নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » দীঘিনালায় ইউপিডিএফের বিরুদ্ধে ৪ মামলা

দীঘিনালায় ইউপিডিএফের বিরুদ্ধে ৪ মামলা

dighinala,-pic,-23-10-2013সোমবার ইউপিডিএফের অবরোধ চলাকালীন প্রধানমন্ত্রীর জনসমাবেশে যোগদানে বাধা, গাড়ি বহরে হামলা এবং লোকজনকে আক্রমন করে আহত করার ঘটনায় দীঘনালা থানায় ৪টি মামলা করা হয়েছে। পুলিশ বাদি হয়ে দায়ের করা প্রত্যেকটি মামলাতে ইউপিডিএফের নেতাকর্মীদের আসামি করা হয়েছে। মামলাগুলোতে ২২ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ পূর্বক অজ্ঞাতনামা আরো ৩৫/৪০ জনকে আসামি করা হয়েছে। বুধবার (১৩/১১/১৩) পুলিশ বাদি হয়ে মামলাগুলো দ্বায়ের করে। দুইটি মামলার বাদী হয়েছেন এসআই এহতেশামুল হক এবং অপর দুইটির বাদী এসআই মোঃ সেলিম বলে পুলিশ সূত্রে জানা যায়।
মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, দীঘিনালা থানার মামলা নং- ২,৩,৪ ও ৫। এর মধ্যে ২ ও ৪ নং মামলার আসামি ২২জন এবং ৩নং মামলায় আসামি করা হয়েছে ১৯ জন এবং ৫নং মামলায় আসামি করা হয়েছে ১১জন। এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, আসামিরা সকলেই আঞ্চলিক পাহাড়ি সংগঠন ইউপিডিএফ ও ইউপিডিএফ সমর্থিত পিসিপি এবং হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সক্রিয় স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী। উল্লেখযোগ্য আসামিরা হলেন- ইউপিডিএফ খাগড়াছড়ির আঞ্চলিক পরিচালক শান্তিদেব চাকমা (৪১), প্রশাসনিক পরিচালক দেবদন্তু ত্রিপুরা (২২), দীঘিনালা পরিচালক মিল্টন চাকমা।

এজাহারে ঘটনার বিবরণে উল্লেখ করা হয়েছে, ১১নভেম্বর সকালে ইউপিডিএফের অবরোধ চলাকালিন সড়কপথে চলাচলকারি লোকজনকে ভয়ভীতি প্রদর্শন, হামলা করলে কর্তব্যরত পুলিশ দায়িত্বপালন করতে গেলে পুলিশের কাজে বাধাদান করা হয়। ৪টি মামলায় যে ৪টি ঘটনাস্থল দেখানো হয়েছে সেগুলো হলো উপজেলার বাবুছড়া মগ্যাপাড়া পাকা রাস্তার উপর, বড়াদম বৌদ্ধপাড়া পাকা রাস্তার উপর, বুদ্ধপাড়া আবহাওয়া অফিস সংলগ্ন পাকা রাস্তার উপর এবং নয়মাইল ত্রিপুরা পাড়াস্থ পাকা রাস্তার উপর। ধারা দেওয়া হয়েছে, ১৪৩/৩৪২/১৮৬/৩৫৩/৫০৬।
দুইটি মামলার বাদী এসআই এহতেশামুল হক জানান, ধারাগুলো হয়েছে- বেআইনি সমাবেশ, গতিরোধ, সরকারী কাজে বাধাদান, আক্রমন, ভয়ভীতি প্রদর্শন এবং হুকুমদান।

এব্যাপরে ইউপিডিএফ দীঘিনালা শাখার সংগঠক কিশোর চাকমা জানান, মামলার আসামিরা সকলেই তাদের দলীয় নেতাকর্মী। তিনি বলেন, ‘শুধু আমাকে বাদ দিয়ে সবাইকে আসামি করা হয়েছে। তবে মামলার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘ঘটনার দিন দীঘিনালা এলাকায় আমাদের কোন কর্মী পিকেটিং করেনি।’ মামলাগুলো হয়রানিমূলক বলেও দাবী করেছেন তিনি।

প্রসঙ্গতঃ ১১ নভেম্বর (সোমবার)খাগড়াছড়ি জনসমাবেশ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেদিন সকাল-সন্ধা সড়ক অবরোধ পালন করে পার্বত্য শান্তিচুক্তি বিরোধি সংগঠন ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক পিপলস ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) সমর্থিত পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি)। এমনকি প্রধানমন্ত্রীর কর্মসূচি বয়কটের ঘোষনা দিয়ে তারা লোকজনকে সমাবেশে না যাওয়ার জন্য বাধা প্রদান করে। বাধা উপেক্ষা করে সমাবেশে যোগদানকারীদের গাড়ি ভাংচুরসহ সমাবেশ থেকে ফেরার পথে হামলাও চালানো হয়। তখন বেশ কিছু লোকজন আহত হওয়ার ঘটনাও ঘটে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

মাটিরাঙ্গায় পল্লী উদ্যোক্তাদের এসএমই ঋণ বিতরণ

‘করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত পল্লী উদ্যোক্তাদের জন্য এসএমই ঋণ সরকারের মহতী উদ্যোগ’ উল্লেখ করে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলা …

Leave a Reply