নীড় পাতা » ব্রেকিং » জাপানে কর্মসংস্থানের লক্ষে রাঙামাটিতে সভা

জাপানে কর্মসংস্থানের লক্ষে রাঙামাটিতে সভা

পার্বত্য জেলার শিক্ষিত বেকার যুবকদের প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে দক্ষ করে জাপানে কর্মসংস্থানের লক্ষে রাঙামাটিতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সভা কক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়। জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো’র উদ্যোগে ইউনিভার্সেল মেডিকেল এন্ড টেকনিক্যাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট বিনামূল্যে এই প্রশিক্ষণ প্রদান করবে।

আলোচনা সভায় পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সালমা আক্তার জাহান, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, ইউনিভার্সেল মেডিকেল এন্ড টেকনিক্যাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রীতি চক্রবর্তী, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য সাথোয়াই প্রু মারমা, পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদ, পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা দাউদ হোসেন চৌধুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আব্দুল আউয়ালসহ জেলার গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় ইউনিভার্সেল মেডিকেল এন্ড টেকনিক্যাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রীতি চক্রবর্তী জানান, জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো এবং ইউনিভার্সেল মেডিকেল এন্ড টেকনিক্যাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট “কেয়ারগিভার” প্রোগ্রামটির মাধ্যমে জাপানে দক্ষ জনবল প্রেরণের লক্ষ্যে সারাদেশের ন্যায় তিন পার্বত্য জেলা থেকেও শিক্ষিত বেকার যুবদের জাপানি ভাষা ও নার্সিং, মেডিকেল টেকনোলজির ওপর দক্ষ করে সরকারিভাবে জাপানে চাকুরী পাওয়ার নিশ্চয়তা দেবে। তাই যে সকল আগ্রহী বেকার যুব রয়েছে তাদের বিনামূল্যে ইউনিভার্সেল মেডিকেল এন্ড টেকনিক্যাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট হতে নার্সিং, মেডিকেল টেকনোলজির ওপর প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। কোর্সটি সম্পন্ন হলে জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো সরকারি খরচে সেই প্রশিক্ষিত কর্মীকে জাপানে প্রেরণ করবে। জাপানে প্রশিক্ষিত কর্মীর বেতন বাংলাদেশের অর্থ অনুসারে প্রায় দেড়লক্ষ টাকা পাবে। তিনি বলেন, একজন প্রশিক্ষিত কর্মী বছরে একবার দেশে আসার সুযোগ পাবে এবং ৫বছর যদি নিষ্ঠার সাথে জাপানে কাজ করে থাকে তাহলে সিটিজেনশিপ পাবে এবং পরবর্তীতে দেশ থেকে পরিবার নিয়ে সেখানে বসবাস করতে পারবে। তিনি এ প্রশিক্ষণকে আরো সহজতর করতে জেলার টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারে (টিটিসি)তে প্রদত্ত জাপানি ভাষার ওপর দেওয়া কোর্সটি সম্পন্ন করে তার ইনস্টিটিউটে যাওয়ারও পরামর্শ দেন। তিনি এ বিষয়ে পার্বত্য মন্ত্রণালয় ও পার্বত্য জেলা পরিষদের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন।

অনুষ্ঠানে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেন, জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো এবং ইউনিভার্সেল মেডিকেল এন্ড টেকনিক্যাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট যে মহৎ উদ্যোগটি গ্রহণ করেছে তাতে করে এখানকার অনেক বেকার যুবরা জাপানে যাওয়ার সুযোগ পাবে। তিনি এ বিষয়ে পরিষদ হতে সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন এবং এ বিষয়টি জেলা উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকায় ছড়িতে দিতে উপস্থিত প্রতিষ্ঠান প্রধানদের আহ্বান জানান।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

এমন ঈদ কখনোই দেখেনি আলীকদমের মানুষ

দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনার পর এল খুশির ঈদ। তবে এবছর ঈদ এলেও বান্দরবানের আলীকদম …

Leave a Reply