নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » দীঘিনালায় ইউপি নির্বাচন: ১২ কেন্দ্র অধিক ঝুঁকিপূর্ণ

দীঘিনালায় ইউপি নির্বাচন: ১২ কেন্দ্র অধিক ঝুঁকিপূর্ণ

খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলায় তিন ইউনিয়নে নির্বাচন হচ্ছে আগামী রোববার। ইউনিয়ন তিনটির ৩৩কেন্দ্রে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ের তালিকা অনুযায়ী জানা গেছে, ৮টি কেন্দ্র ঝুঁকিতে রয়েছে, এছাড়া আরো ১২টি কেন্দ্র অধিক ঝূঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। তবে সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে এসকল কেন্দ্রে পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, নির্বাচন হচ্ছে উপজেলার মেরুং, বোয়ালখালি এবং কবাখালি ইউনিয়নে। মেরুং ইউনিয়নে মোট ১৫টি ভোট কেন্দ্র রয়েছে। এর মধ্যে ৪টি কেন্দ্র দখলের ঝুঁকি রয়েছে। সেগুলো ফুলচান কার্বারি পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, জয়ন্ত মোহন কার্বারি পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, উত্তর রেংকার্য্যা উচ্চ বিদ্যালয় এবং রেংকার্য্যা উচ্চ বিদ্যালয়। এছাড়া আরো ৬টি কেন্দ্রকে অধিক ঝূঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। সেগুলো জামতলি আনসার ভিডিপি ক্লাব, মধ্য বোয়ালখালি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বেতছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, আর এ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ভূইয়াছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং হাজাধন মনি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

বোয়ালখালি ইউনিয়নে ভোট কেন্দ্র রয়েছে ৯টি। এর মধ্যে ৪টিকে অধিক ঝূঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। সেগুলো কাটারুংছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তেভাংছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পোমাং পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং কাঁঠালতলী সুধীর মেম্বার পাড়া উপ-অনুঃ প্রাথমিক বিদ্যালয়।

কবাখালি ইউনিয়নেও ভোট কেন্দ্র ৯টি। এর মধ্যে ৪টি কেন্দ্র দখলের ঝূঁকি রয়েছে। সেগুলো হাচিনসনপুর উচ্চ বিদ্যালয়, হাচিনসনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তারাবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং কবাখালি শান্তিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এছাড়া কবাখালি ইউনিয়ন পরিষদ কেন্দ্রকে অধিক ঝূঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহেনসা লতিফুল খায়ের জানান, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির সার্বিক বিবেচনায় সরকারি বিভিন্ন সংস্থার প্রতিবেদনের ভিত্তিতে ঝূঁকিপূর্ণ কেন্দ্রের তালিকা করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, ভোটারা নির্বিঘেœ ভোট প্রয়োগ করতে পারবেন; সে কারণে পর্যাপ্ত পরিমাণে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মোতায়েনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। অধিক ঝূঁকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। সর্বোপরি শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সার্বিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রাঙামাটিতে যৌথ অভিযানে অস্ত্র-গুলি উদ্ধার

রাঙামাটির বন্দুকভাঙায় সন্ত্রাসীদের আস্তানায় যৌথ বাহিনীর অভিযানে একে-৪৭, বিদেশি পিস্তল, বিপুল সংখ্যক গোলাবারুদসহ নগদ টাকা …

Leave a Reply