নীড় পাতা » ফিচার » অরণ্যসুন্দরী » ঝুলন্ত সেতুর শহরটাই যেন ঝুলন্ত!

ঝুলন্ত সেতুর শহরটাই যেন ঝুলন্ত!

rangamati-bridgeপ্রাকৃতিক সৌন্দর্যের রাণী রাঙামাটি জেলা পর্যটকদের কাছে একটি আকর্ষণীয় স্থান। প্রতিদিন এ শহরে অগণিত পর্যটক প্রকৃতির রূপসুধা পান করার জন্য বেড়াতে আসে। পর্যটকদের আকর্ষণের কেন্দুবিন্দু থাকে ঝুলন্ত সেতু। পর্যটন কর্পোরেশনের করা রাঙামাটির পর্যটন সেতু দেশে বিদেশে প্রসিদ্ধ । দু’টি আকর্ষণীয় পাহাড়ের ঝুলন্ত এ সেতু যেন নতুন এক সেতুবন্ধন তৈরি করে মায়াবী পরিবেশ তৈরী করেছে।
কিন্তু পর্যটকদের চোখে যেন ফুটে উঠে পুরো রাঙামাটি শহরটাই ঝুলন্ত। কাপ্তাই হ্রদের বাঁকে বাঁকে গড়ে উঠা এই শহরের সৌন্দর্য পর্যটকদের যে ভাবে আকর্ষণ করে, সেভাবেই ভাবিয়ে তোলে অধিবাসীদের নিরাপত্তা নিয়ে। হ্রদের স্বচ্ছ জলের বুকচিরে নৌকা ভ্রমণের সময় তাদের চোখে ফুটে ওঠে পুরো শহরের সকল বসতিই যে ঝুলে আছে নিদারুণ দৈন্যতায়। রাঙামাটি শহরের বেশিরভাগ ঘরবাড়ি বাঁশ বা ইট সিমেন্টের খুটিতে ভর করে হ্রদ অভ্যন্তরে এমনভাবে ঝুলে রয়েছে যে দেখলে মনে হয় পুরো শহরটাই ঝুলন্ত। শহর ঘুরে দেখা গেছে, হ্রদের তীর ঘেঁষে কিংবা মূল সড়কের পাশে হ্রদের উপরে অগণিত ঘরবাড়িসহ ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। রিজার্ভ বাজার, তবলছড়ি, কাঁঠালতলী, বনরূপা, কালিন্দীপুর ও রাজবাড়ীসহ পুরো শহরেই হ্রদের তীরবর্তী স্থানে খুঁটির উপরে ঘরবাড়ি সহ বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান গড়ে ঊঠলেও এসব নিয়ন্ত্রণের যেনো কোন নীতিমালা নেই। হ্রদের জায়গা বেদখল হওয়ায় সাম্প্রতিক সময়ে পানির উচ্চতা দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। যে কারণে কাপ্তাই হ্রদের রুল কার্ভ অনুসারে পানির স্তর সর্বোচ্চ ১০৯ এমএসএল নিরাপদ ধরা হলেও, পানির উচ্চতা একশ’ দুই অতিক্রম করার সাথে সাথে রাঙামাটি শহরের বাড়িঘর পানিতে নিমজ্জিত হয়ে পড়ে। এতে যেমন দুর্গত পরিবেশ তৈরী হয় তেমনি মানুষের নিরাপত্তাও শঙ্কার মাঝে থাকে। শহর এলাকায় পাহাড়ের পাদদেশে যেসব ঘরবাড়ি রয়েছে সেগুলোও প্রবল বৃষ্টিপাতের সময় পাহাড়ি ধ্বসের ঝুঁকিতে থাকে, এতে যেকোনো সময় প্রাণহানি ঘটারও সম্ভাবনা রয়েছে। এ বিষয়ে বিভিন্ন সময় প্রশাসন হতে বিভিন্ন সতর্কতামূলক আদেশ জারি করা হলেও ভূমিদস্যূদের লোভের কাছে এসব শুকনো কথা ইথারে হারিয়ে যায়।
পর্যটন শহর রাঙামাটির সৌন্দর্য্য আরো আকর্ষণীয় করে তুলতে এবং মানুষের জান মালের ঝুঁকি কমাতে সংশ্লিষ্ট কর্তপক্ষগুলো আশু ও কার্যকর পদক্ষেপ নিতে এগিয়ে আসবেন এ কামনা করেছেন শহরের সচেতন মহল।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বাদুড়ের অভয়ারণ্য: বান্দরবান জেলা প্রশাসক প্রাঙ্গণ

বান্দরবান জেলা প্রশাসকের কার্যালয় প্রাঙ্গণের সেগুন গাছটি যেন বাদুড়ের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। বহু বছরের পুরানো …

Leave a Reply