নীড় পাতা » বান্দরবান » ঘুমধুম সীমান্তে মাইন বিস্ফোণে রোহিঙ্গা নিহত

বান্দরবানের

ঘুমধুম সীমান্তে মাইন বিস্ফোণে রোহিঙ্গা নিহত

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে ঘুমধুম সীমান্তে স্থলমাইন বিস্ফোরণে এক রোহিঙ্গার মৃত্যু হয়েছে। এসময় আরও ২ জন আহত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রোহিঙ্গার নাম বদি আলম। কক্সবাজারের উখিয়া ১নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা। আহতরা হলেন- মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ এবং মোহাম্মদ জুয়েল। এরাও রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও স্থানীয় সূত্র জানায়, জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের মিয়ানমার সীমান্তের ৩৯ নম্বর সীমানা পিলার এলাকায় মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনীর পুতে রাখা স্থলমাইন বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এসময় বিস্ফোরনে এক রোহিঙ্গার মৃত্যু হয়েছে। এসময় আহত হয়েছেন আরও দুজন। খবর পেয়ে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উখিয়া কুতুপালং শরণার্থী শিবির ক্যাম্পের হাসপাতালে ভর্তি করেছে। নিহত রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার করেছে বিজিবি-পুলিশ।

স্থানীয়দের দাবি, হতাহত রোহিঙ্গারা মাদকদ্রব্যসহ চোরাচালানে সঙ্গে জড়িত ছিলো। চোরাচালান আনতে গিয়ে বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনাটি ঘটেছে। রোহিঙ্গাদের আনাগোনা ঠেকাতে সীমান্তের বিভিন্ন পয়েন্টে কাটা তারের বেড়ার ঘেষে স্থলমাইন পুতেছে মিয়ানমার সীমান্তরক্ষীরা।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বিজিবি ৩৪ ব্যাটালিয়ন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল আলী হায়দার জানান, সীমান্তের ৩৯/ ৪০ নাম্বার সীমান্ত পিলারের মাঝামাঝি এলাকায় স্থলমাইন বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। তবে ঘটনাস্থল মিয়ানমার অংশে পড়েছে। বিস্ফোরণে এক জন মারা গেছে। আহত হয়েছে দুই জন। হতাহতরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সদস্য। ঘটনার পর সীমান্তে বিজিবি নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, তিন মাসে সীমান্তের বিভিন্ন অংশে স্থলমাইন বিস্ফোরণে ৬ জন নিহতের ঘটনা ঘটেছে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

এমন ঈদ কখনোই দেখেনি আলীকদমের মানুষ

দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনার পর এল খুশির ঈদ। তবে এবছর ঈদ এলেও বান্দরবানের আলীকদম …

Leave a Reply