নীড় পাতা » খেলার মাঠ » চ্যাম্পিয়ন রিজেন্সি স্পোটিং

চ্যাম্পিয়ন রিজেন্সি স্পোটিং

footballরাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ অনুর্ধ ১৬ গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে রিজেন্সি স্পোটিং ক্লাব চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। বুধবার বিকেলে রাঙামাটি চিং হ্লা মং মারী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় রিজেন্সি স্পোটিং ক্লাব ২-০ গোলে শাপলা যুব সংঘকে পরাজিত করে গোল্ডকাপ জিতে নেয়।

জাতীয় সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে চ্যাম্পিয়ন ও রানার আপ দলের হাতে ট্রফি তুলে দেন। এসময় তিনি চ্যাম্পিয়ন দলকে নগদ ৩০ হাজার ও রানার আপ দলকে ২৫ হাজার টাকা প্রাইজ মানি তুলে দেন।

বিকাল সাড়ে ৩ টায় ফাইনাল খেলা শুরু হলে রিজেন্সি স্পোটিং ক্লাব ও শাপলা যুব সংঘ তীব্র প্রতিদ্বন্ধিতা গড়ে খেলাকে উপভোগ্য করে তোলে। খেলার প্রথমার্ধের শেষ মূহুর্তে রিজেন্সির ক্লাবের ১০ নং জার্সিধারী নিখিল ত্রিপুরা ম্যাচের প্রথম গোলটি করেন। দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরু হলে শাপলা যুব সংঘ গোল পরিশোধের জন্য মরিয়া হয়ে উঠলেও গোলের কোন দেখা পায়নি। রিজেন্সি ক্লাবের মনির হোসেন দ্বিতীয়ার্ধের ৩০ মিনিটের মাথায় আরো একটি গোল করে দলকে এগিয়ে নেয় । নির্ধারিত সময়ে খেলা শেষ হলে রিজেন্সি ক্লাব ২-০ গোলে জয় লাভ করে।

ফাইনাল খেলা শেষে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক ও জেলার ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি মোঃ সামসুল আরেফিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত টুর্ণামেন্টের ফাইনাল শেষে পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, জেলা পুলিশ সুপার ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি সাঈদ তারিকুল হাসান, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও ক্রীড়া বিষয়ক আহ্বায়ক ত্রিদীপ কান্তি দাশ, জেলা পরিষদের সদস্য হাজী মোঃ মুছা মাতব্বর, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক বরুন বিকাশ দেওয়ান, সাবেক পরিষদ সদস্য সুজিত দেওয়ান জাপান উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাংসদ ফিরোজা বেগম চিনু বলেন, যুব সমাজকে বিভিন্ন খারাপ অভ্যাস থেকে বাঁচিয়ে রাখতে এই খেলাধুলা কাজে আসবে। কারণ তারা খেলাধুলা করলে তাদের মন মানসিকতা ঠিক থাকবে, ফলে তাদের মধ্যে খারাপ অভ্যাস গড়ে উঠবে না। মানুষে মানুষে সম্প্রতি বজায় থাকবে।

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেন, রাঙামাটি পৌরসভা, উন্নয়ন বোর্ড, জেলা প্রশাসন প্রতিনিয়ত খেলাধুলার আয়োজন করে থাকে। জেলা পরিষদ এবার প্রথম বারের মত ফুটবল টুর্নামেন্ট আয়োজন করলো এটি যাতে নিয়মিতভাবে হয় সে ব্যাপারে জেলা পরিষদ উদ্যোগ নেবে।

তিনি আরো বলেন, ফুটবলের পাশাপাশি জেলা পরিষদ বয়সভিত্তিক ক্রিকেট টুর্ণামেন্টও আগামী বছর থেকে আয়োজন করবে। এই আয়োজন প্রতিনিয়ত করার চেষ্টা আমাদের এই পরিষদের থাকবে।

পুলিশ সুপার ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি সাঈদ তারিকুল হাসান বলেন, আমরা খুব আনন্দিত যে এই খেলা আমরা সঠিক ভাবে এবং সুশৃঙ্খল ভাবে শেষ করতে পেরেছি। আগামীতে আমরা একই ভাবে সব ধরনের খেলা সুসম্পন্ন করবো, এটাই আমাদের প্রত্যশা।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মোঃ সামসুল আরেফিন বলেন, খেলাধুলা মানুষের মনকে সুন্দর রাখে, সুন্দর কিছু ভাবতে শেখায়। তাই আমাদের চেষ্টা থাকবে এইসব খেলাধুলা নিয়মিত আয়োজন করার।

টুর্ণামেন্টে রিজেন্সি স্পোর্টিং ক্লাবের খেলোয়াড় মনির হোসেন সর্বোচ্চ গোলদাতা, ফাইনাল খেলায় ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নিখিল ত্রিপুরা, সেরা খেলোয়াড় শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের তোপেন চাকমা, শাপলা যুব সংঘের জাহাঙ্গীর আলম ও বিলাইছড়ি উপজেলা ক্রীড়া সংস্থাকে সেরা সুশৃংখল দল হিসেবে নগদ ২৫ হাজার টাকার পুরস্কার প্রদান করা হয়। এছাড়া টুর্ণামেন্টের রেফারীদের জন্য পার্বত্য বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুরের ঘোষিত নগদ ২৫ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়।
প্রসঙ্গত, গত ২ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া এ গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে রাঙামাটির ৮ টি ফুটবল ক্লাব অংশ নেয়।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

স্বাস্থ্য বিভাগকে সুরক্ষা সামগ্রী দিলো রাঙামাটি রেড ক্রিসেন্ট

নভেল করোনাভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে রাঙামাটির ১২টি সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রসমূহে স্বাস্থ্য …

Leave a Reply