ডিসির ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

abdul-aliমুক্তিযুদ্ধের প্রেরণায় শিক্ষার্থীদের উদ্বুদ্ধ করতে জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিন নিজেই বীর মুক্তিযোদ্ধার জীবনীগ্রন্থ শহীদ আবদুল আলী একাডেমির সহ¯্রাধিক শিক্ষার্থীদের উপহার দিয়েছিলেন। সাংবাদিক ইয়াছিন রানা সোহেল প্রণীত ‘মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের অকুতোভয় বীর শহীদ এম আবদুল আলী’ নামক বইটি জেলা প্রশাসকের কাছ থেকে উপহার পেয়ে যখন শিক্ষার্থীরা উৎফুল্ল আর উচ্ছ্বসিত। তখন জেলা প্রশাসক নিজেই পুরস্কার ঘোষনা করলেন তাদের জন্য। ভালো করে বইটি পড়ে মেধা যাচাই করা হবে শিক্ষার্থীদের। আর প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের দেয়া হবে পুরস্কার। তিনি চার মাস আগে শিক্ষার্থীদের দেয়া কথা ভুলে যাননি। আর তাইতো আবারো ছুটে এসেছেন শিক্ষার্থীদের মাঝে। মেধা যাছাইয়ে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিলেন ক্রেস্ট।

মুক্তিযদ্ধের এই বীরের বইটি পড়লে রাঙামাটি মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানবে শিক্ষার্থীরা আর দেশ প্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে উঠবে তারা। মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানানোর জন্য রাঙামাটি জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে মেধা যাচাই প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হয়।

বুধবার সকালে শহীদ আবদুল আলী একাডেমির ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত সহস্রাধিক ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে দুই গ্রুপে এই মেধা যাচাই পরীক্ষা নেয়া হয়। আর মেধা যাচাই পরীক্ষার সময় প্রতিটি ক্লাস রুমে গিয়ে পরিদর্শন করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রাফিকুজ্জামান, প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম চৌধুরী, পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ ছাওয়াল উদ্দিন ও বইয়ের লেখক ইয়াছিন রানা সোহেল।

প্রতিযোগিতা শেষে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিন। এসময় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো: রাফিকুজ্জামান, শহীদ আবদুল আলী একাডেমি’র প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম চৌধুরী, স্কুল পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি মো: ছাওয়াল উদ্দিন, অভিভাবক সদস্য মোঃ নাছির উদ্দিন এবং বইটির লেখক সাংবাদিক ইয়াছিন রানা সোহেল। শেষে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিন।

এসময় শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানলে দেশ প্রেম বাড়বে, দেশের প্রতি দরদ বাড়বে। আর সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে পারবে। আগামীতেও এই ধরনের আয়োজনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের পুরস্কৃত করারও ঘোষণা দেন তিনি।

প্রতিযোগিতায় ‘ক’ বিভাগে ( ৬ষ্ট-৮ম) ১ম স্থান অধিকার করেন ৮ম শ্রেণির অহিদুল ইসলাম, ২য় স্থান অধিকার করে ৭ম শ্রেণির ফয়সাল উদ্দিন, ৩য় স্থান অধিকার করে ৭ম শ্রেণির জান্নাতুল ফেরদৌস। ‘খ’ বিভাগে ( ৯ম-১০ম) ১ম স্থান অধিকার করে ৯ম শ্রেণি মানবিকের অপু চন্দ্র দাশ, ২য় স্থান অধিকার করে ৯ম শ্রেণি ব্যবসায় শিক্ষার তুষার আহমেদ, ৩য় স্থান করে ১০ম শ্রেণি মানবিকের পেয়ারা আক্তার। স্কুল পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ ছাওয়াল উদ্দিন এই মেধা যাচাই পরীক্ষায় শ্রেণি অনুযায়ী বিজয়ীদের পুরস্কার দেয়ার ঘোষনা দেন।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কারাতে ফেডারেশনের ব্ল্যাক বেল্ট প্রাপ্তদের সংবর্ধনা

বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশন হতে ২০২১ সালে ব্ল্যাক বেল্ট বিজয়ী রাঙামাটির কারাতে খেলোয়াড়দের সংবধর্না দিয়েছে রাঙামাটি …

Leave a Reply