নীড় পাতা » বর্ষপূর্তির বিশেষ লেখা » গল্প আড্ডা আর বিতর্কে শুরু বর্ষপূর্তি

গল্প আড্ডা আর বিতর্কে শুরু বর্ষপূর্তি

debate-01পার্বত্যাঞ্চলের সবচে জনপ্রিয় ও সর্বাধিক পঠিত অনলাইন দৈনিক পাহাড়টোয়েন্টিফোর ডটকমের তৃতীয় বর্ষপূর্তির আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে রাঙামাটি সরকারি মহিলা কলেজ হলরুমে অনুষ্ঠিত বিতর্ক প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে এই আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। ‘দখলই কাপ্তাই হ্রদ দূষনের অন্যতম কারণ’ এই বিতর্কের পক্ষে অবস্থান নেয় মহিলা কলেজ টিম। আর বিপক্ষে অবস্থান নেয় রাঙামাটি সরকারি বিশ^বিদ্যালয় কলেজ টিম। বিতর্ক শুরু হওয়ার আগে মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীদের প্রানবন্ত উপস্থিতিতে হলরুম টইটম্বুর হয়ে উঠে। আর মেয়েদের গল্প-আড্ডার শব্দে বাড়তে থাকে শব্দ। নির্ধারিত অতিথি আর শিক্ষকদের নিয়ে পাহাড়টিম হলে প্রবেশের পরে তখনো শুনা যাচ্ছিল গুনগুন শব্দ। কখনো আস্তে আবার কখনো কখনো বেখেয়ালি আড্ডায় শব্দের মাত্রাটা যেনো বেড়েই যাচ্ছিল। পাহাড়টোয়েন্টিফোর ডটকম সম্পাদক ফজলে এলাহীর হাস্যোজ্জল ভঙ্গিতে আনুষ্ঠানিকতা শুরুর আগে যখন নিয়ামাবলি শুনাচ্ছিল আর আয়োজনের বিষয়বস্তু নিয়ে আলোচনা করছিলেন তখনও একটু একটু আওয়াজ একেক কোন থেকে ভেসে আসছিল। যখনই তিনি হাসির ছলে বললেন, ‘তোমাদের কলেজে ফোন ব্যবহার করাতো নিষেধ, চুরি করে ফোন ইউজ করো তোমরা, আর চুরি করে ফেইসবুকে ঢুকেই পাহাড়টোয়েন্টিফোরে ঢু মেরে লাইক দিয়ে দিবে’। এই কথা শুনে অট্টহাসিতে ফেটে পড়ে মেয়েরা। কেউ কেউ মুখ চেপে হাসে। এরপরই শুরু হয় বিতর্ক। তখনো কিন্তু গুনগুন শব্দ শোনা যাচ্ছিল। কিন্তু যুক্তি পাল্টা যুক্তি আর বিতার্কিকদের চমৎকার তথ্যে পুরো আয়োজনে মুহুর্তেই নেমে আসে পিন পতন নীরবতা। যখনই মহিলা কলেজ দলের পক্ষে কোনো বিতার্কিক চমৎকার যুক্তি দিয়ে প্রতিপক্ষকে প্রশ্ন ছুঁেড় দেয় কিংবা প্রতিপক্ষের বিপক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করে তখনই উপস্থিত ছাত্রীরা হাততালিতে তাকে উৎসাহিত করে। রাঙামাটি সরকারি কলেজ দলের তিনজন বিতার্কিক ছাড়া অন্য কেউ উপস্থিত না থাকলেও তাদের হতাশ করেনি মহিলা কলেজের ছাত্রীরা। স্বার্থপরতার পরিচয় দেয়নি মোটেও তারা। ফলে প্রতিপক্ষ রাঙামাটি সরকারি কলেজ দলের কোনো বিতার্কিক যখনই তার অবস্থানের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরে তখনও দেখা গেছে মেয়েরা সমানে তাদের উৎসাহিত করে তালি দিয়েছে। মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীদের এমনই আচরণ মুগ্ধ করেছে উপস্থিত বিচারক আর আয়োজকদের।debate-02

মডারেটরের দায়িত্বে ছিলেন প্রবীণ সাংবাদিক সুনীল কান্তি দে। বিচারকের দায়িত্বে ছিলেন রাঙামাটির একসময়ের কৃতি বিতার্কিক সাংবাদিক মোঃ মোস্তফা কামাল, সাস এর প্রধান নির্বাহী ললিত সি চাকমা ও শিক্ষক হাসানউদ্দীন সরকার। আর বিতার্কিকদের নির্ধারিত সময় জানিয়ে দিয়ে বারবার রিং বাজাচ্ছিলেন রাঙামাটির আরেক তরুন বিতার্কিক সাজিদ বিন জাহিদ।

বিতর্ক শেষে ফলাফল ঘোষণার আগে পাহাড়টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক ফজলে এলাহীর উপস্থাপনায় একে একে বক্তব্য রাখেন রাঙামাটি সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক রুপক খীসা। প্রবীণ সাংবাদিক সুনীল কান্তি দে, মোস্তফা কামাল, ললিত সি চাকমা, হাসান উদ্দীন।

পাহাড়টিমের পক্ষ থেকে বিচারক ও মডারেটরের হাতে তুলে দেয়া হয় পাহাড়টোয়েন্টিফোর ডটকম লোগো সম্বলিত শুভেচ্ছা উপহার। এরপরই ঘোষণা করা হয় বিতর্কে বিজয়ী ও বিজিতদের নাম। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে আর বিচারকদের চুলছেঁড়া বিশ্লেষণে মাত্র এক পয়েন্টের ব্যবধানে চ্যাম্পিয়ন হন রাঙামাটি সরকারি মহিলা কলেজ। আর সেরা বিতার্কিক নির্বাচিত হন বিজয়ী দলের দ্বিতীয় বক্তা ইয়াসমিন। আর বিজয়ী ও বিজিত দলের হাতে ক্রেস্ট ও শুভেচ্ছা উপহার তুলে দেন বিচারকগণ। দেড় ঘন্টার উপভোগ্য এক বিতর্ক প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তৃতীয় বর্ষপূর্তির আনুষ্ঠানিকতা শুরু করে পাহাড়টোয়েন্টিফোর ডটকম।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

প্রেমিকের সঙ্গে বিয়েতে পরিবারের অসম্মতি, অতপর…

বান্দরবানের আলীকদম উপজেলায় মুবিনা আক্তার নয়ন (১৬) নামের এক তরুনী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে …

Leave a Reply