টিএন্ডটি কর্মকর্তার উপর সন্ত্রাসী হামলা

BTCLইয়াবা নাটক করে কাউখালী টিএন্ডটির এক কর্মকর্তাকে বেদড়ক পিটিয়ে আহত করেছে একদল সন্ত্রাসী। এ হামলার শিকার কাউখালী টেলিফোন এ্যাকচেঞ্জের ইনচার্জ অনিল বড়ুয়া (৫৫)। শুধুমাত্র পিটিয়েই ক্ষান্ত হয়নি সন্ত্রাসীরা হাঁটুর উপরে গরম পানি দিয়ে ছ্যাঁকা দিয়েছে। এসময় তার কাছ থেকে এক লাখ টাকা দাবি করে অন্যথায় ইয়াবা ট্যাবলেট দিয়ে পুলিশে ধরিয়ে দেয়ার হুমকি দেয়। এছাড়াও সন্ত্রাসীরা তার হাতে অস্ত্র দিয়ে ছবি তুলে। আরো বলে ‘যদি টাকা না দিস তবে এই ছবি পেপারে ছাপিয়ে দিবো’।

রবিবার সকাল নয়টায় কাউখালী-রানীরহাট সড়কের সেগুন বাগান এলাকা থেকে কৌশলে মোটর সাইকেল আরোহি চারজন যুবক তুলে নিয়ে যায় অনিলকে। এরপর রাঙ্গুনিয়ার রানীরহাট বাজার ফেরদৌস মার্কেটে নিয়ে গিয়ে বেদড়ক পেটায় অনিলকে।

উপায়ন্তর না দেখে অনিল বড়ুয়া তার এক আত্মীয়কে মোবাইলে বিষয়টি অবহিত করলে তাৎক্ষনিক বিকাশের মাধ্যমে বিশ হাজার টাকা পরিশোধ করে ছাড়া পায়।

দুপুরে রাঙামাটি টিএন্ডটির বিভাগীয় কার্যালয়ে এসে টিএন্ডটির উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং উপস্থিত সাংবাদিকদের তার উপর হামলার বর্নণা দেন। অনিল বড়ুয়া জানায়, তাকে লোহার রড ও বেত দিয়ে পেটায় সন্ত্রাসীরা। তার ব্যাগের মধ্যে ইয়াবা ঢুকিয়ে দিয়ে বলে, ‘তুই ইয়াবার ব্যবসা করছ, তোকে পুলিশে ধরিয়ে দিবো’। এসময় তার হাতে একটি অস্ত্র ধরিয়ে দিয়ে ছবিও তোলা হয় বলে অনিল জানায়।

রাঙামাটি টিএন্ডটির সহকারী প্রকৌশলী মোঃ ওমর খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানায়, উর্ধ্বতন কর্র্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, অনিল বড়ুয়া রাঙ্গুনিয়া থেকে হোসেন ড্রাইভারের সিএনজি অটোরিক্সা করে কাউখালী যাওয়ার পথে কাউখালী-রানীরহাট সড়কের খামারবাড়ী ব্রীজ অতিক্রম করার পর পিছন থেকে দুইটি মোটর সাইকেল তাদের সিএনজির গতিরোধ করে। ঐ মোটরসাইকেলে গোদারপাড়া এলাকার জনৈক আনু ড্রাইভারের ছেলে আবু সুফিয়ান আবু এবং কাউখালীর টিএন্ডটি এলাকার জনৈক রাহুল ছিল। তারা সিএনজি অটোরিক্সা থেকে অনিল বড়ুয়ার নিকট ইয়াবা ট্যাবলেট আছে বলে তাকে মোটর সাইকেলে উঠিয়ে রানীরহাটস্থ ফেরদৌস মার্কেট এলাকায় নিয়ে যায়। একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করেছে, রানীরহাট এলাকার সন্ত্রাসী তৌহিদুলের প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। প্রায় প্রতিদিনই রানীরহাটের এসব সন্ত্রাসীরা এই ধরনের কাজ করে বলে সূত্র জানায়।

রাঙ্গুনীয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার সামশুল আলম জানান, কাউখালী-রানীরহাট সড়কে যারা সন্ত্রাসী কার্যকলাপ করছে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া জরুরী। তিনি এসব সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে সন্মিলিতভাবে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

এদিকে কাউখালী থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) আবদুল করিমকে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করে এবং খুদে বার্তা(এসএমএস) দিয়েও তার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

তবে টিএ্যান্ডটি সিবিএ সাধারন সম্পাদক আবদুর রউফ জানান, অনিল প্রাণের ভয়ে মামলা করতে রাজি হচ্ছে না। তবে টিএ্যান্ডটির নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে বসে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

কারাতে ফেডারেশনের ব্ল্যাক বেল্ট প্রাপ্তদের সংবর্ধনা

বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশন হতে ২০২১ সালে ব্ল্যাক বেল্ট বিজয়ী রাঙামাটির কারাতে খেলোয়াড়দের সংবধর্না দিয়েছে রাঙামাটি …

Leave a Reply