নীড় পাতা » ব্রেকিং » তবে বিদায়,প্রিয় জেলা প্রশাসক

তবে বিদায়,প্রিয় জেলা প্রশাসক

dc‘ইস, আর কিছুদিন যদি থাকতো, তবে নিশ্চয়ই রাঙামাটি জেলার উন্নয়ন আরো বেশি হতো’। মঙ্গলবার সকালে রাঙামাটির জেলাপ্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে নবনির্মিত অত্যাধুনিক যাত্রী ছাউনি উদ্বোধনকালে পাশে দাঁড়িয়ে থাকা পথচারী ওমর ফারুক আলমগীর এই মন্তব্য করেন। প্রথমবারের মতো টাইলস দ্বরা নির্মিত এই যাত্রী ছাউনীর পাশে দাঁড়িয়ে ওই পথচারী আরো বলেন, ‘জেলা প্রশাসকরাও প্রশাসনিক কাজের পাশাপাশি জেলার উন্নয়নে যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে যেতে পারেন, রাঙামাটির সদ্য বিদায়ী জেলা প্রশাসক মোঃ মোস্তফা কামাল তার বড় উদাহরণ। রাঙামাটিতে আসার পর গত আড়াই বছরে তিনি যেখানেই হাত দিয়েছেন সে জায়গাটি যেন সোনায় ভরে দিয়েছেন।’ রাঙামাটি জেলা প্রশাসককে নিয়ে স্তুতি বা মন্তব্য শুধু আলমগীরেরই নয়, জেলার সবদিকেই সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে প্রশাসনের কর্মকর্তা কর্মচারী সবার মুখেই এমন মন্তব্য শোনা যাচ্ছে গত কয়েকদিন।

রাঙামাটির জেলা প্রশাসক মোঃ মোস্তফা কামাল বুধবার রাঙামাটিতে জেলা প্রশাসক হিসেবে শেষ দিনের অফিস করবেন। তাঁর উত্তরসূরি সামনের দিনগুলোতে রাঙামাটি জেলা প্রশাসনকে নেতৃত্ব দিতে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে আসা সরকারের উপ-সচিব শামসুল আরেফিন তাঁর দায়িত্ব বুঝে নেবেন। একই সাথে বুধবার রাঙামাটি ছাড়বেন রাঙামাটির ইতিহাসে যে কয়েকজন জেলা প্রশাসক রাঙামাটির মানুষের মন কেড়েছেন তার মধ্যে অন্যতম মোঃ মোস্তফা কামাল।

যাওয়ার প্রাক্কালে তিনি বলেছেন, ‘রাঙামাটিকে যারা সত্যিকারের ভালোবাসেন, যারা এখানে শান্তি চায়, তারা যেকোনো দুর্যোগে এগিয়ে আসলে রাঙামাটি জনগণের কোনো সমস্যা হওয়ার কথা নয়।’ তিনি বলেন, আমি যেখানেই থাকি না কেন রাঙামাটির উন্নয়নের জন্য চেষ্টা সবসময় থাকবে।

বুধবার রাঙামাটি ছেড়ে যাবেন ২০১২ সালে মে মাসে যোগদান করা জেলাপ্রশাসক মোঃ মোস্তফা কামাল। তাঁর এই ছেড়ে যাওয়া রাঙামাটির মানুষের হৃদয়ে ক্ষতের সৃষ্টি হলেও সরকারি চাকুরির নিয়মে তাঁকে একদিন চলে যেতেই হবে। তাই কবি গুরুর ভাষায় বলতে হয় ‘যেতে নাহি দিবো হায়, তবু যেতে দিতে হয়।’ বিদায়, প্রিয় জেলা প্রশাসক।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কাপ্তাইয়ে করোনা সংক্রমণ কমছে

প্রশাসনের কঠোর নজরদারি এবং থানা পুলিশের তৎপরতায় রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে করোনা সংক্রমন হার কমছে। কাপ্তাই উপজেলা …

Leave a Reply