নীড় পাতা » ব্রেকিং » ‘জামাতে ইসলাম যেমন ‘ইসলাম’ নয়, তেমনি জনসংহতি সমিতিও পাহাড়ীদের সংগঠন নয়’

‘জামাতে ইসলাম যেমন ‘ইসলাম’ নয়, তেমনি জনসংহতি সমিতিও পাহাড়ীদের সংগঠন নয়’

dipankar-01‘আওয়ামীলীগ সরকার শান্তি চুক্তি সাক্ষর ও তার বাস্তবায়নের মাধ্যমে পার্বত্য অঞ্চলের পিছিয়ে পড়া মানুষের অধিকার নিশ্চিত করার জন্য সবার আগে এগিয়ে এসেছে। আওয়ামীলীগ আছে বলে জেএসএস কথা বলতে পারছে, না হয় তারা কোন দিনও কথা বলার সুযোগ পেত না। শান্তি চুক্তি কোন এক নিদিষ্ট ধর্ম বা জাতির কথা বলে না, শান্তি চুক্তি সকল ধর্ম, বর্ণ, উপজাতি-অ উপজাতির অধিকারের কথা বলে। এই শান্তি চুক্তি নিয়ে যারা বিভিন্ন ষড়যন্ত্র করছে তারা হলো জনসংহতি সমিতি। তারা দাবি করে তারা জুম্ম জনগণের পক্ষে কথা বলে, আসলে জামাতে ইসলাম যেমন ইসলাম নয় ঠিক তেমনি জনসংহতিও পাহাড়ী জনগণের সংগঠন নয়।’
বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ রাঙামাটি সদর উপজেলা শাখা ও অঙ্গ সংগঠনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় রাঙামাটি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এবং পার্বত্য বিষয়ক মন্ত্রাণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার এসব কথা বলেন।
শনিবার সকালে রাঙামাটি সদরের বালুখালি ইউনিয়নের সাপমারা পাড়া প্রাইমারি স্কুল প্রাঙ্গণে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) হৃদয় বিকাশ চাকমার সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক সাধন মনি চাকমার পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন বাবুল, জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ও রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল মাওলা, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমা, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নজরুল ইসলামসহ সদর আওয়ামীলীগের বিভিন্ন ইউনিয়ন ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে দীপংকর তালুকদার আরো বলেন, জিয়াউর রহমান জানতেন যে, ১৫ আগস্ট শেখ মজিবুরের উপর হামলা হতে পারে। কিন্তু তিনি জেনেও চুপ করে ছিলেন। তার এই নিরবতার জন্য খুনিরা জাতির জনককে তারা হত্যা করতে সফল হয়েছিলো। ইতিহাসের এই অধ্যায় কালো অধ্যায় সে দিনই রচিত হয়েছিলো। এছাড়া বিএনপি এত কিছুর পরেও ক্ষমা না চেয়ে এই দিনে দেশের জাতির সাথে প্রতারণার করার জন্য ভুল জন্মদিন পালন করতে শুরু করেছে। আজ যখন তারা নিজেদের সেই অন্যায় বুঝতে পেরেছে তখন জাতীয় ঐক্যর নামে জন্মদিন পালন করবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে। তাদের এই কর্মকান্ডও প্রতারণার অংশ।
‘আওয়ামীলীগ বেঁচে থাকলে জনসংহতি সমিতিও বেঁচে থাকবে’ এমন মন্তব্য করে তিনি আরো বলেন, জনসংহতি সমিতির সদস্যরা পাহাড়ে পাহাড়ে ঘুরে বেড়াত। তাদেরকে সভ্য করার জন্য আওয়ামীলীগ সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো বলে তারা আজ উন্নত অভিজাত জীবন যাপন করছে। কিন্তু তারা এখন আওয়ামীলীগের অবদানই ভুলে গেছে।’

তিনি, জনসংহতির সমিতির প্রতি পাহাড়ের উন্নয়ন কাজের বিরোধীতা  ও চাঁদাবাজি বন্ধ করার আহ্বান জানান।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জুরাছড়িতে গুলিতে নিহত কার্বারির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন

রাঙামাটির জুরাছড়ি উপজেলায় স্থানীয় এক কার্বারিকে (গ্রামপ্রধান) গুলি করে হত্যা করেছে অজ্ঞাত বন্দুকধারী সন্ত্রাসীরা। রোববার …

১৮ comments

  1. শুয়োরের বাচ্চা দিপংকর তোমার মতো খানকির পুত অকৃতজ্ঞ জিবনে দেখিনি। জেএসএস এর কারনে তুমি মন্ত্রি হয়েছিলে আর সেই সুযোগটা কাজে লাগিয়ে দুর্নীতি করে আজ অঢেল সম্পত্তির মালিক হয়েছ সেই দুর্নীতির ফল তোমাকে একদিন পেতে হবে খানকির পুত দীপংকর

  2. শুয়োরের বাচ্চা দিপংকর তোমার মতো খানকির পুত অকৃতজ্ঞ জিবনে দেখিনি। জেএসএস এর কারনে তুমি মন্ত্রি হয়েছিলে আর সেই সুযোগটা কাজে লাগিয়ে দুর্নীতি করে আজ অঢেল সম্পত্তির মালিক হয়েছ সেই দুর্নীতির ফল তোমাকে একদিন পেতে হবে খানকির পুত দীপংকর

  3. এই বক্তব্য সকলের অনধাবন করা উচিৎ।

  4. জনসংহতি সমিতি জুম্ম জাতির অধিকার কথা বলে। আত্ননিয়ন্ত্রণ অধিকারের একমাত্র সংগঠন জনসংহতি সমিতি। জুম্ম জাতির মুক্তির সংগঠন। জামাতে ইসলাম সাথে কোন মা,,,,,দা,,,,,রি,,,,,তোলনা করলো???

  5. ভিত্তিহীন মন্তব্য কোন কাজে আসবে না।

  6. জনসংহতি সমিতিকে নিয়ে যারা ভিত্তিহীণ সংবাদ প্রচার করবে তাদেরকে বরশি দিয়ে টেনে তুলে পার্বত্য মাটিতে আছাড় মারবো। যাতে আর ভিত্তিহীণ সংবাদ মন গড়ানো বক্তব্য প্রচার করতে না পারে।

  7. J S S is militants and terrorist group in CHT not political party. Its main object collect money from marginal level people of indegenoous and setteller

  8. আমরা সেটেলার বাঙ্গালিরা খুবই খারাপ। আমরা পাহাড়িদের জায়গা জমি দখল করি ওদের সহজ সরল মনকে ধোকা দিয়ে ওদেরকে ঠকিয়ে ফেলি।

Leave a Reply

%d bloggers like this: