নীড় পাতা » ব্রেকিং » চাকুরি স্থায়ীকরণ ও বেতন ভাতা বৃদ্ধির দাবি

চাকুরি স্থায়ীকরণ ও বেতন ভাতা বৃদ্ধির দাবি

চাকুরির মেয়াদ বৃদ্ধিসহ চাকুরি স্থায়ীকরণ ও মাসিক সম্মানী বৃদ্ধির লক্ষে রাঙামাটির বিলাইছড়ি উপজেলার ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির কর্মচারীরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান ও এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছে। সোমবার উপজেলা সভাকক্ষে ন্যাশনাল সার্ভিসের বিভিন্ন দপ্তরে কর্মরত (সংযুক্তি) কর্মচারীরা এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচি ৫ম পর্বে বিলাইছড়ি উপজেলায় সরকারি বিভিন্ন দপ্তরে ৬৯জন কর্মচারী (সংযুক্তি) নিয়োগ দেওয়া হয়। যাদের সার্ভিস মেয়াদ চুক্তিভিত্তিক ২ (দুই) বছর। আগামী ৩০ নভেম্বর চাকুরীর চুক্তির মেয়াদ শেষ হতে চলছে। চুক্তির মেয়াদ শেষে বেকার যুবক-যুবতীরা বরাবরই পূর্বের ন্যায় বেকার হতে চলেছেন। এতে তাদের বিভিন্ন সমস্যা তারা সম্মেলনে তুলে ধরেছেন। তাই চাকুরির মেয়াদ বৃদ্ধিসহ চাকুরি স্থায়ীকরণের জন্য প্রধানমন্ত্রী বরাবর তাদের স্মারকলিপি প্রদান এবং এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন।

সংবাদ সন্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তারা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগের নির্বাচনী ইশতেহারে ঘোষিত ১৪ (চৌদ্দ) অনুচ্ছেদে বেকার যুব ও যুব মহিলাদের কর্মসংস্থানের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। সে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচী চালু করেছেন। যাহার আদেশকৃত স্মারক নং-৩৪.০১.৮৪২৯.০০০.৩৭.০৭৭.২০১৭-৪৪৭ তারিখঃ ০১ ডিসেম্বর ২০১৭ খিঃ। এ আদেশের প্রেক্ষিতে অস্থায়ী সংযুক্তি হিসেবে নিয়োগের পর তিন মাস মৌলিক প্রশিক্ষণ শেষে দক্ষতা ও যোগ্যতা ভিত্তিক আমরা উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরে নিয়োজিত হই। নিয়োগের শর্তানুযায়ী দৈনিক দুইশত টাকা কর্মভাতার বিনিময়ে দেশ ও জাতির উন্নয়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিজস্ব উদ্যোগে গঠিত ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচি বাস্তবায়নে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের ন্যায় দৈনিক আট ঘণ্টা শ্রম ও ন্যুনতম কর্মভাতায় কাজ করে আসছেন বলে দাবি জানান হয়।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, চাকুরি স্থায়ীভাবে নিয়োগ না করা হলে, আগামী ৩০ নভেম্বর ২০১৯ ইং তারিখে চাকুরির মেয়াদ শেষে বিলাইছড়িতে মোট ৬৯ (ঊনসত্তর) জনসহ সারা বাংলাদেশে লাখো যুব-যুব মহিলা কর্মহীন হয়ে পড়বে। নিগৃহীত হয়ে যাবে তাদের পরিবার। তারা বোঝা হয়ে যাবে রাষ্ট্রের। হতাশা ও নিরাশায় পতিত হবে তাদের পরিবার। তাই এ থেকে উত্তোরনের জন্য দরকার আমাদের চাকুরি স্থায়ী করা। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা বিনির্মাণে যুব শক্তিকে কাজে লাগিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশের ভিত্তি শক্তিশালী করাসহ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নীতি ও আদর্শ অনুসরন করে আমরা এগিয়ে যেতে চাই। এ প্রত্যয় নিয়েই তাদের চাকুরী মেয়াদ বর্ধিতকরণসহ চাকুরি স্থায়ীকরণ এবং কর্মভাতা বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর একটি স্বারকলিপি পেশ করেন ন্যাশনাল সার্ভিস প্রোগ্রামে কর্মরত (সংযুক্তি) কর্মচারীরা।

ন্যাশনাল সার্ভিস প্রোগ্রামের উপজেলা প্রাণি সম্পদ দপ্তরে সংযুক্ত থুই প্রু মার্মার সভাপতিত্বে এবং যুব উন্নয়ন দপ্তরে সংযুক্ত অসীম চাকমা’র সঞ্চালনায় সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন, এলজিইডি দপ্তরে সংযুক্ত নারায়ন ঘোষ, শিক্ষা দপ্তরে সংযুক্ত জ্ঞানময় চাকমা, মাধ্যমিক শিক্ষা দপ্তরে সংযুক্ত পারভীন আক্তার প্রমুখ।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

প্রেমিকের সঙ্গে বিয়েতে পরিবারের অসম্মতি, অতপর…

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় মুবিনা আক্তার নয়ন (১৬) নামের এক তরুনী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে …

Leave a Reply