নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » ‘থব্যুইং আছাং’- এ বর্ণিল মারমা তরুণ-তরুণীরা

‘থব্যুইং আছাং’- এ বর্ণিল মারমা তরুণ-তরুণীরা

sangari-pic-0123সাংগ্রাই বলে কথা, বছরে এমন দিন তো একবারই আসে। তাতে যদি একটু বর্ণিলভাবে সাজা না হয় তাহলে কি হয় ? তাইতো খাগড়াছড়ির মারমা তরুণ তরুণীরা সেজেছে নিজস্ব ঐতিহ্যগত পোষাকে ।
মারমা ভাষায় যাকে “থব্যুইং আছাং” বলা হয়। থব্যুইং অর্থ ঐতিহ্যবাহী বিশেষ পোশাক আর আছাং অর্থ সাজ। উক্ত বর্ণিল সাজ পর্যটকতো বটেই স্থানীয়দেররও নজর কাড়ে। কেউ লাল, কেউ হলুদ কেউবা পড়েছে সবুজ রংয়ের এই পোশাক। সাংগ্রাই উপলক্ষ্যে অনেকদিন আগে থেকেই দলবেধেঁ এই পোশাক তৈরি করিয়েছেন মারমা তরুণ তরুণী।

আর এই “থব্যুইং আছাং” সাংগ্রায়ে সোমবার সকাল থেকে এদিক ওদিক ঘুরে বেড়াতে দেখা যায় তরুন তরুণীদের। তাদের মধ্যে আবার কেউ ভ্যানগাড়ী, কেউবা রিকসা চড়ে শহরজুড়ে সর্বস্তরের মাঝে পানি ছিটিঁয়ে উৎসব ভাগাভাগিতে মেতে উঠেছে।

খাগড়াছড়ির নৃত্য শিল্পী সাচিনু মারমা জানান, আমাদের কৃষ্টি, সংস্কৃতি, ঐতিহ্য আমাদের রক্তে মিশে আছে। আমাদের জনগোষ্টীর পরিচিতি বিশেষ এই পোশাকের মাধ্যমে ফুটে উঠে। তাইতো আমাদের অনুষ্ঠানগুলোতে নিজেদের সংস্কৃতি তুলে ধরার চেষ্টা করি।

এদিকে বিশেষ এই থব্যুইং আচাং এ তরুণ তরুণীরা দলবেধেঁ জলকেলীতে মেতে উঠে। উক্ত জলকেলীতে প্রতিটি দলে ১০ থেকে ১২ জন তরুণ তরুণী থাকে। আর তাদের শরীরে শোভা পায় একই ধরনের বিশেষ এই পোশাক। তাদের এমন সাজে উৎসবে যোগ হয়েছে বিশেষ মাত্রা। এ পোশাক পরেই তারা মেতে উঠবে জলকেলিতে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

নারীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় অবদান রাখবে কিশোরী ক্লাব

রাঙামাটির বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (এনজিও) প্রোগ্রেসিভের বাস্তবায়নে ‘আমাদের জীবন, আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের ভবিষ্যৎ’ এই প্রকল্পের …

Leave a Reply