নীড় পাতা » খাগড়াছড়ি » জেএসএস’র ‘ঘাঁটি’তে এমএন লারমাপন্থী জেএসএস’র কমিটি

রাঙামাটি সদর উপজেলা

জেএসএস’র ‘ঘাঁটি’তে এমএন লারমাপন্থী জেএসএস’র কমিটি

পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (এমএন লারমা) গঠনের প্রায় দশ বছর পরে এই প্রথম রাঙামাটি সদর উপজেলার কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই কাউন্সিলে পূর্ণাঙ্গ কমিটিও গঠন করা হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, সন্তু লারমার নেতৃত্বে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) একাংশ সরে গিয়ে ২০১০ সালের ১০ এপ্রিল পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (এমএন লারমা) নামে নতুন সংগঠনের আত্মপ্রকাশ করা হয়। সেদিন দীঘিনালার বড়াদম উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তিন পার্বত্য জেলার কয়েক হাজার নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে কেন্দ্রীয় কমিটি গঠন করা হয়। এর পর বিগত ১০ বছরেও সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জেএসএস’র ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত রাঙামাটি সদর উপজেলায় জনসংহতি সমিতি (এমএন লারমা) কমিটি গঠন করতে পারেনি।

কিন্তু সম্প্রতি রাঙামাটি জেলা সদরেও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (এমএন লারমা) কর্মীদের আসা যাওয়া এবং অবস্থান নিয়ে গুঞ্জন রয়েছে পাহাড়ের বিভিন্ন আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠনের মধ্যে। এমন সময়ে সংগঠনের পক্ষ্য থেকে গঠন করা হলো রাঙামাটি সদর উপজেলা কমিটি। তবে কমিটি গঠন উপলক্ষে এবারের কাউন্সিলও অনুষ্ঠিত হয়ে দীঘিনালাতে।

গত শনিবার দীঘিনালা উপজেলা জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের রাঙামটি জেলা কমিটির সহ-সভাপতি রাজেন্দ্রলাল চাকমা। প্রধান অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য প্রীতিময় চাকমা। এছাড়া বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নরেজ চাকমা, রাঙামাটি জেলা কমিটির সভাপতি চিত্র বিকাশ চাকমা, দীঘিনালা উপজেলা কমিটির সদস্য সমীর চাকমা, উপজেলা যুব সমিতির সভাপতি সোনামনি চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রাজ্যময় চাকমা প্রমুখ।

দীঘিনালা উপজেলা জনসংহতি সমিতির (এমএনলারমা) সভাপতি মৃণাল কান্তি চাকমা জানান, কৌশলগত কারণে কাউন্সিল দীঘিনালায় করা হয়েছে। কাউন্সিলে সমীরন চাকমাকে সভাপতি, পূর্নাঙ্গ চাকমাকে সাধারণ সম্পাদক এবং প্রমেশ চাকমাকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ১৯ সদস্য বিশিষ্ট পূর্নাঙ্গ কমিটি করা হয়েছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধীতার প্রতিবাদ রাঙামাটিতে

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধীতার নামে ‘উগ্রমৌলবাদ ও ধর্মান্ধগোষ্ঠীর জনমনে বিভ্রান্তির …

Leave a Reply