নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » জামায়াত শিবিরের তান্ডবে অবরুদ্ধ বান্দরবান

জামায়াত শিবিরের তান্ডবে অবরুদ্ধ বান্দরবান

Bandarban-Oborod-PiC_1ছোট-বড় গাছের গুড়ি ফেলে বান্দরবান-চট্টগ্রাম সড়ক অবরোধ করে রেখেছে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। প্রধান সড়ক বন্ধ করে রাখায় সম্পূর্ণ অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে বান্দরবানবাসী। রোববার নির্বাচনী তফসিল বাতিল এবং কেন্দ্রীয় নেতাদের মুক্তির দাবীতে বান্দরবান-চট্টগ্রাম প্রধান সড়কের হলুদিয়া, বাজালিয়াসহ কয়েকটি স্থানে রাস্তায় টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে এবং সড়কের উপর ছোট-বড় অনেকগুলো গাছ কেটে ফেলে রেখে সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। এসময় কয়েকটি সিএনজি, অটোরিক্সাও ভাংচুর করে অবরোধকারীরা। অবরোধকারীদের জোরালো পিকেটিং এর কারণে রোগী নিয়েও চট্টগ্রাম যেতে পারছে না স্থানীয় বাসিন্দাররা। জামায়াত-শিবিরের তান্ডবে সম্পূর্ন অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে বান্দরবানের কয়েক লক্ষাধিক মানুষ। অথচ এই কদিন পাহাড়ি এই শহরে শান্তিপূর্ণভাবেই পালিত হয়ে আসছিলো বিরোধীজোটের অবরোধ।

এদিকে অবরোধ কর্মসূচী সফল করতে বান্দরবানে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির উপজাতীয় বিষয়ক সম্পাদক মাম্যাচিং এর নেতৃত্বে স্বেচ্ছাসেবক দল, যুবদল, ছাত্রদল, মহিলাদলসহ বিএনপির একাংশের নেতাকর্মীরা জেলা শহরের বাসস্টেশনসহ আশপাশের এলাকাগুলোতে অবস্থান নেয়। অপরদিকে বাসস্টেশনের অপরপ্রান্তে জেলা বিএনপির সভাপতি সাচিংপ্রু জেরীর নেতৃত্বে ১৮ দলীয় জোটের নেতাকর্মীরাও পৃথকভাবে অবস্থান নেয়। এসময় দুগ্রুপের নেতাকর্মীরা শহরে খন্ডখন্ড মিছিল করেছে।

অবরোধের কারণে বান্দরবান-চট্টগ্রামসহ অভ্যন্তরিন সবগুলো রুটে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। শহর ছেড়ে যায়নি দুরপাল্লার কোনো যানবাহনও। তবে জেলা শহরে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। নাশকতা এড়াতে বান্দরবান শহরসহ আশপাশের এলাকাগুলোতে অতিরিক্ত পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ আহম্মেদ জানান, অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। নাশকতা সৃষ্টির চেষ্টাকারিদের ছাড় দেয়া হবে না।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

করোনায় কমেছে স্থানীয় পণ্যের চাহিদা

বছরের পর বছর ধরে পূর্বের ঐতিহ্য ধরে রাখতে বাঁশের তৈরি হস্তশিল্প, তাঁতের তৈরি থামি, চাদর …

Leave a Reply