নীড় পাতা » ব্রেকিং » সপ্তাহান্তেও খোঁজ নেই জোহরা বেগমের

সপ্তাহান্তেও খোঁজ নেই জোহরা বেগমের

johraaaaaaaaaনিজের ছেলের জন্য পাত্রী খুঁজছিলেন এক মা জোহরা বেগম। সেই তথ্য জানা ছিলো পরিচিতা এবং সাবেক ভাড়াটিয়া নাছিমা আক্তারের। তাই নাছিমা যখন গত শনিবার দুপুর সাড়ে এগারোটার দিকে পাত্রী দেখার কথা বলে ফোন করলেন,তখন দামী গহনা পড়ে সেজেগুজেই বের হয়েছিলেন সেই মা। কিন্তু সেই যে বের হলেন,তারপর থেকে আর কোন খোঁজ নেই মধ্যবয়সী সেই মায়ের! যার ফোনে তিনি বাসা থেকে বের হয়েছিলেন,তিনি দাবি করছেন তার বাসা থেকে আরেক অপরিচিতা মহিলার সাথে বের হয়ে গেছিলেন তিনি একটি খালি ট্যাক্সিতে চড়ে। পুলিশ সন্দেহভাজন হিসেবে নাছিমা আক্তারকে আটকও করেছে,দুইদিনের রিমান্ডের প্রথম দিনে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদেও তার কাছ থেকে কোন তথ্য বের করতে পারেনি পুলিশ।

ইতোমধ্যেই এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেছে। হন্ন হয়ে মাকে খুঁজছে সন্তানেরা। শহরের তবলছড়ির পোস্ট অফিস কলোনীর বাসাটিতে এক কবরের নিস্তব্দতা আর কান্নার আহাজারি। দুই মেয়ে আর দুই ছেলের কান্না আর অসুস্থ স্বামী আহমদ সাঈদ ও স্বজনদের কান্নায় ভারি যেনো পুরো পরিবেশ।

ইতোমধ্যেই শহরের তবলছড়িতে অনুষ্ঠিত হয়েছে বিশাল মানববন্ধন। দল মতের উর্ধ্বে উঠে সকল শ্রেণী পেশার মানুষ একত্রিত হয়েছে এই সমাবেশে। সবাই একবাক্যে নিখোঁজ মায়ের সুস্থ ও নিরাপদে মুক্তির দাবি জানিয়েছে।

মুখ খুলছেনা সেই সন্দেহভাজন নারী নাছিমা
যার ফোনে বাসা থেকে বের হয়েছিলেন জোহরা বেগম সেই নাছিমা আক্তারকে আসামী করে থানায় মামলা করা হয়েছে। এই মামলার বাদী জোহরা বেগমের বড় ছেলে মো: হেলালউদ্দিন। এই মামলায় নাছিমা আক্তারকে আদালতের মাধ্যমে দুইদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে রিমান্ডে কোন তথ্যই দেয়নি এই নারী। তিনি বরাবরের মতোই ঘটনার সাথে নিজের সম্পৃক্ততা অস্বীকার করে আসছেন। অথচ তদন্ত প্রক্রিয়ার সাথে জড়িত পুলিশ কর্মকর্তা এবং নিখোঁজ নারীর পরিবারের ধারণা, কোন না কোনভাবে ঘটনার সাথে এই নারীর সম্পৃক্ততা আছেই।

কোতয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ মুহম্মদ রশীদ বলেন, ওই মহিলাকে কয়েক ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেও কোন তথ্যই পাওয়া যায়নি। প্রথম দিনের রিমান্ডে আমি নিজে এবং তদন্তকারি কর্মকর্তা দীর্ঘসময় চেষ্টা করেও গুরুত্বপূর্ণ কোন তথ্যই বের করা যায়নি। আজ (শুক্রবার) আবার চেষ্টা করে দেখবো। শনিবার রিমান্ড শেষে আসামীকে আদালত হাজির করা হবে।

মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা লিমন বোস বলেন, ওই মহিলা বেশ নার্ভাস বলেই মনে হচ্ছে,তার দেয়া তথ্যের সাথে মেলাতে গিয়ে অনেক তথ্যই আমরা সঠিক পাচ্ছিনা। কিন্তু সেও মুখ খুলছেনা কোনভাবেই। আমাদের চেষ্টা অব্যাহত আছে। আজ(শুক্রবার) রাতে আবারো রিমান্ডে নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে তাকে। আমরা তার মোবাইলের কললিস্ট,কল হিস্টরিও মিলিয়ে দেখছি।’

Micro Web Technology

আরো দেখুন

জুরাছড়িতে গুলিতে নিহত কার্বারির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন

রাঙামাটির জুরাছড়ি উপজেলায় স্থানীয় এক কার্বারিকে (গ্রামপ্রধান) গুলি করে হত্যা করেছে অজ্ঞাত বন্দুকধারী সন্ত্রাসীরা। রোববার …

Leave a Reply