নীড় পাতা » খেলার মাঠ » খেলাধূলার মাধ্যমে সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি বৃদ্ধি পায়: সন্তু লারমা

খেলাধূলার মাধ্যমে সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি বৃদ্ধি পায়: সন্তু লারমা

ম্যারাথন প্রতিযোগিতা পাহাড়ি জনপদে শান্তি ও সৌহার্দ্য প্রতিষ্ঠায় ভূমিকা রাখবে বলে মন্তব্য করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা (সন্তু লারমা)।বৃহস্পতিবার রাঙামাটিতে বঙ্গবন্ধু জন্মশত বার্ষিকী এবং স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন-২০২১ প্রতিযোগিতার প্রথম পর্বের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, খেলাধূলার মাধ্যমে এলাকার মানুষজনের মধ্যে সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি বৃদ্ধি পায়। সম্প্রীতি থাকলে এলাকার উন্নয়ন ত্বরান্বিত হয়।

দুপুর দুইটায় রাঙামাটি সাপছড়ি বিদ্যালয় থেকে ম্যারাথন শুরু হয়ে পাঁচ কিলোমিটার পাহাড়ি পথ পাড়ি দিয়ে ভেদভেদী বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে এসে শেষ হয়। ম্যারাথন শেষে রাঙামাটি জোন মাঠে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

রাঙামাটি রিজিয়নের আয়োজনে আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন রাঙামাটি সেনা রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার ইফতেকুর রহমান পিএসসি। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, শান্তি সম্প্রীতি এবং উন্নয়ন এই স্লোগান নিয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী পার্বত্য অঞ্চলে অপারেশন উত্তরণে নিয়োজিত রয়েছে। তরুণ প্রজন্মের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা সেকুলার হবেন এবং আপনারাই আমাদের ভবিষ্যত হয়ে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন; কারণ আপনারাই বাংলাদেশ।

অনুষ্ঠানে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশীদ, ডিজিএফআই রাঙামাটি অঞ্চলের অধিনায়ক কর্নেল ইমরান ইবনে-এ রউফ, রাঙামাটি সদর জোন কমান্ডার মো. রফিকুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

ম্যারাথনে অংশ নেয়া রিমি চাকমা জানান, এই ধরনের ইভেন্টে অংশ নিতে পেরে খুব ভালো লাগছে। প্রতিবছরই যেন এই ধরনের ইভেন্ট আয়োজন করা হয়।

প্রথম পর্বের প্রথম দিনে প্রায় দেড় হাজার প্রতিযোগী অংশ নেয়। সফলভাবে শেষ করতে পারা প্রত্যেক প্রতিযোগীর হাতে সনদপত্র তুলে দেয়া হয়। পরের পর্ব আগামী ২৪ শে ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।

Micro Web Technology

আরো দেখুন

বেইলি সেতু ভেঙে রাঙামাটি-বান্দরবান সড়ক যোগাযোগ বন্ধ

রাঙামাটির রাজস্থলী উপজেলায় রাঙামাটি-বান্দরবান প্রধান সড়কের সিনামা হল এলাকার বেইলি সেতু ভেঙে পাথর বোঝাই ট্রাক …

Leave a Reply