নীড় পাতা » পাহাড়ের সংবাদ » খোঁজ মেলেনি নিখোঁজ দম্পতির,উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত তল্লাশি চলবে

খোঁজ মেলেনি নিখোঁজ দম্পতির,উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত তল্লাশি চলবে

navy-picবুধবার কাপ্তাই হ্রদে বোট ডুবে নিখোঁজ হওয়ার পর শুক্রবার বিকেল পর্যন্তও খোঁজ মিললোনা আলাউদ্দিন-লিমা দম্পতির। টানা উদ্ধার অভিযানে বরাবরের মতোই নেতৃত্ব দিচ্ছে নৌবাহিনীর ডুবুরিরা। সাথে আছে ফায়ারসার্ভিস,সেনাবাহিনী,পুুলিশ,পর্যটনসহ স্থানীয় প্রশাসনের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা সত্ত্বেও এখনো উদ্ধার করা যায়নি ওই দম্পতিকে।

নৌবাহিনীর ১৫ জন,ফায়ারসার্ভিসের ১১ জন ডুবুরি তিনদির ধরে টানা তল্লাশি চালিয়েও কোন হদিস পায়নি লিমা-আলাউদ্দিন দম্পতির। শুক্রবারও ঘটনাস্থল আদারপাহাড় ছেড়ে ডিসিবাংলো থেকে বালুখালি হয়ে বরাদম ক্যাম্প পর্যন্ত বিস্তৃত এলাকায় চলে তল্লাশি কার্যক্রম। তাদের সাথে থাকা সেনাবাহিনীর সদস্যরাও স্পিড বোট নিয়ে পুরো এলাকা চষে বেড়াচ্ছে। রাতদিন চব্বিশ ঘন্টাই চলছে তল্লাশি কার্যক্রম।

উদ্ধারকাজে নিয়োজিত ডুবরিদের সাথে সার্বক্ষনিক থাকা পর্যটনের কর্মচারি ফখরুল ইসলাম ডুবুরিদের বরাত দিয়ে জানিয়েছেন,হ্রদের তলদেশের পানিতে প্রচন্ড ঠান্ডা থাকায় সম্ভবত: লাশগুলোতে পচন না ধরায় সেগুলো ভেসেও উঠছেনা। তার উপর হ্রদের নীচের উঁচু-নীচু টিলা ও কর্দমাক্ত মাটি আর মাছের জাঁক এর কারণে সেখানেও দেহগুলো আটকে থাকতে পারে।
রাঙামাটি পর্যটন কর্পোরেশন এর ব্যবস্থাপক আখলাকুর রহমান জানিয়েছেন,মৃতদেহগুলো উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান চলবে। নৌবাহিনী ও ফায়ারসার্ভিসের পুরো টীম তল্লাশিতে নিয়োজিত আছে।
নিখোঁজ দম্পতির স্বজনরাও অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে প্রিয় আত্মজদের দেহাবশেষ ফিরে পেতে।

এ দিকে ঝড়ে ইঞ্জিনচালিত বোট উল্টে দম্পতি নিখোঁজের পর পুরো শহরের পর্যটন ব্যবসায় ধ্বস নেমেছে। প্রশাসনের কঠোর নজরদারি আর লাইফজ্যাকেট বাধ্যতামূলক করায় পর্যটন নৌঘাটের বোটগুলো বৃহস্পতিবার বন্ধ ছিলো,শুক্রবার পর্যটনের নজরদারিতে কিছু বোট ছাড়লেও তাতেও ছিলো বাড়তি সতর্কতা।

তবে নিখোঁজ আলাউদ্দিন পাটোয়ারির বড় ভাই শাহাবুদ্দিন পাটোয়ারি অভিযোগ করেছেন,শুক্রবারও বেশ কিছু বোট লাইফজ্যাকেট ছাড়াই হ্রদে নৌবিহারে বেরিয়েছে। তিনি বিষয়টি সম্পর্কে স্থানীয় প্রশাসনের কঠোর নজরদারি দাবি করে বলেন,আমার ভাই ও তার স্ত্রী নিখোঁজ হয়েছে,এখনো তাদের লাশও পাওয়া যায়নি,এমতাবস্থায় সর্বোচ্চ সতর্কতা জরুরী। আমরাও চাইনা আর কারো পরিণতি তাদের মতো হোক।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার রাঙামাটি বেড়াতে এসে কাপ্তাই হ্রদে নৌবিহারে বের হন কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার পয়ালগাছা এলাকার বাসিন্দা আমেরিকা প্রবাসি আলাউদ্দিন পাটোয়ারি ও তার স্ত্রী আইরিন সুলতানা লিমা। বিকেল চারটার দিকে আকস্মিক ঝড়ে তাদের বোটটি উল্টে গেলে হ্রদে ডুবে নিখোঁজ হন তারা।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

রাঙামাটিতে করোনায় আরও এক নারীর মৃত্যু

রাঙামাটি শহরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার ভোররাতে শহরের চম্পকনগর আইসোলেশন …

Leave a Reply