছাড়াও নির্বাচনে কোন প্রকার নাশকতা কর্মকান্ড যাতে চালাতে না পারে সেজন্য এক সপ্তাহ আগে থেকেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সমন্বয়ে অভিযান চালানো হচ্ছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

মাটিরাঙ্গায় পল্লী উদ্যোক্তাদের এসএমই ঋণ বিতরণ

‘করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত পল্লী উদ্যোক্তাদের জন্য এসএমই ঋণ সরকারের মহতী উদ্যোগ’ উল্লেখ করে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলা …

Leave a Reply